রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম,অপরিপক্ব সংবিধান।

রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম বাতিলের আশঙ্কায় এতোদিন দেশের মুসলিম ভাইয়েরা কান্নাকাটি করেছেন।এবার বুঝি অবসান হলো।গত 28/3/16 তারিখে আদালত ইসলাম ধর্মকে বৈধ বলে ঘোষণা দেয়।অর্থাৎ,দেশের সকল মানুষদের সবকিছু করতে হবে ইসলামী বিধি অনুসারে।শান্তির ধর্ম বলে খ্যাত এই ধর্ম দেশের আরও অশান্তির মাত্রা বাড়িয়ে দেবে।ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশে জঙ্গি হামলা,হত্যা,খুন ও নারী ধর্ষিত হবে।মাদ্রাসা থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশের জন্য ক্ষতিকর প্রাণীতে পরিণত হবে।ইসলাম ধর্মকে প্রাধান্যর ফলে জামাত শিবিরের মত জঙ্গিরা দেশে আরও অশান্তি বিরাজ করবে।নারীরা আরও নিরাপত্তা হীনতায় থাকবে।ইসলামীভিত্তিক জঙ্গি সংগঠনের তান্ডবে দেশ জ্বলিয়ে যাবে।অথচ,দেশের মানুষ শান্তি চাই।অন্যদিকে আল্লার বান্দা হুজুর,মোল্লারা তা দিচ্ছে না। বাংলাদেশে আজ ইসলাম ধর্মকে আবারও বৈধ বলে ঘোষণা মানে সকল অপরাধমুলক কাজকে বৈধ লাইসেন্স দেয়া। আল্লার মুমিনরা ফের বায়তুল মোকারমের সামনে নিজেদের কোরআন শরীফ পোড়াবে।কিন্তু,একথা না বললে নয়-92 ভাগ মুসলমান থাকার ফলে দেশে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম থাকবে।সবকিছু বৈধ হবে।সেক্ষেত্র আমি ইসলাম ধর্মে কতগুলো অবৈধ বা হারাম বলে দিতে পারি।তা সংবিধানে আজ সংশোধন করা দরকার।নয়লে আল্লাহ ও কোরআন শরীফকে অমান্য করা হবে।যদি তা করতে না পারে ।তাহলে বুঝতে পারি দেশের 92 ভাগ মুসলমান তারা আল্লাকে বিশ্বাস করেনা এবং ইসলাম ধর্মকে মানেনা।আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলতে চাই।আপনার ধর্ম রক্ষার্থে ও দেশের হুজুরদের স্বার্থে আপনাকে মন্ত্রী থেকে পদত্যাগ করতে হবে।যেহেতু,বিরোধী দলীয় নেত্রী ও স্পীকার নারী তাদেরকেও ইসলামী বিধি অনুসারে পদত্যাগ করতে হবে।কারণ,ইসলাম ধর্মে নারী নেতৃত্ব হারাম।তা কোরআন শরীফে পরিষ্কারভাবে বলা আছে।আপনাদের বেহেশতের পথ সুগম করতে পদত্যাগ করা উচিত।সংখ্যাগরিষ্ট মুসলমানের ফলে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হলো।এর বাইরে অন্য কোন জিনিসই বৈধ নয়।তাই হিন্দু রবীন্দ্রনাথ রচিত জাতীয় সংগীতও অবৈধ।ফলে পাকিদের কাছ থেকে জাতীয় সংগীত আমদানি করুন।অথবা,হুজুরদের ইসলামী অনুসারে জাতীয় সংগীত রচনা করতে বলুন।কোরআন যেহেতু আরবি ভাষায় রচিত ,অপরদিকে বাংলা হলো হিন্দুদের ভাষা।তাই বাংলাকে বাদ দিয়ে আরবী ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দিন।এমনকি উর্দু ভাষাকেও স্বীকৃতি দিয়ে ইসলামী শক্তিকে আরও মজবুত করতে পারেন।দেশের সকল মুসলিমরা ক্রিকেট খেলাকে পছন্দ করেন।অথচ,ইসলাম ধর্মে সকল ধরণের ক্রিরা কৌতুক হারাম।তাই সাকিবদের পিছনে টাকা খরচ করে লাভ কি?দেশে সকল ধরণের খেলা নিষিদ্ধ করে দিন।আপনাদের মতো নারী নেতৃত্ব থাকলে দেশের ইসলামী আইন নিম্নগতিতে থাকবে।আল্লাকে তওবা কর।কোরআনের বিধি মেনে নিজেদের পদত্যাগ করুন।নচেৎ, এই দেশ হারামের দেশ। ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র শুধু নামিক রেখে লাভ নেই,অন্যদিকে হুজুর মোল্লাদের ভয়ে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বৈধ থেকেই যায়

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 7 = 1