ভগবান একজন ধর্ষক

হিন্দু মতে, ভগবানের একটি সরল সংজ্ঞা হচ্ছে : ‘জন্মাদাস্য য্তঃ’ ‘যাঁর থেকে সমস্ত প্রকাশিত হয়’ (ভা: ১/১/১)। হিন্দু পণ্ডিতদের মতে, ‘ভগবান’ শব্দটি সংস্কৃত, এবং এর অর্থ বিশ্লেষণ করে তারা বের করেছেন, ‘(১) সমগ্র ঐশ্বর্য (ধনসম্পদ), (২) সমগ্র বীর্য (শক্তিমত্তা), (৩) সমগ্র য্শ, (৪) সমগ্র শ্রী (সৌন্দর্য, রূপবত্তা), (৫) সমগ্র জ্ঞান ও (৬) সমগ্র বৈরাগ্য যাঁর মধ্যে পূর্ণ-রূপে বর্তমান, সেই পরম পুরুষ হচ্ছেন ভগবান’। আর এই ভগবানেরই আরধনা করেন হিন্দুগণ।

হিন্দুগণের মতে, ‘ভগবান’ হচ্ছে ৬টি ঐশ্বর্য সমন্বিত। অর্থাৎ, ‘ভগ’ শব্দের অর্থ ছয়টি ঐশ্বর্য (ষড়ৈশ্বর্য ) এবং ‘বান’ শব্দের অর্থ যুক্ত বা সমন্বিত। কিন্তু অভিধান কি বলে? ‘ভগ’ শব্দের অর্থ কি? অভিধান থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ি জানা যায়, ‘ভগ’ শব্দের অর্থ হচ্ছে যোনি, আর ‘বান’ শব্দের অর্থ যুক্ত বা সমন্বিত। যেমন ‘জ্ঞানবান’ অর্থ জ্ঞান-সমন্বিত, ‘ধনবান’ শব্দের অর্থ ধন-সমন্বিত, তেমনি ‘ভগবান’ শব্দের অর্থ হচ্ছে, যোনি-সমন্বিত।

তাহলে কি হিন্দুগণ যোনিযুক্ত কাউকে ভগবান মানেন? তাকেই কি পুজো করেন? তার আরধনাই করছেন? তাহলে হিন্দু ধর্মে এমন যোনিযুক্ত কে আছেন? হ্যাঁ, আছেন তো। ইন্দ্র! তার শরীরই তো যোনিযুক্ত। তিনিই তো ভগবান অর্থাৎ ভগ-সমন্বিত। তাহলে একচু জেনে নিই কিভাবে ইন্দ্র ভগবান তথা যোনি-সমন্বিত তথা যোনিযুক্ত হলেন?

মহর্ষি গৌতমের সুন্দরী স্ত্রী ছিলেন অহল্যা দেবী। তার রূপে মুগ্ধ হয়ে দেবতাদের রাজা ইন্দ্র একদিন অহল্যাকে শয্যাসঙ্গিনী হতে প্রস্তাব করে। অহল্যা তা প্রত্যাখ্যান করে। কিন্তু ইন্দ্রর কু-মানসিকতা দূর হল না। তাই একদিন ফন্দী করে রাত্রির তৃতীয় প্রহরে ইন্দ্র মোরগের ডাকে ডাকলেন। আর এ ডাক শুনে মুনি গৌতম অহল্যাকে শয্যায় একা রেখে স্নানে চলে যায়। এরপর ইন্দ্র মুনি গৌতমের ছদ্মবেশ ধারণ করে আসে এবং অহল্যাকে ভোগ করে।

অপরদিকে মুনি গৌতম ঘাটে যাওয়ার পর বুঝতে পারেন, তার সাথে ছলনা করা হয়েছে! তিনি তাড়াতাড়ি ফিরে আসেন। আশ্রমে এসে দেখেন, তারই মতন আরেকজন! তা দেখে তিনি অবাক হন, অহল্যাও ব্যাপারটা বুঝতে পারেন। এরপর ইন্দ্র স্বরূপ ধারণ করতেই, মুনি গৌতম ইন্দ্রকে অভিশাপ দিলেন, ‘হে অধার্মিক ইন্দ্র। তুমি দেবতাদের রাজা হবার যোগ্য নও। দেবতা হয়েও তুমি এমন ঘৃণ্য কাজ করেছো। তোমাকে শাপ দিচ্ছি, তোমার শরীরে সহস্র ‘ভগ’ (যোনি) উৎপন্ন হোক।’

এরপর মুনির অভিশাপে ইন্দ্রর শরীরে অসংখ্য ‘ভগ’ উৎপন্ন হয়। আর এই ইন্দ্রই হচ্ছে হিন্দু ধর্মে একমাত্র যোনি (ভগ) যুক্ত (সমন্বিত)।তাহলে কি দাঁড়াল? এই ইন্দ্রই হচ্ছে হিন্দুদের ‘ভগবান’? তারমানে একজন ধর্ষককে পুজা অর্চনা করেন হিন্দুরা?

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “ভগবান একজন ধর্ষক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

49 − 44 =