৭১-এর নারী নির্যাতন সম্পর্কিত মওদুদিও ফতোয়া

১৯৭১, যুদ্ধের দামামা বাজছে চারিদিকে।
একদিকে আকুত ভয় বাংলার দামাল সন্তানরা ঝাপিয়ে পরছে দেশ মাতা কে শকুনের হাত থেকে রক্ষা করতে। অন্যদিকে কিছু কুলাঙ্গার দেশকে শ্মশান করতে সাহায্য করছে পাকিদের।
গনিমতের মাল নাম দিয়ে দেশের মা বোনদের তুলে দিচ্ছে হায়নাদের হাতে।

গনিমত কি জিনিষ?
গনিমত হচ্ছে (ইসলাম ধর্ম মতে) যুদ্ধে লব্ধ মাল। অর্থাৎ মুসলমান গন যদি কোন যুদ্ধে জয় লাভ করে তবে উক্ত যুদ্ধে পরাজিত দলের হতে প্রাপ্ত মালামাল কে গনিমত হিসাবে গ্রহন করবে। (আমার জানা মতে এইটাই গনিমতের সংজ্ঞা। নিশ্চয়তা দিতে পারলাম না)

ইসলাম কখনোই গনিমতের মাল হিসাবে নারীদের অধিকারী হওয়া জায়েজ করে নাই। কিন্তু ইসলামের নাম দিয়ে ৭১-এ পাকি’রা আমাদের মা’দের উপর অত্যাচারের স্ট্রিম রোলার চালানো শুরু করে। আর তাতে সহযোগিতা করে জামায়াতে ইসলাম। মুসলিম লীগ সহ কিছু ইতোর শ্রেণীর দল।
আর সহযোগিতা করতে গঠন করে রাজাকার আল বদরের মত ঘৃণ্য দল।

ইসলাম মতে যে জিনিষ না জায়েজ সেই জিনিস্কে জায়েজ করানোর জন্য জামায়াতে ইসলাম ফতোয়া পর্যন্ত জারি করে।
এরা ৭১ এ ধর্ম ব্যবহার করে ফতোয়া দিয়েছিল যে “যুদ্ধ ক্ষেত্রে নারী নির্যাতন করা জায়েজ”
যুদ্ধবন্দী নারীদের সম্পর্কে তাদের বক্তব্যঃ

এমনকি বর্তমান জুগেও যুদ্ধবন্দী মহিলাদের সৈনিকদের মাঝে বণ্টন করে দেয়া উচিৎ এবং সৈনিকদের তাদের ভোগ করার অনুমুতি দেয়া উচিত
[আল জিহাদ ফিল ইস্লাম,পৃ. ১৭৮-১৭৫]

কিন্তু আমার জানা মতে ইসলামে যুদ্ধ ক্ষেত্রে নারী ও পুরুষের নির্ধারিত অধিকার রয়েছে, এবং তাদের জন্য বিধান রয়েছে।
ইসলামে মহিলাদের তার মনিব (পরবর্তীতে দাস প্রথা রহিত করা হয় ইসলামে) এবং স্বামী ব্যাতিত অন্য কারো ভোগের পাত্র হতে পারে না।
কিন্তু মওদুদি যুদ্ধ বন্দি নারীদের কে ধর্ষণের ব্যপারে মত দেয়।

এখানে উল্লেখ্য ৭১ এ যেই সকল মা’রা নির্যাতিত হন তাদের কেও যুদ্ধ বন্দিও ছিলেন না।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৭ thoughts on “৭১-এর নারী নির্যাতন সম্পর্কিত মওদুদিও ফতোয়া

  1. “” ইসলাম কখনোই গনিমতের মাল
    “” ইসলাম কখনোই গনিমতের মাল হিসাবে নারীদের অধিকারী হওয়া জায়েজ করে নাই”

    আগে জাইনা হের পরে কথা কইলে মনে হয় সুন্দর লাগতো।’

  2. ইসলাম কে এরা ব্যবহার করছে
    ইসলাম কে এরা ব্যবহার করছে নিজেদের ইচ্ছা মতো । তবে এক্ষেত্রে তাদের প্রেরনা হিসেবে ইসলাম এর ইতিহাস সাহায্য করেছে ।

  3. খালা, ফুফু, চাচী, মামী যেমন
    খালা, ফুফু, চাচী, মামী যেমন ‘মা’ না ! তেমনই জামাতে ইসলাম মানে ইনলাম না ! ইসলামের নামে একটি রাজনৈতিক দল! তারা ইসলামকে ব্যবহার করে পার্থিব স্বার্থ হাসিল করে..

  4. জামাতের ধর্মে গণিমতের মালের
    জামাতের ধর্মে গণিমতের মালের সংজ্ঞা কি আমি জানিনা। আমি জামাতের ধর্মকে কোনদিন ইসলাম বইলা মানিনা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 6 = 16