প্যারিস অভিযান শেষ : খতম দুই জঙ্গি, গ্রেফতার সাত

প্রায় ১২ ঘণ্টারও বেশি অভিযান চালিয়ে প্যারিসের শহরতলী সেন্ট ডেনিস থেকে সাতজন সন্দেহভাজন জঙ্গিকে গ্রেফতার করল ফ্রান্সের সেনা ও পুলিশের যৌথবাহিনী। পুলিশের গুলিতে এক জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। আরেক মহিলা জঙ্গি ফিদায়েঁ বিস্ফোরণে মৃত।

প্যারিস হামলার মূল চক্রী আব্দেলহামিদ আবাউদের খোঁজে তল্লাশি চালাতে গিয়ে সেন্ট ডেনিস শহরতলীতে আজ দিনভর চলছিল পুলিশ-জঙ্গি গুলির লড়াই। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, সেন্ট ডেনিসে হামলার ষড়যন্ত্রকারীরা লুকিয়ে রয়েছে, খবর পেয়ে অভিযান চালায় পুলিশ ও সোয়্যাট টিম। সন্দেহভাজন জঙ্গিদের ঘাঁটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। তখনই ভিতর থেকে পালটা গুলিবর্ষণ শুরু করে জঙ্গিরা। পুলিশের গুলিতে খতম এক জঙ্গি। আরেক মহিলা জঙ্গি ফিদায়েঁ বিস্ফোরণে নিহত।

সেন্ট ডেনিস এলাকার রু দি লা রিপুবলিক-এর চারপাশের রাস্তা বন্ধ করে এই অভিযান চালানো হয়। শুক্রবার স্তাদ দ্য ফ্রান্স স্টেডিয়াম যেখানে আত্মঘাতী হামলাকারীরা বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় সেটিও এই একই এলাকায়। সশস্ত্র পুলিশের সঙ্গে অভিযানে যোগ দেয় ট্রাকভর্তি সৈন্যরা। অভিযানের সময় বিস্ফোরণ ও প্রচুর গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে। ‘‘আমি ক্রমাগত বন্দুকের গুলির আওয়াজ শুনছি যেন আতসবাজি ফাটছে- মাঝে মাঝে তা থামছে- তবে অব্যাহত গুলিবর্ষণের আওয়াজ পাচ্ছি।’’ বিবিসিকে বলেন স্থানীয় একজন বাসিন্দা বেনসন হই।

আরেকজন প্রত্যক্ষদর্শী অ্যামিন গুইজানি বার্তা সংস্থা এপিকে বলেছেন তিনি গ্রেনেড এবং স্বয়ংক্রিয় বন্দুকের গুলির আওয়াজ শুনেছেন। ‘‘ওরা এক ঘন্টা ধরে অবিরাম গুলি চালিয়েছে। গ্রেনেড ছুঁড়েছে। কালাশনিকভ ব্যবহার হয়েছে। থামছে আবার পরমূহুর্তেই গুলি চলছে।’’ ফরাসি সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর অনুযায়ী রু দি লা রিপুবলিকের চারতলার ওই ফ্ল্যাটে অন্তত পাঁচজনকে লক্ষ্য করে এই অভিযান চালানো হয়।

সূত্রের খবর, মৃত জঙ্গিদের মধ্যে একজন প্যারিস হামলার মূল চক্রী আবদেলহামিদ আবাউদেকে হতে পারে। যদিও পুলিশ বা প্রশাসন সূত্রে এ খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়নি। গুলির লড়াই ও শব্দে এলাকাবাসী আতঙ্কিত। এলাকাবাসীরা বলছেন, “ঘুম ভাঙতে দেখি এলাকা পুলিশে পুলিশে ছয়লাপ। জানালার কাঁচে লেজারের লাল বিন্দু, প্রতি মুহূর্তে বুলেট ছিটকে আসার ভয়ে কাঁটা হয়েছিলাম।”

বুধবার অন্তত সাতবার বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে প্যারিস। ভোর সাড়ে চারটে থেকে চলছে পুলিশ-জঙ্গিদের গুলির লড়াই। জানা গিয়েছে, এখনও ট্রাকভর্তি ভারী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত সেনা এলাকায় মোতায়েন রয়েছে। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়েছে। যাতে কোনও জঙ্গি পালাতে না পারে। গত রাতে পুলিসি অভিযানের সময়েই হঠাত্‍ পরপর গুলির শব্দে কেঁপে ওঠে শহরতলির সেন্ট ডেনিস এলাকা। সন্ত্রাসবাদীদের ধরতে গত দুদিনের মতো এদিনও রাতভর প্যারিসজুড়ে খানা তল্লাসি চালাচ্ছিল ফরাসি পুলিশ। সেই সময়েই হঠাত্‍ একটি বাড়ি থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে গুলি ছুটে আসে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। গুলিবিদ্ধ হন একজন পুলিশকর্মী। জবাবে গুলি চালায় প্যারিস পুলিশও।

ধরপাকড় এড়াতেই হামলা বলে অনুমান ফরাশি পুলিসের। গোয়েন্দাসূত্রে দাবি প্যারিস হামলায় জড়িত নবম জঙ্গিই শহরতলির ওই বাড়িটিতে আশ্রয় নিয়েছে। দিন পাঁচেক আগে সন্ত্রাসহানার আতঙ্ক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি প্যারিসবাসী। আর তাই গোটা দেশে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট।

সূত্র : জি নিউজ, সিএনএন, বিবিসি

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “প্যারিস অভিযান শেষ : খতম দুই জঙ্গি, গ্রেফতার সাত

  1. একজনকেও তারা বাঁচিয়ে রাখল না!
    একজনকেও তারা বাঁচিয়ে রাখল না! এই ঘটনার তদন্তের স্বার্থে অন্তত একজন ইসলামী জঙ্গীকে বাঁচিয়ে রাখা উচিত ছিল। যদিও ফ্রান্সের গোয়েন্দারা ইতিমধ্যে জেনে গেছে নৈপথ্যে কারা ছিল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

22 + = 29