শয়তানের হাতে কুরআনশরীফ (প্রথম খণ্ড—প্রথম পর্ব)

ফজরের নামাজ আদায় করে আজ খুব একটা পবিত্র মন নিয়ে বাসার বারান্দায় এসে দাঁড়ালো আবু কায়েস। হঠাৎ সে দেখতে পেলো, তাদের বাসার সামনের রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে সাদা পায়জামা-পাঞ্জাবি-পরিহিত কতকগুলো ছেলে-ছোকরা। আবার তাদের মাথায় টুপি, আর মুখে দাড়ি। তাদের প্রত্যেকের একহাতে কুরআনশরীফ, আরেক হাতে গজারির লাঠি।…

বিস্তারিত পড়ুন...

ইসলামধর্মে ‘মাদ্রাসাশিক্ষা’ বলে কোনো শিক্ষা নাই (দ্বিতীয় পর্ব)

বর্তমানে প্রচলিত ‘মাদ্রাসা’ (বা ‘মাদরাসা’) একটি আরবি-শব্দ। আধুনিক অভিধানকারদের মতে, এটি ‘দরস্’ বা ‘দারসুন’ শব্দ থেকে উদ্ভূত। আর এর অর্থ হলো—পড়া, অধ্যয়ন, আবৃত্তি বা পাঠ। এসব কিছুসংখ্যক চিন্তাবিদের অভিমত মাত্র। কিন্তু এই মাদ্রাসা-শব্দটি কুরআনের কোথাও নাই। এর কারণ কী? মাদ্রাসাশিক্ষার ব্যাপারে মহান আল্লাহর কোনো পরিকল্পনা নাই। তিনি আলকুরআনের কোথাও একটিবারের…

বিস্তারিত পড়ুন...

মসজিদের এইসব ইমামকে ‘মানুষ’ বলা মহাপাপ

মসজিদে ঢুকলেই দেখা যায়, ইমাম-নামধারী একেকটা নরপশু কুরআন-হাদিসের প্রয়োজনীয় আলোচনা বাদ দিয়ে গগণবিদারীকণ্ঠে সরাসরি রাজনৈতিক ওয়াজে ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়ছে। এরা বর্তমান-বিশ্বে মুসলমানদের সকলপ্রকার অধঃপতনের জন্য একমাত্র দায়ী করে থাকে ইহুদী-খ্রিস্টানদের।

বিস্তারিত পড়ুন...

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ধারাবাহিক উপন্যাস: মুক্তিযুদ্ধ এখনও শেষ হয় নাই (প্রথম খণ্ড—চতুর্থ পর্ব)

একাত্তরের আদি-আসল প্রেতাত্মা ‘জামায়াত-বিএনপি’র সমন্বয়ে চারদলীয় জোটের শয়তানীসরকার গঠিত হয় ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবরের কারচুপির নির্বাচনের পর। পহেলা অক্টোবর থেকে তারা বাংলাদেশের রাষ্ট্রক্ষমতাদখল করে ১৯৭১ সালের ২৫-এ মার্চের কালরাতের মতো নিরীহ বাঙালি-জাতির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা বেছে-বেছে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষশক্তির মাথাগুলোকে একের-পর-এক সাবাড় করতে থাকে। আগের পর্বের লিংকগুলো: প্রথম পর্বের লিংক:…

বিস্তারিত পড়ুন...

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ধারাবাহিক উপন্যাস: মুক্তিযুদ্ধ এখনও শেষ হয় নাই (প্রথম খণ্ড—তৃতীয় পর্ব)

আমাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ইংরেজদের সহযোগিতায় সেদিন পাকিস্তানীরা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আমাদের সুন্দর রাষ্ট্রকে, শয়তানীরাষ্ট্র পাকিস্তানের অংশীদার করে নেয়। কারণ, আমাদের সম্পদের প্রতি আগে থেকে পাকিস্তানী-জানোয়ারগোষ্ঠীর ছিল সীমাহীন লোভ। তারা আমাদের রাষ্ট্রকে তাদের শোষণের কলোনী বানিয়ে চিরদিন আমাদের সম্পদ ভোগদখল করতে চেয়েছিলো। পাকিস্তানের সামরিকজান্তারা আমাদের চিরদিনের জন্য গোলাম বানিয়ে রাখতে চেয়েছিলো। কারণ, ওদের…

বিস্তারিত পড়ুন...

