বাস্টার্ড

বাস্টার্ড ! কে সে , আহ কি সুন্দর একটা শব্দ বাস্টার্ড ! এই শব্দের মানে কি বেজন্মা ? আহ কি ভুল শব্দ মানুষ কি বেজন্মা হতে পারে ? মানুষ হতে হলে তাকে তো জন্ম নিতেই হয় ,সে কেন তবে বেজন্মা হবে ?

উবু হয়ে বসে ভাবতে থাকে সলিম । সলিম পাগলা ,সবাই তাকে পাগল বলে কেন? আহ আর একটা ভুল শব্দ , ওরা কি জানে মগজের ভিতর কি এক উথাল পাথাল শব্দ হয় ঠিক যেন গহিন সমুদ্রের ঢেউ ,কিন্তু হায় সলিম কখনো সমুদ্র দেখে নি , তবে সে কিভাবে জানলো গহিন সমুদ্রে কেমন ঢেউ ওঠে ?

হুড়মুড় করে ট্রেন চলে আসলে সলিমের চটকা ভাঙে ,আহারে ট্রেন ভর্তি গিজগিজে মানুষ প্লাটফর্মে নামার প্রতিযোগিতা শুরু করে দেয় ,মানুষের কেন এত তাড়াহুড়ো ? কোথায় পৌঁছতে চায় তারা ?আদৌ কি গন্তব্যে পৌঁছনো হয় মানুষের ?

সলিমের মগজে হিম হিম কুয়াশা নামতে থাকে ,আর ভর দুপুরে এক স্টেশন মানুষের মাঝে সলিমের নাকে লাগে কড়কড়ে গরম ভাতের গন্ধ ,আর সে তাকিয়ে থাকে অলস সাপের মত এলিয়ে পড়া ট্রেনটির দিকে , ও ট্রেন কখন যাবে গো ? সে কি পৌঁছবে গন্তব্যে ? আর সলিম আগাছার মত গজিয়ে ওঠা দাড়ি চুলকাতে চুলকাতে এগিয়ে যায় , কে যেন তার হাতে ধরিয়ে দেয় চকচকে দশ টাকার নোট , সে কি তবে গরম ভাতের লোভে হাত পেতেছিল সামনে ? সে মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে থাকে শীর্ণ আর তেল চিটচিটে তার নিজস্ব হাতের দিকে । আর তার নাক ফুলে উঠতে থাকে গরম ভাতের গন্ধে আর তখনি তার মনে পড়ে যে কেউ একজন তাকে টানা সুরে বলেছিল বা-স-টা-ড । সে কে গো ? সে কি উঠে পড়েছে ট্রেনে ? সলিম লাল চোখ মেলে চেয়ে থাকে আর তিব্র হুইসেলে ছেড়ে যায় ট্রেন । সলিমের ইচ্ছে হয় দৌড়ে ট্রেন ধরে ফেলতে , অথচ সলিম কিছুই করে না , একটা বাচ্চা ছেলে হাত নাড়তে থাকে ট্রেনের জানালা দিয়ে , ও কে গো?

সলিমের মগজে সরসর করে নামতে থাকে বেনোজল আর সলিম দেখে যে তার সামনের রেল লাইন ক্রমশ নদী হয়ে যায় আর সে দেখে যে প্লাটফর্ম ভর্তি মানুষেরা ঝপাঝপ ঝাঁপ দেয় সে জলে , সলিমের হাসি পেতে থাকে আর সে আবার উবু হয়ে ভাবতে বসে , মানুষেরা সব কই যায় গো ? আর সে টেনে টেনে বলতে থাকে বাস্টার্ড সব শালা বা-স-টা-ড !

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 5 = 4