ব্লগার হত্যাকারীরা ইসলামের কেউ নয়। এরা আজাজিল-বংশের স্বঘোষিত-মোড়ল!

ব্লগার হত্যাকারীরা ইসলামের কেউ নয়। এরা আজাজিল-বংশের স্বঘোষিত-মোড়ল!
আচার্যবাঙ্গালী

দেশে একের-পর-এক ব্লগারদের বড় নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হচ্ছে। আর তাও হত্যা করা হচ্ছে পবিত্র ইসলামধর্মের দোহাই দিয়ে। এরা একশ্রেণীর নরপশু। তাই, নিজেদের পাপকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য পবিত্র ইসলামের নাম ব্যবহার করছে। এরা ইসলামের প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য শত্রু।
ব্লগার-হত্যাকারীদের আসলে কোনো ধর্ম নাই, চরিত্র নাই, আর মনুষ্যত্বও নাই। এরা সুনির্দিষ্টভাবে আজাজিল-বংশের লোক হওয়া সত্ত্বেও জোরপূর্বক আমাদের ইসলামধর্মে ঢুকে ‘গাঁয়ে মানে না আপনি মোড়ল’ সেজেছে! পবিত্র কুরআন-হাদিসের কোথাও এদের অস্তিত্ব কিংবা স্বীকৃতি নাই। এরা নিজেদের স্বার্থরক্ষার অভিযানে আজাজিল-বংশের স্বঘোষিত-মোড়ল সেজে আমাদের দেশে নানারকম ফিতনাফাসাদের সৃষ্টি করছে।

মানুষহত্যা করা পাপ। আর কেউ অপরাধী হলে তার শাস্তির বিধান করবে রাষ্ট্র ও রাষ্ট্রের নির্বাচিত সরকার। কিন্তু এরা কারা? এরা সরকার মানে না, রাষ্ট্র মানে না, ধর্ম মানে না। কিন্তু পবিত্র ধর্মের নাম ব্যবহার করে এরা ব্লগার-হত্যা করছে। এদের স্পর্ধার সীমারেখা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে।

পবিত্র ইসলামে এইজাতীয় কোনো মোড়লের স্থান নাই। আর হত্যাকারী-খুনীচক্র কখনও ইসলামে ঠাঁই পাবে না। আর সমাজে-রাষ্ট্রে মানুষহত্যার মতো এই ধরনের ফিতনাফাসাদ যারা সৃষ্টি করবে, তারা নিশ্চিতভাবে শয়তান। আর এই শয়তানশ্রেণীটি নিজেদের স্বার্থের রাজনীতি বজায় রাখার জন্য মানুষহত্যার মতো ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।

আমরা আল্লাহ-রাসুলে বিশ্বাসী মানুষ। আমরা এদেশের মানুষ প্রায় সবাই কম-বেশি ধার্মিক। আমাদের প্রত্যেকের একটি নিজস্ব ধর্ম, ধর্মবোধ ও ধর্মবিশ্বাস আছে। কেউ যদি আমাদের এই ধর্মবিশ্বাসে আঘাত হানে, তাহলে তাকে যুক্তি দিয়ে মোকাবেলা করতে হবে। তার যুক্তি খণ্ডন করে আমাদের সত্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আর কেউ যদি সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যমূলকভাবে মহান আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের বিরুদ্ধে কিছু লিখে থাকে। তবে তার বিরুদ্ধে মামলা করা যেতে পারে। তার মনগড়া লেখনীর বিরুদ্ধে যুক্তির আঘাত হানা যেতে পারে। কিন্তু তাই বলে, একটা লোকের অপরাধ প্রমাণিত হলো না, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ কতটুকু সত্য তা জানা হলো না, অথচ, তাকে প্রকাশ্য দিবালোকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে-কুপিয়ে হত্যা করা হলো। তা কখনও মেনে নেওয়া যায় না। ইসলাম কখনও এই ধরনের হত্যাকাণ্ড করতে কাউকে পারমিশন দেয়নি। ইসলামে এসব জায়েজ নাই। তাহলে ইসলামবহির্ভূত এইসব অপকর্ম তথা মানুষহত্যার মতো ঘৃণ্য চক্রান্তে কারা জড়িত?

এরা শয়তান। এরা ইসলামের কেউ নয়। আমাদের এই সমাজ-রাষ্ট্র থেকে এবার এদের চিরতরে নির্মূল করতে হবে।
ঢাকা, ২২/০৪/২০১৬

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৪ thoughts on “ব্লগার হত্যাকারীরা ইসলামের কেউ নয়। এরা আজাজিল-বংশের স্বঘোষিত-মোড়ল!

  1. ভালো লিখেছেন। সহমত।
    ভালো লিখেছেন। সহমত।
    আমি নিজে নাস্তিক হলেও একথা বলতে দ্বীধা করিনা যে আপনার মত এরকম সহনশীল মনোভাব যদি বেশীর ভাগ মুসলিম এর থাকত, তাহলে আমাদের দেশটা আরও সুন্দর বসবাসযোগ্য হয়ে উঠত।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

56 − = 51