বই পরিচিতি: লালন ফকির – পাঠ ও বিবেচনা

লালন ফকির বাংলার কৃষি নির্ভর গ্রামসমাজের মহান ভাবুক। তাঁর ভাবসম্পদ গ্রামোত্তীর্ণ সমাজকেও স্পর্শ করেছে। তাঁর ভাষ্য উপনিবেশ যুগ পার হয়ে বিস্বায়নের যুগে পৌঁছেও প্রভাব হারায় নি। বরং সাম্প্রতিক বছরগুলোতে লালন ফকিরকে নিয়ে নানা মহলে জিজ্ঞাসা বাড়ছে। লালনের ভাবজগতৎ, তার জীবনযাপন, কবিত্বশক্তি, সাংগীতিক ক্ষমতা ও স্বাতন্ত্র্য, বাংলার নিজস্ব সংগীত রীতি-এই সবকিছু মিলিয়ে তাঁকে নিয়ে জানবার আগ্রহেরও শেষ নেই। তবে এ-কথাও সত্য যে তাঁকে নিয়ে তর্কও রয়েছে প্রচুর। শাদাচোখে লালনের গভীরতা সন্ধান করা যায় না। তাঁর সৃষ্টিকর্মের বিচারও সম্পন্ন করা যায় না প্রচলিত মানদন্ডে।

লালন কি ছিলেন এ-কথার উত্তরে কেই বলবেন তিনি ছিলেন বাংলার এক স্বতন্ত্র ধর্ম সম্প্রদায়ের নেতৃ-মানুষ। কারও মতে তিনি লোককবি। কারও কাছে তিনি চিহিৃত হন স্বতন্ত্র এক সংগীত ধারার প্রতিভূ হিসাবে। কারও কারও কাছে লালন সম্পন্ন এক দার্শনিক চেতনার নাম। প্রয়ানের এত বছর পরও তাঁর আখড়ায় আজও তত্ত্বসাধনার জন্য একদল মানুষের নিত্য আনাগোনা চলে। কারণ তিনি এমন এক মহাতত্বজ্ঞ ও তত্ত্বের নিশানাসন্ধানী ছিলেন যে তাঁর আশ্রয় ছাড়া চলে না।

দুই শতাব্দীর বেশি সময় ধরে তাঁর তত্ত্বসাধনা, তাঁর জীবন যাপন, তাঁর অসম্প্রদায়িক চেতনা, তাঁর ভাবসম্পদ আকৃষ্ট করে আসছে গ্রাম-গঞ্জের সাধারণ মানুষকে যেমন তেমনি ভাবে গঠমান নাগরিক সমাজকেও। দিনে দিনে এ আকর্ষণ যে বেড়েই চলেছে এর গভীরে নিশ্চয়ই ক্রিয়াশীল রয়েছে তাঁর জীবন ও কর্মের কোনও এক অসীম ইশারাময় শক্তি যার সন্ধান নিরন্তর চলমান। নাগরিক সমাজের সঙ্গে লালনের যোগসূত্র কি রবীন্দ্রনাথের মাধ্যমে বা ঠাকুর বাড়ির মাধ্যমেই স্থাপিত হয়েছিল? যদি এইভাবে যোগসূত্র না ঘটতো তা হলে লালনের প্রভাব থেকে পাশ্চাত্য ধরনের শিক্ষায় শিক্ষিত মধ্যবিত্ত সমাজের মানুষ মুক্ত থাকতো?

নাকি রবীন্দ্রনাথ বা ঠাকুরবাড়ির সেতু ছাড়াও বাংলার নাগরিক মধ্যবিত্ত সমাজের কাছে তিনি এমনই পরিচিত থাকতেন? লালনের আখড়ায় যাঁরা এখনও মিলিত হন সাধনক্রিয়ায় অংশগ্রহণের জন্য তাঁরা কী ভাবেন লালনকে নিয়ে? এইসব প্রশ্নের উত্তর সন্ধান করতেই লালন ফকিরঃ পাঠ ও বিবেচনা বইটির অবতারণা।

কোনও একজন বিশেষজ্ঞের ভাষ্যে খন্ডিত লালন সন্ধান নয়, লালনকে এখানে খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে সম্পূর্ণ ভাবে। সব দিক থেকে আলো ফেলে ফেলে। যে-সব দিকে আলো ফেলা হয় নি কিংবা আলো ফেলা যায় নি তাকেও সন্ধান করবার চেষ্টা করা হয়েছে এখানে।

সূচিপত্র:

  • লালন ফকির ও তাঁর গান
  • তত্ত্ব-সাহিত্যে কবি লালন
  • লালন ফকিরঃ হিন্দু কি যবন
  • সমাজলগ্ন এক সাধকের ছবি
  • লালন ফকিরের সাধনা
  • বাংলার বাউল সংগীত ও বাউল কবি লালন সাঁই
  • ব্রাত্য লোকায়ত লালন
  • ফকির লালন শাহের ভাবচর্চা এবং দৈন্য গান প্রসঙ্গ
  • আমি, তুমি ও সে
  • সহজ মানুষ কার্তিক ও কর্তারুপে অন্বেষণ
  • আমি কী তাই জানলে সাধন সিদ্ধ হয়
  • বাউলকথা
  • লালন ফকিরের কিছু নির্বাচিত গান

লেখক আহমাদ মাযহার ও পারভেজ হোসেন লালন সম্পর্কিত এই বইটি সংবেদ প্রকাশনী প্রকাশ করেছে। মূল্যঃ ৩৫০টাকা। সারাদেশে বিভিন্ন সৃজনশীল বইয়ের দোকানে পাওয়া যাচ্ছে বইটি। এছাড়াও ঘরে বসে অর্ডার করলে কারিগর.কম ২০% ছাড়ে আপনার কাছে পৌঁছে দেবে। আজই আপনার কপি সংগ্রহ করুন।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩ thoughts on “বই পরিচিতি: লালন ফকির – পাঠ ও বিবেচনা

  1. লালনকে অনেক ভালোবাসি
    লালনকে অনেক ভালোবাসি :চুম্বন: প্রতিমাসে একবার লালনের আখড়া না গেলে আমার চলে না :নৃত্য: 😀

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

88 + = 98