ভুমিকম্পের জন্য নাস্তিকরা দায়ী।

নাস্তিকদের অকাম ও কুকামের কারনে পৃথিবীজুড়ে ভুমিকম্প হওয়া শুরু হয়ে গেছে। এইটা আল্লাহর গজব। এই সম্পর্কে গতকালকে বয়ান দিচ্ছিলাম:
” মুরিদ ভাইরা আমার, যখন ভুমিকম্প হওয়া শুরু হবে, তখন আল্লাহকে স্বরন করতে হবে, আয়তালকুরসি পড়তে হবে। আল্লাহর কাছে গুনাহ মাফ চাইতে হবে”

যথারিতি মুরিদের মধ্যে একটি নোয়াখাইল্লা নাস্তিক ডুকে পড়েছিল। সে হাত তুলে প্রশ্ন করল:
“হুজুর, ভুমিকম্প কার নির্দেশে হয়?”

আমি উত্তর দিলাম:
“আল্লাহর নির্দেশে।”

নাস্তিক পাল্টা প্রশ্ন করল:
“আল্লাহর নির্দেশে যদি ভুমিকম্প হয়, তাহলে আল্লাহকে ডেকে লাভ কি?”

আমি উত্তর দিলাম:
“আস্তাগফিরুল্লা, নাউযুবিল্লাহ। এই সব কি বলছেন? ভুমিকম্প হল আল্লাহর পরীক্ষা। আল্লাহর রহমত।”
_____

তো, আজকে সকলবেলা হাঁটতে বের হয়েছিলাম। রাস্তায় গতকালকের সেই নোয়াখাইল্লা নাস্তিকের সাথে দেখা। ওকে কিছু কোরান এবং হাদিসের কথা শুনালাম। নাস্তিকের সাথে কথা বলার সময় হটাৎ আমার মনে পড়ে গেল, আমি ভুলে করে আমার বাসার দরজা খোলা রেখে চলে এসেছি। তাই তাড়াতাড়ি নাস্তিককে বল্লাম:
“ভাই, আমি বাসার দরজা খোলা রেখে এসেছি, এখন যাই, পরে কথা হবে।”

নাস্তিক উত্তর দিল:
“হুজুর, চিন্তা করবেন না, আমি এখনই সিস্টেম করতাছি”।
নাস্তিক তার মোবাইল ফোনে, কাকে যেন ফোন করে, ফিসফিস করে কথা বলল।

আমি জিজ্ঞাস করলাম:
“ভাই কাকে ফোন করলেন? কি অবস্থা?”

নাস্তিক উত্তর দিল:
“আমি আমার পরিচিত এক চোরকে ফোন করে, আপনার বাসার ঠিকানা দিলাম। নিশ্চিন্তে থাকেন।”

আমি রেগে গিয়ে বল্লাম:
“হারামজাদা, তুই করলি কি? তুই আমার বাসায় চুরি করাতে চাস?”

নাস্তিক প্রশ্ন করল:
“হুজুর, বাসায় চুরি কে করে?”

আমি উত্তর দিলাম:
“চোর করে।”

নাস্তিক উত্তর দিল:
“সেই জন্যই তো চোরকে ফোন করলাম। ভুমিকম্পের জন্য আল্লাহ দায়ি হলে, আল্লাহকে ডাকা লাগে। ঠিক তেমনি আপনার বাসায় নিরাপত্তার জন্য চোরের কাছে ফোন করলাম।”

আমি নাস্তিকের কথা উত্তর না দিয়ে “আস্তাগফিরুল্লা নাউযুবিল্লাহ” বলে চিল্লাতে চিল্লাতে নিজের লুংগি ফেলে রেখে বাসার দিকে ভৌঁ দৌড় দিলাম।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

23 − = 19