বাংলা ব্লগ বন্ধের উদ্যেগ ও কিছু কথা ।

বর্তমানে ভার্চুয়াল জগতে যে শব্দটি জোর গলায় উচ্চারিত হচ্ছে তা হল বাংলা ব্লগ ।আওয়ামী সরকারের ডিজিটাল স্বপ্ন বাস্তবায়ন ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুত প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে বিশেষ ভুমিকা রাখছে এই ব্লগ ।সম্প্রতি স্বাধীনতার বিরুধী শক্তিগুলো ধর্মান্ধ গুষ্টিকে সাথে নিয়ে নানা বিভ্রান্তি মুলক প্রচার প্রচারনার মাধ্যমে সরকার ও ধর্মপ্রান মুসলমানদের বুঝাতে সক্ষম হয়েছে যে,ব্লগ মানেই ইসলাম বিরুধী,ব্লগ মানেই ধর্ম বিরুধী ।বলতে গেলে এক্ষেত্রে তারা পুরোপুরিই সফল ।তাদের এই বিভ্রান্তি ছড়াতে যে সংবাদ মাধ্যম গুলো বিশেষ ভুমিকা রাখে সে গুলোর মাঝে অন্যতম হল আমারদেশ,নয়াদিগন্ত ও দিগন্ত টেলিভিশন ।সাইদির চাঁদে দর্শন কিংবা ভিটামিন খেয়ে শিশু মারা যাওয়া সহ বেশ কয়েকটি গুজব ছড়িয়ে তারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে ।এবং এ ক্ষেত্রে অনেক হতাহতেরও ঘটনা ঘটে ।যার জলন্ত প্রমান বগুড়া জেলা।সারা দেশে সহিংসতা ছড়ানোর কারনে সাধারন জনতা আমারদেশ পত্রিকাকে দায়ি মনে করে এবং ইহা নিষিদ্ধের দাবি উঠে ।এই দাবির পক্ষে শাহবাগের লাখো তরুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় বরাবর স্মারকলিপি ও প্রদান করে ।সরকার আমারদেশের বিরুদ্ধে ব্যবস্তা নেবে বলে আন্দোলনকারিদের আশ্বস্থ করে ।কিন্তু আজ পর্যন্ত আমারদেশ পত্রিকার বিরুদ্ধে সরকার কোন ব্যবস্থা নেয়ই উপরন্তু দেশ ও দশের উপকারে যে সব বাংলা ব্লগ বিশেষ ভুমিকা পালন করছে সেই সব ব্লগ বন্ধে উদ্যেগ নিয়েছে এমনকি আমার ব্লগ নামে একটি ব্লগ বন্ধ করেই দিয়েছে ।

সরকার কেন যে এরকম আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নিতেছে তা আমাদের বোধগম্য নয় ।সরকারকে উদ্যেশ্য করে বলতে চাই, সমস্থ ব্লগ বন্ধ করলে,সকল ব্লগারদেরকে জেলে ঢুকালে,শাহবাগের সকল আন্দোলনকারিদের ফাসিঁর ঘোষনা দিলে ও হেফাজত কিংবা জামাত বিএনপির লংমার্চ স্থগিত বা বাতিল করা হবে না ।তাদের এই সব সহিংস কর্মসুচি মুলত রাজাকার বাচাতে এবং সহিংসতা সৃষ্টি করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে একটা মারমুখী পদক্ষেপ ।তারা যে কোন ছুতায় এরকম সহিংসতা বাধানোর পায়তারা করবেই ।তারা আজ বলছে ইসলাম অবমাননা কাল বলবে হলমার্ক কেলেংকারি পরশু বলবে একতরফা ট্র্যানজিট ইত্যাদি ইত্যাদি ।মোট কথা তারা ঝামেলা বাধাবেই ।এই ধরনের পদক্ষেপ আজ নতুন নয়, স্বাধীনতার পর থেকে ধর্মান্ধ গোষ্টিরা এই ধরনের পদক্ষেপ বিভিন্ন সময়ে বার বার নিয়েছে ।সাধারনত সরকারের প্রথম অথবা শেষ দিকে ফালতু বিষয়কে আমলে নিয়ে ধর্মকে ব্যবহার করে সাম্প্রদায়িক উস্কানি ছড়িয়ে এসব করা হয়ে থাকে ।যে সরকার কঠোর হস্তে এসব দমন করতে পারে তারাই টিকে থাকে আর যারা এসব কে প্রশ্রয় দেয় তারা সাময়িকভাবে টিকে থাকলেও একসময় ধ্বংশ হয়ে যায় ।

