বিষাক্ত রাজনীতি:- চতুদর্শ পর্ব-

বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে এটা বলা যায় বামেদের সামনে পাহাড় সদৃশ্য প্রতিবন্ধকতা এসে উপস্থিত হলেও; সেগুলি কাটিয়ে উঠে প্রাসঙ্গিক হওয়ায় তাদের কাছে সবচেয়ে বড় পরীক্ষা! বামেদের নেতৃত্ব দুর্বলতা ফুটে উঠছে, তাই অনেক বুদ্ধিজীবীই মনে করছেন বামেদের অস্তিত্ব শেষ হয়ে যাবে এবং বামপন্থা মুছে যাবে! তাদের উদ্দেশ্যে বলি বামপন্থার কিছু ত্রুটি বিচ্যুতি থাকলেও…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- ত্রয়োদশ পর্ব-

পূর্বোক্ত পর্বের আলোচনা থেকে আমরা বুঝতে পারি এ বঙ্গের মিডিয়া ও বুদ্ধিজীবীদের চাটুকারি মনোবৃত্তির ফলে প্রকৃত সত্য প্রকাশিত হচ্ছে না বরং প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ না হওয়ার ফলে শাসকদল আরও অরক্ষিত ভাবে স্বৈরতান্ত্রিক সরকার চালাচ্ছে। তাই বর্তমান দিনের পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ও সমাজিক অবস্থা প্রতিনিয়ত নিম্নাভিমুখী। তবে সামগ্রিক ভাবে বিশ্লেষণ করলে এটা…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- দ্বাদশ পর্ব-

পূর্বোক্ত পর্বের আলোচনা গুলি থেকে একথা পরিষ্কার বোঝা যায়- ধর্ম রাজনীতি কখনোই দেশ বা জাতির পক্ষে মঙ্গলজনক নয়। ভারত ও বিশ্বের ইতিহাস সাক্ষী যখনই বিষাক্ত ধর্ম রাজনীতির উত্থান হয়েছে তখনই তার চরম মূল্য দিতে হয়েছে দেশের আপামর জনসাধারণকে, একই সঙ্গে ক্ষত বিক্ষত হয়েছে বিশ্বমানবতা! এই বিষাক্ত ধর্ম রাজনীতির ছোবলে যুগে…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- একাদশ পর্ব-

দিনটি ছিল 27 শে ফেব্রুয়ারি সালটি ছিল 2002 অর্থাৎ 27 শে ফেব্রুয়ারি, 2002। এই দিনটি ভারতবর্ষের ইতিহাসে এক কলঙ্কিত দিন; এই দিন যা ঘটেছিল তা ভারতবর্ষের ইতিহাস চিরতরে বদলে দিয়েছিল। ওই দিনের নৃশংসতা আজও আমাদের সভ্য সমাজকে কাঁপিয়ে দেয় এবং তার প্রতিক্রিয়া হিসাবে আমরা যা পায় তা সভ্য সমাজের জন্য…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- দশম পর্ব-

মুম্বাই বিস্ফোরণের এই তদন্ত প্রক্রিয়া চলতে থাকে দাউদ ইব্রাহিম, টাইগার মেমন ও ডি কোম্পানির সঙ্গে তদন্ত প্রক্রিয়ায় আর একটি নাম উঠে আসে; আর এই নামটি নিয়েই পরবর্তীকালে দেশ জোড়া বিতর্ক শুরু হয়। বিতর্ক শুরু হয় আদেও এই মানুষটি মুম্বাই বিস্ফোরণে যুক্ত ছিলেন কি না? মুম্বাই বিস্ফোরণের অন্যতম বহু চর্চিত সেই…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- নবম পর্ব-

মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে দেশের অবস্থা বহু পরিবর্তিত হয়। বাবরি ধ্বংসের পর মুম্বাইয়ে দাঙ্গা এবং দাঙ্গার প্রতিক্রিয়া হিসাবে মুম্বাই বিস্ফোরণ হয়। সরকারি হিসাবে 257 জনের মৃত্যু হলেও প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে শুধুমাত্র মুম্বাই স্টক এক্সচেঞ্জের হামলায় পাঁচশো থেকে হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। তাহলে ওই হামলায় মোট কত মানুষের মৃত্যু হয়েছিল ও কতজন…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- অষ্টম পর্ব

মুম্বাইতে প্রায় দুই মাস ভাতৃঘাতি দাঙ্গা চলতে থাকে। এই দাঙ্গায় কত যে মানুষের মৃত্যু হল এবং বিষয় সম্পত্তির ক্ষতি হল তার কোন সঠিক হিসাব নেই! ধর্ম রাজনীতির জাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে দিনের শেষে সাধারণ নিরীহ মানুষ জীবন ও সর্বস্ব খুইয়ে ছিল। এই দাঙ্গা যে সাধারণ মানুষের জন্য কতটা ভয়াবহ ও ক্ষতিকর…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- সপ্তম পর্ব-

1992 সালের 6 ই ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংস হয়! এটি শুধু মাত্র কোন একটি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনা ছিল না; এর সঙ্গে আরও অনেক কিছু জড়িত ছিল। ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতার আদর্শ বর্হিবিশ্বের কাছে তীব্র আঘাত প্রাপ্ত হয় ও ভারতের মর্যাদা ভূলুন্ঠিত হয়। বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর দেশ ও বিদেশে এর তীব্র প্রতিক্রিয়া…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- ষষ্ঠ পর্ব-

রাজনৈতিক লাভ লোকসানের বলি হয়ে চন্দ্রশেখর সরকার পড়ে যায়, সেই সঙ্গে রামজন্মভূমি বাবরি মসজিদ বিতর্কের সুষ্ঠ সমাধানের প্রয়াস ও সমাধিস্থ হয়। এমত অবস্থায় কংগ্রেস মনে করে সংখ্যালঘু সরকার গঠন করা উচিত হবে না তাই তারা নির্বাচনের দিকে যায়, একই সঙ্গে 1991 সালের দশম লোকসভা নির্বাচনের দামামা বেজে ওঠে। এই নির্বাচন…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিষাক্ত রাজনীতি:- পঞ্চম পর্ব-

বিস্তারিত পড়ুন...