তাবলীগ জামাত (তেঁতুল তত্ত্ব)ও গং

জামাতে ইসলামের মতোই তাবলীগ জামাত একটি রাজনৈতিক দল। তারা হেফাজতে ইসলাম নাম পরিচিত। তেঁতুল তত্ত্বের উদ্ভাবক। তারা ঘোষণা করেছে নারী স্বাধীনতা ও নারী নেতৃত্ব হারাম। বাস্তবতা হলো তারা নারী নেতৃত্বের কাছ থাকে হাঁসি মুখে সকল সুবিধা নিচ্ছে। সাধারণ মুসলিমদের বোকা বানাচ্ছে। এটা প্রতারণা ও অনৈতিক। তাদের মন-মানসিকতা , শিক্ষা ও মানবিকতার মান খুবই নিন্ম। স্বাধীনতা বিরোধী ও ধর্ম ব্যাবসায়ী জামাতে ইসলামীর মতোই তাবলীগ জামাত। তারা বলে ইসলাম শান্তির ধর্ম। কিন্তু তারা বাংলাদেশে অশান্তির মূলকারন।

নেতৃত্বের দ্বন্দ্বের জেরে বিভক্ত হয়ে পড়েছে তাবলিগ জামাত। দিল্লি ও লাহোরের এই বিভক্তি অন্য অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও ছড়িয়েছে। তবে বাংলাদেশের দ্বন্দ্বে কওমি মাদ্রাসার আলেমদের বড় অংশ যুক্ত হয়েছে। তাবলিগের বর্তমান আমির মাওলানা সাদ দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে দ্বন্দ্বের শুরু।
জানা যায়, তাবলিগের এই বিভক্তির জেরে প্রথম প্রকাশ্য বিরোধ ও মারামারি হয় ২০১৬ সালের ১৯ জুন দিল্লিতে সংগঠনটির মূল কেন্দ্র বা মারকাজে।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে এই বিরোধ প্রকাশ্য রূপ নেয় যুক্তরাজ্যেও, লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ মারকাজটি দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ করে দেয়।
মাওলানা সাদকে নিয়ে বাংলাদেশে বিভেদ প্রকাশ্যভাবে দেখা দেয় গত জানুয়ারিতে বিশ্ব ইজতেমা থেকে। তাবলিগ জামাতের যে অংশটি সাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে, তাদের সঙ্গে যোগ দেয় কওমি মাদ্রাসাকেন্দ্রিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম।

বাংলাদেশে জামাতে ইসলাম , হেফাজতে ইসলাম ইসলাম ধর্মের ইজারাদার। রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বার্থে তারা ধর্মকে নিয়ন্ত্রণ করে। তাদের মতের বিরোধী হলে, তারা কাফের , নাস্তিক ও ধর্ম বিরোধিতার তিলক দিয়ে দেয়। বাংলাদেশে বিশৃঙ্খলার মূল কারণ ধর্ম ভিত্তিক রাজনীতি। জামাত দাবি করে তাদের ভোট দিলে বেহেস্তে যাওয়া যাবে। ঈমান থাকবে। জামাতে ইসলাম ও হেফাজতে ইসলাম ধর্মের অপব্যাবহার করে স্বস্বার্থের জন্য।

3 total views, 1 views today

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of