হেফাজতে ইসলামের উগ্র সাম্প্রদায়িক লিফলেট

হেফাজতে ইসলামের অত্র লিফলেটখানি চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিলি করা হয়েছে। হেফাজতে ইসলামের সম্পাদক মৌলানা নাসির উদ্দিন কর্তৃক প্রচারিত এ লিফলেটে পাকিস্তানের অখন্ডতা,অমুসলিম এবং গণজাগরণের কর্মীদের হত্যার দাবিসহ তাদের ইমাম শফিকে ইমাম মাহাদি বলে দাবি করা হয়। উগ্র ধর্মান্ধ এই লিফলেট সম্পর্কে সকল ব্লগারের জানা প্রয়োজন বলে মনে করায় প্রকাশ করলামঃ

নারয়ে তাকবির আলাহু আকবার
বিছমিলাহির রাহমানির রহিম
জিহাদ ছাড়া মুক্তি নাই, মুক্তি ছাড়া গত্যন্তর নাই
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ
কেন্দ্রীয় অফিসঃ হাটহাজারী, চট্টগ্রাম।
সূত্র তারিখ
ঈমান, ইসলাম ও দেশ রক্ষায় ধর্মপ্রাণ মুসলিমবিশ্ব এগিয়ে আসুন।
বেরাদানে ইসলাম, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমতুলাহি ওয়া বারকাতুহু। আমরা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের পক্ষ থেকে অত্যন্ত উদ্বেগ এবং উৎকন্ঠার সাথে বাংলাদেশ তথা সমগ্র বিশ্ব মুসলিম সমাজকে অবহিত করতে চাই যে, বাংলাদেশে বর্তমানে মুসলিম নামধারী ভারত নিয়ন্ত্রিত কাফের- মুশরিকগণ ক্ষমতায় অধিষ্ঠান আছে। আমারা আরও উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি যে এ সরকার যুদ্ধ ও মানবতাবিরোধী বিচারের নামে এ দেশের স্বনামধন্য আলেম ওলামা ও কোরান তফসীরকারকগণকে সুকৌশলে হত্যার উম্মাদনায় মেতেছে যা ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণকে অত্যন্ত ব্যতিত করছে। আমরা আরও লক্ষ্য করছি এ সরকার গণজাগরণ মঞ্চের নামে শাহবাগে কতিপয় ইসলামের দুষমন বেলালাপনা নাস্তিকদের ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে। যারা নবী-করিম (সঃ) সহ দেশের ধর্ম প্রাণ আলেম-ওলমাদের ঈমান আকিদায় আঘাত করার মত হীন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে। তাই এই কাফের মুশরিক সরকার কে প্রতিহত করার লক্ষে আমরা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ তথা সমগ্র বিশ্ব মুসলিমকে কিছু নির্দেশাবলী পালন করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

১. কাফের মুশরিক মুনাফিকদের নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ এবং সমমনা বামদল গুলোর নিয়ন্ত্রনাধীন বর্তমান সরকারকে প্রতিহত নির্মূল ও উচ্ছেদ করার জন্য আমরা হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে ধর্মপ্রাণ বিশ্ব মুসলিম আলেম ওলামা এবং সমমনা দল গুলোর প্রতি আহব্বান জানাচ্ছি। আওয়ামীলীগ ও বামদের মদদ দান কারী সংস্থা সমূহ প্রিন্ট মিডিয়া (দৈনিক জনকন্ঠ, কালের কন্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, প্রথম আলো, সংবাদ, ভোরের কাগজ, দৈনিক পূর্বকোণ, দৈনিক আজাদী, চট্টগ্রাম মঞ্চ, সুপ্রভাত বাংলাদেশ) ইলেকট্রনিক্স মিডিয়া (এ,টি,এন. সময়, ৭১টিভি, জি টিভি,) সহ সকল বামপন্থী বুদ্ধিজীবিদের হত্যা ও ধংস করা জরুরী মনে করছি। ইসলামের বিরুদ্ধ বাদীদের হত্যাকরা ঈমানী দ্বায়িত্ব বলে মনে করি। ভারত ও আমিরিকার মদদে চলিত সকল দল ও রাজনৈতিক নেতাদের হত্যাকরা জায়েজ বলে ঘোষণা দিচ্ছি।

২. ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ বর্তমানে কাফের ফাউন্ডেশনে পরিণত হয়েছে। বায়তুল মোকারম মসজিদের খতিব, শোলাকিয়ার ঈমান, সুনিড়ব জামাতের ঈমাম গণ, ক্রিকেট খেলোয়াড়, বল খেলোয়াড় গান ও নাটক সিনেমার মানুষগণ যারা শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চকে সমর্থন জানিয়েছেন সেই সব মুসলিম নামধারী ইসলামের দুষমন কাফের মুরতাদ মুশরিকদের হত্যাকরা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরজ বলে মনে করে। তাই ব্লগার রাজিব হত্যাকারীদের, হেফাজাতে ইসলাম বাংলাদেশ জাতীয় বীর বলে মনে করে। সুনড়বী জামাতের দশ আলেম হত্যা প্রচেষ্টাকারী বীরদের হেফজতে ইসলাম বাংলাদেশ সমর্থন করে। তা ছাড়া ও শাহাবাগকে জারা সমর্থন জানিয়েছে তারাও কাফের। অতএব, তাদের হত্যাকরা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সকল ধর্ম প্রাণ মুসলিমের ঈমানী দায়িত্ব মনে করে। যে সমস্ত পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি,আর্মি বর্তমান কাফের সরকারকে সমর্থন জানাচ্ছে কিংবা তাদের টিকিয়ে রেখেছে তাদের হত্যাকরা এবং সকল পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আর্মি ব্যারাক ধংস করা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ ফরজ বলে মনে করে।

৩. চিটাগাং ক্লাবের মত দেশের অন্যান্য ক্লাব গুলো যেখানে প্রকাশ্যে পতিতাবৃত্তি চলে, সিনেমা হল সমূহ ,অভিজাত হোটেল সর্মূহ, জাকাতের বিরোধীতা কারি , ট্যাক্স এবং কাস্টম অফিস সমূহ, পতিতালয়ের মত গার্মেন্টস শিল্প সমূহ শরিয়ত আইনের বিরুদ্ধবাদী কোর্ট সমূহ কাফের দের সকল স্থাপনা, আল্লাহর আইনের বিরোধীতা কারী স্কুল কলেজ মাদ্রাসা সমূহ ধংস করে দেয়া হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ অত্যন্ত জরুরী মনে করে।

৪. আওয়ামীলীগ সরকার কিংবা নেতৃবৃন্দ দ্বারা পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত সকল প্রতিষ্ঠান, স্থাপনা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মন্দির, গির্জা এমনকি মসজিদ সমূহ যেখানে শয়তানি ও বেধাত চর্চা হয় সেই সমস্ত যে কোন মূল্যে ধংস করার জন্য আহব্বান জানাচ্ছি। আগামী ১৭ মার্চ বাংলার কাফের শেখ মুজিবের জন্মদিন থেকে সরকার পতন না হওয়া পর্যন্ত এক নাগারে হরতাল পালন করার জন্য ধর্মপ্রাণ মুসলমান ও দেশবাসীর প্রতি আহব্বান জানাচ্ছি।

৫. এ দেশের সংখ্যাগরিস্ট মানুষ মুসলিম। এ দেশের মানুষের ধর্ম ইসলাম। তাই এ দেশে হিন্দু, বৌদ্ধ, খৃষ্টানদের বসবাসের অধিকার নেই আওয়ামীলীগারদের এবং কমিউনিস্টরা যদি তারা মুসলমানও হয়ে থাকে তথাপি এ দেশে তাদের বসবাসের অধিকার নেই। তাদের বসত বাড়ী জ্বালিয়ে পুড়িয়ে উচ্ছেদ করার এবং কাফের মুশরিকদের হত্যা করার জন্য আমি ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের আহব্বান জানচ্ছি। শাহবাগের কাফের, মুশরিক, মুরতাদদের বিচারের সম্মখীন করে তাদেরকে ধর্ম দ্রোহীতার জন্য ফাসিঁর কাষ্ঠে ঝোলানোর ব্যবস্থা করার আহব্বান জানাচ্ছি। আল্লামা হযরত দেলোয়ার হোসেন সাঈদী, গোলাম আযম, কাদের মোল্লা, মতিউর রহমান নিজামী, আবুল কালাম আজাদ সহ প্রহসনের ট্রাইব্যুনালে বন্দী সকল রাজ বন্দীদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। যে কোন মুল্যে আওয়ামীলীগ সরকারকে এ মূহুর্তে উচ্ছেদ করার আহব্বান জানাচ্ছি।

৬. এদেশ পাকিস্তান ছিল, পাকিস্তান আছে, পাকিস্তান থাকবে। পাকিস্তানের অখন্ডতা রক্ষা ও একীভুত করার জন্য আমি সমগ্র মুসলিম সমাজকে জিহাদের ডাক দিচ্ছি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধবাদী সুনড়বী নামক আলেম ওলামা ও কবর পূজা কারীদের আমরা হত্যার আহব্বান জানাচ্ছি।