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ধারাবাহিক উপন্যাস: মুক্তিযুদ্ধ এখনও শেষ হয় নাই (প্রথম খণ্ড—দ্বিতীয় পর্ব)

একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীরা কোনোভাবেই মুসলমান ছিল না এবং তারা আজও মুসলমান নয়। আর তারা মানুষও নয়। তার কারণ, মানুষ হওয়ার জন্য যে-সব বৈশিষ্ট্যের তথা যে-সব মানবিক গুণের প্রয়োজন তা এদের কারও মধ্যে ছিল না। এরা আদিমপশুদের সরাসরি উত্তরাধিকারী—এরা ছিল কোনো প্রাগৈতিহাসিক জীব, এবং আজও তা-ই। প্রথম পর্বের লিংক: http://istishon.blog/?q=node/29620

বিস্তারিত পড়ুন...

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ধারাবাহিক উপন্যাস: মুক্তিযুদ্ধ এখনও শেষ হয় নাই (প্রথম খণ্ড—প্রথম পর্ব)

দেশের কথা ভাবতে-ভাবতে লিটু মিয়া একসময় উঠে দাঁড়ালেন। আর ভাবলেন: এই দেশটাতে আর কোনোদিন একাত্তরের পরাজিত-অপশক্তির দুঃশাসন মেনে নেওয়া যাবে না। বিগত বছরগুলোতে যা হওয়ার তা-তো হয়েই গেছে—কিন্তু আর যেন এমনটি না হয়। কারণ, যেকোনো ভুল মানুষের জীবনে একবারই হওয়া উচিত—এর বেশি হলে মানুষ আর মানুষ থাকে না।

বিস্তারিত পড়ুন...

সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের শান্তিপূর্ণ-আন্দোলনে কারা, কীভাবে এবং কেন শয়তানী করেছে

নিরাপদ সড়কের দাবিতে প্রথম দুইদিন এই আন্দোলন সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের ছিল। আর হ্যাঁ, এখানে কিছুসংখ্যক কোমলমতী-শিক্ষার্থী রাস্তায় নেমে সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সড়কে মৃত্যুর মিছিল থামানোর জন্য মানবিক-আন্দোলন করেছে। এদের এই আন্দোলন সরকারপক্ষও সমর্থন করেছে। দেশের সরকার, সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের দাবিদাওয়া মেনে নেওয়ার পর তারা ঘরে ফিরে গিয়েছে।

বিস্তারিত পড়ুন...

শেখ হাসিনাকে গালি দিচ্ছিস কেন বেআদব?

একটি সড়ক-দুর্ঘটনায় ঢাকা-ক্যান্টনমেন্ট-এলাকার ‘শহীদ রমিজ উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজে’র দুটি ছেলেমেয়ে নিহত হয়েছে। নিঃসন্দেহে এটি মর্মান্তিক ও বেদনাদায়ক। এতে ওইদিন ওই স্কুলের ছেলেমেয়েরা তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষোভে ফেটে পড়ে কয়েকটি গাড়ি-ভাংচুরসহ দুটি গাড়িতে আগুন দিয়েছিলো। সরকার সহানুভূতির সঙ্গে তা মোকাবেলা করেছে।…

বিস্তারিত পড়ুন...

বাংলাদেশের জাতীয় বেশ্যা মাহমুদুর রহমানের সংক্ষিপ্ত আমলনামা

পত্রিকার নাম ‘দৈনিক আমার দেশ’। আসলে, এর প্রকৃত নাম দৈনিক আমার দেশ পাকিস্তান। এটি একটি ব্যবসায়ীগোষ্ঠীর পত্রিকা। এটি একসময় বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক উপদেষ্টা মোসাদ্দেক আলী ফালু’র মালিকানায় ছিল। পরবর্তীতে, সর্বশেষ হাতবদল হয়ে এর শয়তানী-মালিকানা নির্ধারিত হয়েছে মাহমুদুর রহমানগংদের হাতে।

বিস্তারিত পড়ুন...