রিয়াল মাদ্রিদে ”ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো” মিথোলজি

 

বিলবাওয়ের বিপক্ষে জোড়া গোলে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো টানা তৃতীয় মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ত্রিশটি বা তার বেশী গোল করার মাইলফলক অর্জন করলো। এই মাইলফলকের মাধ্যমে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো সাবেক মাদ্রিদ কিংবদন্তি হুগো সানচেজের ১৯৮৬-৮৭ এবং ১৯৮৯-৯০ দুই মৌসুমে ৩০টি বা তার বেশী গোলের রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে।

গ্রীক মিথলজিতে জিউস
দেবতা আতলাসকে শাস্তি দিয়াছিল স্বর্গের বোঝা কাধে বহন করার, আতলাসের প্রতীক হল কাধের উপর বিশ্ব।
রিয়াল মাদ্রিদ মিথলজিতে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো যেন ছবির মতোই কাধে বয়ে চলছে পুরো রিয়াল মাদ্রিদকে। এই পর্তুগিজ ফুটবল দেবতা ইতিহাসের সেরা ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে আরো নতুন নতুন ইতিহাস আর মাইলফলকের দিকে। ইতিমধ্যেই এটা প্রমানিত হয়েছে ”একজন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো” একটি ভালো মানের মুভির মত, যা রিয়াল মাদ্রিদ দর্শকরা মাঝখানে অনেকদিন মিস করেছে। এই মুভির ষোলকলা পূর্ণ হবে, এক দশকের বেশী সময় জিততে না পারা দশম চ্যাম্পিয়নস লীগটা জিতে নিলে।

আসন্ন চ্যাম্পিয়নস লীগ সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের প্রতিপক্ষ বরুশিয়া ডর্টমুণ্ড। প্রথম লেগ অনুষ্ঠিত হবে ২৪ এপ্রিল ,ডর্টমুণ্ডের মাঠ সিগনাল ইডুনা পার্কে। ফিরতি লেগ হবে ৩০ এপ্রিল, সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৫ thoughts on “রিয়াল মাদ্রিদে ”ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো” মিথোলজি

  1. কেবল শুরু করার জন্য এটা একটা
    কেবল শুরু করার জন্য এটা একটা পরীক্ষামূলক আগাছা টাইপ লেখা। আপনারা সাথে থাকলে স্পোর্টস নিয়ে লিখবো। ইনশাল্লাহ।

  2. ইস্টিশনে এই প্রথম স্পোর্টস
    ইস্টিশনে এই প্রথম স্পোর্টস নিয়ে লেখা। ভালো লাগলো। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: ভিন্ন স্বাদের আরো দারুন দারুন লেখা প্রত্যাশা করছি। চালিয়ে যান।

    1. জাতিসংঘ থেকে ফিফার সদস্য
      জাতিসংঘ থেকে ফিফার সদস্য সংখ্যা বেশী। জাতিসংঘের সদস্য ১৯২ অপরদিকে ফিফার সদস্য সংখ্যা ২০৯। ইউরোপিয়ানরা বলে ইট ফুটবল, ড্রিংক ফুটবল, স্লিপ ফুটবল।

      ”’অনেক লোকে ফুটবলকে জীবন-মৃত্যু মনে করে। আমাকে ব্যাপারটা যারপরনাই হতাশ করে। কারন আমি গ্যারান্টি দিয়ে বলছি ফুটবল জীবন-মৃত্যুর থেকে বেশী কিছু…”
      -বিল শেনকলি

      জীবনে ফুটবলে একটা লাথি মারেনি এমন বাঙ্গালি খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। ৯০ মিনিট মানে ১.৫ ঘণ্টার উত্তেজনা, এডভেনচার, থ্রিলারের নাম ফুটবল। দেখেন না বলেই ভালো লাগেনি। ইউরোপিয়ান ফুটবল ফলো করা শুরু করুন ভালো লাগবে। তাছাড়া আগামীতে দেশের অবস্থা অনেক খারাপ হতে পারে। তখন হতাশা লুকানোর জন্য ফুটবলকেই বেছে নিতে পারেন। সামনে নির্বাচনের সময় (যদি আদৌ হয়) অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপ ফুটবল। এছাড়া এই মাসে আছে দুই দুইটা চ্যাম্পিয়নস লীগ সেমিফাইনাল। সামনের মাসে হয়ে যেতে পারে রিয়াল-বার্সা স্বপ্নের দ্রুপদি ফাইনাল। আরো সামনে আছে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শেষ মুহূর্তের টান টান উত্তেজনার ম্যাচগুলো, ৬ মহাদেশের সেরা দলগুলো নিয়ে কনফেডারেশন কাপ, তারপর আছে নতুন ক্লাব ফুটবল মৌসুম আর নাটকীয় দলবদলের বাজার।

      ফুটবলের জগতে আপনাকে আমন্ত্রণ… :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

      বি.দ্র. ফুটবলে আগ্রহ হয়নি এমন কথা এই প্রথম শুনলাম। তাই বোধ হয় বেশী বেশী বলে ফেললাম।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 1 = 1