৭. আলামা শাহ্ আহম্মদ শফি জমানার মোজাদ্দেদ। তিনি বর্তমান ইসলামের যুগ খলিফা এবং ঈমাম মেহেদী ও বটে। তার প্রতি ঈমান আনা, তার আদেশ নিষেদ মেনে চলা সমগ্র
বিশ্ব মুসলিমের কর্তব্য। যারা তার বিরোধিতা করবে তার প্রতি কুৎসা করবে তারা কাফের। তাদেরকে হত্যাকরা বিশ্বমুসলিম সমাজের দায়িত্ব।

৮. আল্লামা শাহ্ আহম্মদ শফির উপর ইলহাম হয়েছে আলামা সাঈদী একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম এবং ইসলামের ঝান্ডাবাহী একমাত্র সেনাপতি। পৃথিবীতে থাকা অবস্থায়ই তিনি বেহেস্তের স্বাদ লাভ করিবে। তার জন্য যারা যুদ্ধ করিবে তারা বেহেস্ত লাভ করিবে। তার জন্য যারা জান মাল কোরবানী করিবে তারা বেহেস্তে তার লক্ষ্য গুণ পুরুষ্কার ভোগ করিবে। যারা মৌলানা সাঈদীর নামে একজন বিরুদ্ধবাদী হত্যা করবে তজ্জন্য তারা বেহেস্তে ও গাজি হিসেবে অভিষিক্ত হইবে এবং যার তার জন্য শহীদ হইবেন তারা নিশ্চত ভাবে জানড়বাতুল ফেরদৌসে গমণ করিবে।

এই নির্দেশ আলামা শাহ্ আহম্মদ শফীর পক্ষ থেকে। তিনি নিশ্চিত ভাবে ঈমাম মেহেদী হবার দাবি রাক্ষে যারা নির্দেশ সমূহ অক্ষরে অক্ষরে পালন করিবে তারা ইহকাল, পরকাল দুই-ই পাবেন। আর যারা অমান্য বা অস্বীকার করিবে তারা ইহকালে যন্ত্রণা ভোগ করিবে এবং পরকালে নিশ্চিত জাহানড়বামি। যারা নির্দেশ নামাটি পাইবেন তারা ১০০ (একশত) কপি করে বিতরণ করবেন। আল্লাহ আপনাদের হেফাজত করবে। পরবর্তী নির্দেশের জন্য অপেক্ষায় থাকুন।

প্রচারেঃ
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের পক্ষে
মৌলানা নাসির উদ্দিন
সেক্রেটারী জেনারেল
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

অত্র লিফলেটখানি পি ডি এফ ফাইল আকারে যেভাবে ছিল সেভাবেই প্রকাশ করলাম। কোন বানান, বাক্য শুদ্ধ করলাম না। কারো পি ডি এফ ফাইল দরকার হলে ই মেইল এ যোগাযোগ করতে পারেন। এই উগ্র ফ্যাসিবাদি,সাম্প্রদায়িক,ইসলাম ধর্মের অপব্যাখ্যাদানকারী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অনলাইন এবং মাঠে যুদ্ধ ঘোষণা করলাম।সবাই সাথে থাকবেন আশা করি।

সবাইকে বিপ্লবী সালাম।

লিফলেটের পিডিএফ এখানে

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৪৫ thoughts on “হেফাজতে ইসলামের উগ্র সাম্প্রদায়িক লিফলেট

  1. কোথা থেকে পেয়েছেন? ই-মেইলে
    কোথা থেকে পেয়েছেন? ই-মেইলে পেলে সেই ই-মেইল আইডিটাও দিয়ে দিন।
    যেভাবে যে মাধ্যমে পেয়েছেন সেটির উল্লেখ্য করা দরকার অবশ্যই।

  2. মামার বাড়ির আবদার… লাত্থি
    মামার বাড়ির আবদার… লাত্থি দিয়া জনগণ এদের বঙ্গোপসাগরে চুবায়ে মারবে। কারন পাকিরাও এদের নিজ দেশে নিবে না এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নাই। কোন জাতিই মিরজাফরদের বিশ্বাস করে না। ইতিহাস সাক্ষী।
    লিফলেটটির স্ক্যান কপি যোগার করতে পারলে পোস্টে এড করে দেন।

  3. ৮. আল্লামা শাহ্ আহম্মদ শফির

    ৮. আল্লামা শাহ্ আহম্মদ শফির উপর ইলহাম হয়েছে আলামা সাঈদী একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম এবং ইসলামের ঝান্ডাবাহী একমাত্র সেনাপতি। পৃথিবীতে থাকা অবস্থায়ই তিনি বেহেস্তের স্বাদ লাভ করিবে। তার জন্য যারা যুদ্ধ করিবে তারা বেহেস্ত লাভ করিবে। তার জন্য যারা জান মাল কোরবানী করিবে তারা বেহেস্তে তার লক্ষ্য গুণ পুরুষ্কার ভোগ করিবে। যারা মৌলানা সাঈদীর নামে একজন বিরুদ্ধবাদী হত্যা করবে তজ্জন্য তারা বেহেস্তে ও গাজি হিসেবে অভিষিক্ত হইবে এবং যার তার জন্য শহীদ হইবেন তারা নিশ্চত ভাবে জানড়বাতুল ফেরদৌসে গমণ করিবে।