দুঃখের বিষয় হলো সাম্প্রতিক এই অতি সাধারন ব্যাপারটি সবাই বুঝতে পারলেও সরকার বুঝতে পারেনি ।যেখানে দেশের শান্তিকামি সকল তরুনদেরকে সাথে নিয়ে দেশ বিরোধী এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর কথা সেখানে সরকার ধর্মান্ধদের কথায় সায় দিয়ে উল্টো পিছু লেগেছে বাংলার স্বাধীনতা প্রিয় দেশ প্রেমিক কোটি তরুনের ।এই মুহুর্তে সরকারের লাভটা চোখে না পড়লেও অদুর ভবিষ্যতে শত্রু বাড়ানোর কারনে সরকারকেই যে সংকটে পড়তে হবে সেটাই আমাদের চোখে দিবালোকের মত পরিস্কার ।

সরকার হয়তো ভুলে গিয়েছে যে, সম্প্রতি চাঁদে সাইদি দর্শন কিংবা ভিটামিন খেয়ে শিশু মৃত্যুর গুজবটি কিন্তু এদেশের তরুনরাই সরকারের পক্ষ নিয়ে ব্লগ বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে খুবই কম সময়ে সাধারন জনতাকে গুজব বলে বুঝিয়েছিল,ষড়যন্ত্র বলে জানিয়েছিল ।যার ফলে লাভবান হয়েছিল সরকারই ।নয়তো এতোদিনে সরকার সাধারন নিয়মেই গর্তে ঢুকে যেত ।এখানে খেয়াল রাখার বিষয় এটাই যে, ঐ মুহুর্তে কিন্তু ছাত্রলীগ,যুবলীগ,শ্রমিক লীগ বা আওয়ামীলীগের কোন অংগ সংগঠন বিশেষ কোন ভূমিকা রাখতে পারেনি ।যতটুকু সাধারন তরুনরা করেছে তার ছটাক পরিমান ও দলীয়কর্মীরা করতে পারেনি ।

তাই সরকারের কাছে অনুরোধ,স্বাধীনতা বিরুধী অপশক্তিদের কথায় সায় দিয়ে কোটি তরুনের প্রানের চেয়েও প্রিয় ঐতিহ্যবাহী বাংলা ব্লগ বন্ধ করার আগে একবার যেন ভাবা হয় এই কোটি তরুন কোন ভিনগ্রহ থেকে আসেনি,এই কোটি তরুন কোন পুলিশ হত্যা করেনি,এই কোটি তরুন কোথাও জ্বালাও পোড়াও কিংবা অগ্নি সংযোগ করেনি,এই কোটি তরুন ব্লগের মাধ্যমে এসব ব্যাপারে কোন উস্কানি ও প্রদান করেনি ।করতে পারে না ।
পাশাপাশি আমরা এটাও বলতে চাই আমাদের লেখনীর দ্বারা কোন ধর্মকে অবমাননা কিংবা আঘাত করা ও আমাদের কোন উদ্দেশ্য নয় ।

যাইহোক এরপর ও সরকার যদি মনে করে দেশের জন্য,ইসলামের জন্য বা সরকারের জন্য আমরা হুমকি স্বরুপ তবে আমাদের ধ্বংশের বিনিময়ে যদি এদেশে ইসলাম বেচে যায়, সরকার লাভবান হয়ে যায়,দেশ ধ্বংশের হাত থেকে রক্ষা পেয়ে যায় তবে বিশেষ স্বার্থের খাতিরে আমরা আমাদের ক্ষতি না হয় মেনে নিলাম কিন্তু কোন দেশ বিরুধী রাজাকার ও তাদের দোসরদের স্থান, লক্ষ প্রানের বিনিময়ে অর্জিত এই বাংলাদেশে যেন না হয় ।
জয় বাংলা ।জয় তারুন্য ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “বাংলা ব্লগ বন্ধের উদ্যেগ ও কিছু কথা ।

  1. সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ
    সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ কমিটিতে যারা আছেন, নিশ্চয় তারা এ লেখা পড়বেন! যদি পড়েন তাহলে অবশ্যই সরকারের নজরে আনবেন। তাতে অন্ততঃ সরকার উপকৃত হবে……ব্লগাররাও উপকৃত হবে..

    জয় বাংলা….

  2. বাংলা কন্টেন্ট লেখা বাদ দিমু
    বাংলা কন্টেন্ট লেখা বাদ দিমু ভাবতেছি, ইংরেজীতে পুটু মারতেই তো মজা বেশি, সাজা কম…..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 + 4 =