এ বোশেখে তোমাকে দেবার মতো কিচ্ছু ছিলোনা

এ বোশেখে তোমাকে দেবার মতো কিচ্ছু ছিলোনা!
হালখাতা পুড়নো হয়; জমা হবার কিচ্ছু ছিলোনা ।
দিতে পারি জের টেনে; ফেলে আসা সুখস্মৃতি, সাথে কিছু দুঃখ বৈকি !
নেহাত কম কিছু হবেনা; মন বদলায়, মানুষ বদলায় ষড়ঋতুর মতো,
বদলায় না নস্টালজিক দিনগুলো।

একবার স্কুলে দৌড় প্রতিযোগিতায় সেকেন্ড হতে পারছিলামনা দেখে
ভাই আমার আঁকাবাঁকা দৌড়ে পথ করে দিচ্ছিলো এগিয়ে যাবার।
সে এখন আটপৌরে সংসারী; বিশ্ব সংসার ঘুরে ঘুরে মুক্তো জমা করে,
সংসারী বৈকি! ধুলোবালি, ঝুল জমে জ্যামিতিক ফ্রেমে।
আমাকে সেকেন্ড হবার পথ করে দেয় না আর কেউ।

ছোটো বোনটির জমানো টাকা ক’টি হাতে পাবার জন্য
হন্যে হয়ে যখন এ ঘর ও ঘর ঘুরে ইবনে বতুতা,
শেষতক শেষ অস্ত্রটা “আমি জানি কোথায় লুকিয়েছিস টাকা”!
অমনি শ্যমল বাংলা যেন ফ্রক নাড়িয়ে দৌড়ে চলে যেত লুকনো বইয়ের ভাঁজে,
বোকা বোনটি আমার আজ সংসারী, কলেজে জিওলজি পড়ায়!

সারা বাড়ী মাথায় তুলে পড়া মুখস্ত করতো বড় আপা,
মাঝে মাঝে নিথর শব্দহীন; তখন “মাসুদ রানা” ছিলো তার গোপন প্রেম!
বড্ড বিরক্ত হতাম মাঝে মাঝে; তার ছিঁচকাঁদুনে স্বভাব দেখে ।
এখন তার ঘরে ফুটফুটে দুটি ছানা ; ঘরময় কিচিরমিচির,
মা পাখিকে ছাড়িয়ে যাবার দুস্বাহস দুলাভাইয়ের আজো হয়নি।

মা আজ দুর্নিবার শিশু কন্যা; বাবার ছবি, আমাদের শৈশব তার সব।
ছোটো বোনের জন্মের পর ঈর্ষায় কাতর আমি কাঁদতাম দূরে দাঁড়িয়ে!
মাঝে মাঝে বিশ্বাস হতে চায় না!
“পাখি সব করে রব রাতি পোহালে “
মা আমাদের শ্রেষ্ঠ পাঠশালা ছিলেন শৈশবে,
এক কুঠুরির তিন “ফার্স্টের “ গর্বিত জননী আমার।

বাবা আর আমি একই রকম; বোহেমিয়ান উদাসীন জীবনবোধ
মাইলের পর মাইল দুর্বার গতিতে হেঁটে চলে যেতেন।
করাচী থাকা ছবির শুশ্রুমন্ডিত বাবাকে দেখে মেলাতে পারতাম না কিছুতে
স্যুটেড, বুটেড হ্যান্ডসাম লোকটির সাথে।
বাবার কোলে বসা মায়ের ছবি দেখে খুব লজ্জা পেয়েছিলাম একদিন,
আজ সে ছবির অজানা ফটোগ্রাফার আমার কাছে লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি ।

এ বোশেখে তোমাকে দেবার মতো কিচ্ছু ছিলোনা!
হালখাতা পুড়নো হয়; জমা হবার কিচ্ছু ছিলোনা ।
দিতে পারি জের টেনে; ফেলে আসা সুখস্মৃতি, সাথে কিছু দুঃখ বৈকি !
হিসেবের অঙ্কে বরাবর বেখেয়ালে; বছর তোমার সুখে পূর্ণতা স্বর্ণলতা ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৭ thoughts on “এ বোশেখে তোমাকে দেবার মতো কিচ্ছু ছিলোনা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 70 = 77