অনিয়মের মাঝে নিয়ম ভঙ্গের খেলা

মাঝে মাঝেই ছোট মুখে বড় কথা বলে ফেলি বটে তবে অসত্য কিছু বলে ফেলা অন্তত আমার নিয়মের মাঝে পড়েনা | লক্ষ্য করে দেখবেন হয়তো, বিগত কিছুদিন যাবত সুইডেন আওয়ামীলীগের ক্ষমতা অধিগ্রহণের হরিলুটের মাঝে সক্রিয় হয়েছে ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগ কমিটির ক্ষমতাবান নেতা কর্মীরাও |
খুবই সহজ ভাষায় প্রশ্ন করতে গেলে উত্তর পাওয়া যে সহজ, বিষয়টি কিন্তু মোটেই তা নয় | গত ৭ই মে ফ্রান্সের আওয়ামীলীগ সম্মেলন উপলক্ষে ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের নেতারা এখন মিলিত হয়েছেন ফ্রান্সে প্যারিস নগরীতে আর সেখানেই চলছে অনিয়মের মাঝে নিয়ম ভঙ্গের খেলা |
ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব গনি সাহেব কর্তৃক মনোনীত ও স্বীকৃত সুইডেন এডহক কমিটির নিয়ম ভঙ্গ করে যারাই নিজেদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন সেক্ষেত্রে সত্যিকার অর্থে দলের নিয়ম ভঙ্গকারীদের যদি দলীয় নিয়মে শাস্তির যে বিধান সেটা নিশ্চিত না করা যায় তবে ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগ কমিটির বৈধতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পরে | গত ১৩ মার্চ সুইডেন আওয়ামী লীগের সম্মেলন তোপের মুখে ইউরোপীয় নেতৃবৃন্দ, পুলিশী পাহাড়ায় সভাস্থল ত্যাগর মাধ্যমে সুইডেন আওয়ামীলীগের সম্মেলন পণ্ড হয় | এরপর সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনি এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন :- গত ২ এপ্রিল , সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার জন্য এডহক কমিটি অনুমোদন করা হয়। এই নিয়ে নেতা কর্মীদের বিভ্রান্ত হওয়ার সুযোগ নেই। এছাড়া কোন কমিটির অস্তিত্ব নেই, এই পরিপ্রেক্ষিতে গত পহেলা মে ২০১৬ এডহক কমিটি একটি আওয়ামীলীগ কমিটির নাম ঘোষণা করে | লক্ষ্য করবেন সব কিছুই চলছে অনিয়মের মাঝে নিয়ম ভঙ্গের মাধ্যমেই, কারণ স্পষ্টত ভাবেই বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের কাছে দাখিল-কৃত গঠনতন্ত্রে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রবাসে কোন শাখা সংগঠন থাকার কথা নয়, তারপরও যদি আওয়ামীলীগের সম্পাদক এমএ গনি গত ২ এপ্রিল একটি এডহক কমিটির অনুমোদন দিয়েই থাকেন সেটা নিশ্চয়ই আওয়ামীলীগের গঠনতন্ত্রের কঠিন নিয়মাবলী সততা ও নিষ্ঠার সাথেই পালন করবে এটাইতো জনগণের আশা প্রত্যাশা | ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনি সাহেবের অনুমোদিত একমাত্র স্বীকৃত এডহক কমিটির নিয়মের প্রতি অশ্রদ্ধা জানিয়ে বা এই ঘোষণাকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ দিয়ে এডহক কমিটিতে অন্তর্ভুক কেউ নিজেদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা দিয়ে বসেন তবে তা নিঃসন্দেহে দলীয় নিয়ম ভঙ্গের কারণে একটি শাস্তি যোগ্য অপরাধ | এখন প্রশ্ন দাড়ায় আওয়ামীলীগ নামের এত বড় সংগঠনের মাঝে আর কতকাল এই অনিয়মের মাঝে নিয়ম ভঙ্গের খেলা চলবে | দলের ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করা থেকে যে কাউকে বিরত রাখতে দলীয় নিয়মে এদেরকে শাস্তি দিতে না পারলে অনিয়মের মাঝে নিয়ম ভঙ্গের খেলা চারদিন চলতেই থাকবে, প্রবাসে বাংলাদেশের সুনামকে সমুন্নত রাখতে ইউরোপীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে এটি দেখার বিষয় |
==কিন্তু==

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 45 = 51