মুহাম্মদ নিজেই প্রমান করলেন তিনি সত্য নবী নন , ইসলাম কোন সত্য ধর্ম নয়

বিস্ময়কর হলেও সত্য ,কোরান ও মুহাম্মদ উভয়েই প্রমান করে যে , মুহাম্মদ কোন সত্য নবী নন , আর ইসলাম কোন সত্য ধর্ম নয়। কিন্তু সেটা কিভাবে ? এবার দেখা যাক —

কোরান বলছে —

সূরা আল হাক্কা- ৬৯: ৪৪-৪৬: সে(মুহাম্মদ) যদি আমার নামে কোন কথা রচনা করত, তবে আমি তার দক্ষিণ হস্ত ধরে ফেলতাম, অতঃপর কেটে দিতাম তার গ্রীবা।

অর্থাৎ মুহাম্মদ যদি নিজের কথাকে আল্লাহর কথা বলে চালায়, তাহলে আল্লাহই তার গ্রীবা কেটে তাকে হত্যা করত। এবার দেখা যাক , মুহাম্মদের মৃত্যুটা কিভাবে হয়েছিল —-

বুখারি , ভলিউম- ৫, বই – ৫৯, হাদিস- ৭১৪
আয়শা থেকে বর্ণিত – নবী (সা) যখন খুব পীড়িত ছিলেন ও যাতে তিনি মারা যান , তখন তিনি বলতেন , ” ও আয়শা, আমি এখনও খায়বারে যে বিষ মিশান মাংশ খেয়েছিলাম তা থেকে যন্ত্রনা অনুভব করছি এবং বিষ থেকে এমন যন্ত্রনা বোধ হচ্ছে যে আমার মনে হচ্ছে আমার গ্রীবা কেটে ফেলা হচ্ছে”

Bukhari :: Volume 5 :: Volume 59 :: Hadith 714
Narrated `Aisha: The Prophet (sallallahu ‘alaihi wa sallam) in his ailment in which he died, used to say, “O `Aisha! I still feel the pain caused by the food I ate at Khaibar, and at this time, I feel as if my aorta is being cut from that poison.”

একই ধরনের বর্ননা পাওয়া যাচ্ছে প্রাথমিক যুগের ইসলামী স্কলারদের বর্ণনা থেকেও –

From Tabari Volume 8, page 124: The messenger of God said during the illness from which he died – the mother of Bishr had come in to visit him – “Umm Bishr, at this very moment I feel my aorta being severed [/b]because of the food I ate with your son at Khaybar.”

From Ibn Sa’d pages 251, 252: During his illness he used to say, “I did not cease to find the effect of the (poisoned) morsel, I took at Khaibar and I suffered several times (from its effect) but now I[b] feel the hour has come of the cutting of my jugular vein.”

তার মানে দেখা যাচ্ছে , মুহাম্মদকে আল্লাহ তার গ্রীবা থেকে ধড় কেটে না ফেললেও , বিষ ক্রিয়ায় তার এমনই যন্ত্রনা হচ্ছে যে তার মনে হচ্ছে যে তার গ্রীবা থেকে ধড় কেটে ফেলা হচ্ছে। আর এই বক্তব্যের সাথে কোরানের বানীর কি অদ্ভুত মিল !
তাহলে কি মুহাম্মদ অবশেষে জীবনের শেষ পাদে এসে বুঝতে পেরেছিলেন যে , তিনি সারা জীবন কি মারাত্মক ভুল করে , মানুষকে বিপথে চালিত করে গেছেন ?

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

48 − = 42