সত্য বল, সুপথে চল…ওরে আমার মন

মহাকালের স্রোতে সত্য বার বার ব্যথিত হয়েছে ইতিহাস ই এর
প্রমান বহন করে। যখন যে সমাজে যাঁরা প্রকৃত সত্যের উদঘাটন করতে পেরেছিল
তাঁরাই সমাজের প্রভাবশালীর রোসানলে তাদেরকে লড়াই করতে হয়েছে
জীবন বাজি রেখে। কিন্তু প্রকৃতিগত সত্য উদঘাটন এবং এর যথাযথ বিন্যাস
কোন কালেই থেমে থাকিনি। যেখানে সত্য কে স্বতস্ফুর্তভাবে উপাস্থাপন
করাই প্রকৃতির ধর্ম, সেখানে প্রকৃতির বিপরীতগামী আমাদের মিথ্যা প্রয়াস
কিংবা আমাদের আস্তিকতা – নাস্তিকতা প্রকৃত আমলে নিবে না।
এটা আমাদের বুঝতে কষ্ট হওয়ার কথা না।
তথাগত আস্তিক বা নাস্তিক রা সত্যের গ্রহনযোগ্যতা বুঝতে পুরোপুরিভাবে
ব্যর্থ। আর এই জন্যই Clash of Civilians এত প্রকটতর দেখা দিচ্ছে।
আস্তিকতা বলতে আমি বুঝি প্রকৃতির একটা নিজস্ব ‘ প্রকৃতি’ বা পরম
‘ধর্ম’ সর্বত্রে বিদ্যমান যা আমরা কোনদিনও অস্বীকার করতে পারিনি
কিংবা করলেও পরবর্তীকালে সেটা মেনে নিতে বাধ্য হয়েছে…
প্রকৃতিকে ” না” বললে প্রকৃতির কাছে ‘সে’ বা ‘তারা’ পরম নাস্তিক।
মহাসত্য বা প্রকৃতি তার নিজ গতিতে চলে, আমরা তার ধারক – বাহক মাত্র।
মানুষ হিসেবে মহাসত্যের অস্বীকার্য দিতে কার্পূন্য করলে – ফলাফল
প্রকৃতির হাতেই সুনিশ্চিত।
কোন বিশেষ গোষ্ঠিকে আঘাত করার জন্য এই লেখা না।
মানুষ সত্য,সুন্দর এবং সংস্কার এর পূজারি।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 59 = 60