    মুখোশ খুলে যাচ্ছে হেফাজতিদের। হেফাজতিদের এই প্রচারপত্রের প্রতিটা বাক্য আপত্তিজনক ও উদ্বেগজনক। ইমলাম ধর্মের সাথে চরমভাবে সাংঘর্ষিক। দেশটা জামায়াত-বিএনপি-হেফাজতিরা কোথায় নিয়ে যাচ্ছে??? বাঙালী জাতির অস্তিত্ব বিলীন করার ষড়যন্ত্র এখনই রুখতে হবে।

    জামায়াত-হেফাজতি নিপাত যাক। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাংলাদেশ দেখতে চাই। প্রয়োজনে আরো একটি মুক্তিযুদ্ধ করতে আমরা প্রস্তুত।

    1. সবার উদ্দেশ্যেই বলছি, স্ক্যান
      সবার উদ্দেশ্যেই বলছি, স্ক্যান কপিটি আমার হাতে নেই। আমি মেইল এ যা পেয়েছি, তাই এখানে ইউনিকোডে কনভার্ট করে দিয়েছি। তবে স্ক্যান কপি জোগাড়ের চেষ্টা চলছে। পাওয়া মাত্রই আমি ইস্টিশনে জানাব।

  4. আমার হাতে লিফলেটের স্ক্যান
    আমার হাতে লিফলেটের স্ক্যান কপিটি নেই। আমি যেভাবে পেয়েছি তা বিজয় থেকে কনভার্ট করে ইউনিকোডে নিয়ে প্রকাশ করেছি।তবে সংগ্রহের চেষ্টা করছি, পাওয়া মাত্রই স্ক্যান করে আমাকে মেইল করতে বলেছি আমি।

  5. আমার মনে হয় না, তালিবানরাও
    আমার মনে হয় না, তালিবানরাও এরকম লিফলেট বের করে। অবিলম্বে এই লিফলেটের স্ক্যানড কোপি প্রকাশ ক্রুন, অন্যথায় এটিকে জাল মনে হবে,

  6. ছবি, স্ক্যান কপি অথবা ফটোকপি
    ছবি, স্ক্যান কপি অথবা ফটোকপি এসব দরকার। এসব কিছু জোগাড় করার চেষ্টা করেন। পিডিএফ কেউ বিশ্বাস করে না।

  7. এখানে গুগোল ড্রাইভের একটা
    এখানে গুগোল ড্রাইভের একটা লিঙ্ক দিয়ে দিলাম। দেখে নিবেন।এরপরে মেইলে আর সফট কপি পাঠানো হবে না।

    ধন্যবাদ

  8. বিজয় থেকে কনভার্ট করে
    বিজয় থেকে কনভার্ট করে ইউনিকোডে নিয়ে প্রকাশ করলেই সব কিছু প্রমানিত হয় না। পিডিএফ ফাইল আপলোড করলেও এটা প্রমাণ করা যাবে না। লিফলেটের স্ক্যান কপি আপলোড করেন।

  9. আমি এখন হেফাজত-জামায়াত-বিএনপি
    আমি এখন হেফাজত-জামায়াত-বিএনপি এদেরকে একই মুদ্রার এপিঠ আর ওপিঠ হিসাবেই দেখি। এই প্রচার পত্রের ভাষা দেখলেই অনুভব করা যায় এরা আমাদের এই অসাম্প্রদায়িক দেশটাকে নিয়ে তারা কত বড় ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। আসুন সময় থাকতে আমরা সবাই সাবধান হই।

  10. shobai internet e desh bidesh
    shobai internet e desh bidesh er website,blogsite,fb te PROTIRODH gore tulun.ei leaflet ta ashol na nokol tar cheye boro shotto holo,basherkella shoho oder blogsite,fb page ar jihadi boi e erokom kothagulai choriye chitoye thake.hoeto atota OPENLY naa.but oder shaar-shongkhep etai.egula bolei ora oshocheton manushder brain wash kore.so,protirodh gortei hobe.Juddho choluk net e,juddho choluk rastae.31st may holo 5february te fire jabar din. 71 er lokkho lokkho nihoto ar dhorshito der koifiyot er drishtir dike takiye,shahbag abar jagiye tulun.jamaat er mul utpaton korte hobe.JOY BANGLA.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

49 + = 53