এনামুল – ২য় পর্ব

এনামুল রাতের অন্ধকারে ছুটতে ছুটতে ইমাম সাহেবের বাড়ি পৌঁছে দরজায় বেশ জোরে টোকা মারল । ইমাম সাহেব ছোট বিবিকে নিয়ে শুয়েছিলেন, ভেতর থেকে বললেন, কেডা?
এনামুল নিজের নাম বলল।
ইমাম সাহেব প্রায় দশ মিনিট পর দরজা খুলে বাইরে এসে বললেন, কী হইসে? এত রাইতে কেন আইছো? এনামুল বলল, পূজা বন্ধ করতে গিয়া পাশের বাড়ীর এক হিন্দু মাইয়া মানুষকে খুন কইরা ফেলছি, এখন কি হবে হুজুর? ইমাম সাহেব প্রথমে একটু ভরকে গেলেন, তারপর হেসে বললেন, এই কতা?
কোনো ভয় নাই।
তুমি বাড়ী যাও, আমি রাইতে তুমার জন্য দোয়া করুম, কোনো বিপদ হইবো না, আর কাফের মাইরলে দোষ নাই, আল্লাহ রক্ষা করবো, অহন যাও, কাইল একবার মসজিদে আইসা দেখা করবা।
ইমাম সাহেব উঠে অভদ্রের মতো দরজা বন্ধ করে দিলেন।
ইমাম সাহেবের বাড়ী ছেড়ে এনামুল ধীরে ধীরে পথ হাঁটতে লাগলো।
ইমাম সাহেবকে কেমন যেন ধান্দাবাজ মনে হতে লাগলো তার।
অথচ এই লোকটাকেই সে এতদিন এক পবিত্র
আদর্শ মেনে এসেছে।
একা একা নির্জন পথ চলতে চলতে আকাশের দিকে তাকাল সে। অজস্র তারা যেন তার দিকে তাকিয়ে আছে। এই নির্জনতায় তার অন্তর তাকে বলে দিল , খুন করে তুমি গুনাহ করেছ এনামুল, ইমামের কথা শোনা তোমার ঠিক হয় নাই।
অপরাধবোধে তার শরীর ভারী হয়ে এল।
ধীর পায়ে যখন বাড়ী ঢুকলো, দেখতে পেল বেশ কয়জন পুলিশ দাঁড়িয়ে।
এনামুল পালাতে চেষ্টা করলো না,
নির্বিকার চিত্তে ওদের দিকে এগিয়ে গেল।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

73 + = 81