বই পরিচিতিঃ আমারে কবর দিও হাঁটুভাঙ্গার বাঁকে – ডি ব্রাউন

বেরি মাই হার্ট অ্যাট ঊ্যনডেড নী তথা আমারে কবর দিও হাঁটুভাঙ্গার বাঁকে বইটি বিখ্যাত মার্কিন লেখক ডি ব্রাউনের এক অনবদ্য সৃষ্টি। প্রামাণিক তথ্য, সরকারী নথিপত্র, আত্মজীবনীমূলক বইপুস্তক, গোত্রপ্রধান ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাক্ষাৎকার ইত্যাদি ছেঁকে তিনি গেঁথে তুলেছেন উত্তর আমেরিকার পশ্চিম ভূ-ভাগ দখলের বহুবিধ ঘটনাকে।

ক্রিস্টোফার কলম্বাসের আমেরিকায় পদার্পণের পর থেকে নানা জাতের ইউরোপীয় শ্বেতাঙ্গরা দলে দলে পাড়ি জমাতে থাকে নব্য আবিস্কৃত ওই গোলার্ধে। শুরু হয় কলোনাইজেশন তথা বসতিস্থাপন, জবরদখল, হত্যা ও লুন্ঠন নির্বিচারে। সেখানকার আদি বাসিন্দা রেড ইন্ডিয়ানদের সবংশে নিধনে রাষ্ট্রীয়ভাবে পরিচালিত হয় সুপরিকল্পিত ধ্বংসযজ্ঞ।

ধ্বংস হয়ে যাবার বিষাদময় ওই কালপর্বে ব্যর্থ হয়ে যায় রেড ইন্ডিয়ানদের আত্মরক্ষা ও প্রতিরোধের যাবতীয় প্রচেষ্টা, যার আনুষ্ঠানিক পরিসমাপ্তি ঘটে ঊ্যনডেড নী নামক এক পার্বত্য খাঁড়ির বাঁকে, খ্রীস্টীয় মহাপ্রভুর পঞ্জিকা মতে দিনটি ছিল ১৮৯০ অব্দের ২৯শে ডিসেম্বর।

বইটি সম্পর্কে দি নিউইয়র্ক টাইমস মন্তব্য করেছেঃ মৌলিক, অসাধারণ এবং শেষবধি হৃদয়বিদারক… পাঠে আত্মসংবরণ অসম্ভব।

দি ওয়াশিংটন পোস্ট বলেছেঃ হৃদয়বিদারক, আতঙ্কজনক… দেহমন অসাড় করে দেওয়ার মত এ বইটি পড়ে যে কেউ ভাবতে বাধ্য হবেন আদতে বর্বর ছিল কারা!

দি ওয়াল স্ট্রীট জার্নাল বলেছেঃ বইটি অতীব আকর্ষণীয়, বেদনাদায়ক, প্রামাণ্য এক দলিল… যেটি সাজিয়ে তোলা হয়েছে অনবদ্য সব ইন্ডিয়ান প্রতিকৃতি দিয়ে।

১৯৭০-এ প্রকাশনার প্রথম বছরেই এটি খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই অর্জন করে সর্বাধিক বিক্রীত বইয়ের জাতীয় মর্যাদা যা অক্ষুণ্ণ ছিল বছরধিক কালব্যপী। একই বছরে বিক্রির সংখ্যা ছাপিয়ে যায় ৪০ লক্ষের কোঠা। ইতোমধ্যেই এটি অনূদিত হয়েছে বিশ্বের সেরা ১৭টি ভাষায়। বাংলা সাহিত্যে রেড ইন্ডিয়ানদের ঘিরে এ জাতীয় বই সম্ভবত এটিই প্রথম।

আজকের বিশ্বে মহাশক্তিধর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে নিবিড়ভাবে জানার লক্ষ্যে ডি ব্রাউনের কন্ঠে কন্ঠ মিলিয়ে আমরাও বাংলাভাষীদেরকে অনুরোধ করবো তাদের কেউ আদৌ যদি এ বইটি পড়েন সেক্ষেত্রে পড়েন যেন অবশ্যই পূর্বমুখী হয়ে।

ডি ব্রাউনের এই বইটি বাংলাদেশেও জনপ্রিয়। বইটি প্রকাশ করেছেন ‘সংঘ প্রকাশন’। লেখকঃ ডি ব্রাউন, অনুবাদঃ দাউদ হোসেন।পেপারব্যাক বাঁধাই, মুল্যঃ ৪০০ টাকা, পৃষ্টা সংখ্যাঃ ৪৩২। সারাদেশে বিভিন্ন সৃজনশীল বইয়ের দোকানে পাওয়া যাচ্ছে বইটি। এছাড়াও ঘরে বসে অর্ডার করলে কারিগর.কম ২০% কমে আপনার কাছে পৌছে দেবে। আজই আপনার কপি সংগ্রহ করুন।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৬ thoughts on “বই পরিচিতিঃ আমারে কবর দিও হাঁটুভাঙ্গার বাঁকে – ডি ব্রাউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

79 − 77 =