আগেই জানতাম, বাকশালী ককটেল ভেজাল :খালেদা জিয়া ম্যাম

বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর মহিলা শাখার বিএনপি উপশাখার যুবতী আমির, তারুণ্যের হার্টথ্রব খালেদা জিয়া আজ এক জরুরি প্রেস কনফারেন্সে মন্তব্য করেন ফ্যাসিস্ট বাকশালীসরকার বাজারে ভেজাল ককটেল ছেড়েছে যা গণতন্ত্রের পথে একটি বিশাল হুমকি। তিনি চোখের কাজল ঠিক করতে করতে বলেন,পাজি ছাত্রদলকে কত করে বললাম এক মায়ের পেটের ভাই শিবিরের জন্য ভালো মানের ককটেল এবং গেলমান সংগ্রহ করো। কিন্তু পাজি গুলো গেলমানে মুগ্ধহয়ে সব গুলিয়ে ফেলল। এবং এই সুযোগটিই নিলো আওয়ামী সরকার। পটকা সাপ্লাই করল ককটেলের নামে।

তিনি হুঙ্কার দিতে গিয়ে ভাঙা গলায় বলে উঠেন, এইইই! আমি আপোষহীন নেত্রী। আমার মন খারাপ হলেআমি কারো সাথে আপোষ করি না, সাঈদী সাহেবের শরণাপন্ন হই, আমার কাজের ছেলেটা নিখোঁজ হলেও আমি আপোষের রাজনীতি করি না। আমি বুঝে নিই সে সালাউদ্দীনের কাছে এক্সট্রা ডিউটি করছে।

তবে বারবার জামাতের সাথে আপোষ কেন – এক বেরসিক মহিলা সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে বিরক্ত হয়ে তিনি বলেন, ও হানি! কেন ভুলে যাচ্ছআমরা এক মায়ের পেটে জন্মিয়েছি। আমাদের মাঝে আপোষ হয় না। বন্ধন দৃঢ় হয়। আমরা দ্রবীভূত হই।না বুঝলে পাপিয়ার সাথে যোগাযোগ করো। হাতেকলমে বুঝিয়ে দিবে।

এক পর্যায়ে তিনি মেকাপ ঠিক করতে করতে আনমনে বলেন, ভাবছো নারী হয়ে কিভাবে নারী জাগরণে ককটেল মারার প্লেন করলাম! হিহিহি। ওই ধেমড়ি বুড়িরা সবার বাহবা পাচ্ছে আর মনে মনে প্রীত হচ্ছে। আমার নাম কেউ নিচ্ছেও না! হাহ!
সেই মুহুর্তে ফালু কাকা পেছন থেকে হালকার উপর পাতলা করে খোচা দেন। ম্যাম দুষ্টু হেসে বলে উঠেন, আহ আলু ফালু! সবখানে এসব না। ওমরার নামে আবার না হয় ঘুরে আসবো।

সম্মেলন কক্ষে তখন সবার মাঝে দুষ্টু হাসি খেলে যায়
অতি উৎসাহী এক তরুণ সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, ম্যাম, শরীর স্বাস্থ্য ভালো তো?

এসময় বেগম খালেদা আচমকা উদাস হয়ে যান। ক্ষীণ গলায় তিনি বলেন, মেশিন বিনা রহিনু কেমোনে।। জানেনা ফালু, জানেনা কালু!

উল্লেখ্য উক্ত তরুণ সাংবাদিক ঘোর কৃষ্ণ বর্ণের ছিলেন।

শাহবাগের আন্দোলন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি হেসে বলেন, আমার দেশ পাঠ করো। সঠিক সংবাদ জানো।

পরবর্তী কর্মসূচি জানতে চাইলে ম্যামের চটপট জবাব, বাকশালী ককটেল দিয়ে গণতান্ত্রীক আন্দোলন বাধা দেয়ায় সরকার পতনের এক দফা আন্দোলন শুরু হবে। পাকিস্তান জিন্দাবাদ …… স্যরি, থুক্কু, বাংলাদেশ জিন্দাবাদ।

এ নিয়ে কয়বার সরকার পতনের ডাক দেয়া হল জানতে চাইলে ম্যাডাম বলেন, মাত্র তো শুরু। আরো অনেকসময় আছে। আরো কথা হবে।

এ সময় পেছন থেকে মওদুদ আহমদ বলেন স্বচ্ছ, নিরপেক্ষ এবং আন্তর্জাতিক মানের ডাক না হওয়ায় আমরা এখনও মাঠে নামছি না।

টিভি চ্যানেলের সামনের সব বাঙালি এ সময় সমস্বরে চেঁচিয়ে বলে, CTN

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩ thoughts on “আগেই জানতাম, বাকশালী ককটেল ভেজাল :খালেদা জিয়া ম্যাম

  1. লেখাই বিনোদনের অভাব পাইলাম
    লেখাই বিনোদনের অভাব পাইলাম না,যাই হোক লেখা খারাপ হয় নাই পইরা অনেক মজা পাইছি !! :চশমুদ্দিন:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

36 − 26 =