অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ইসলামী সম্মেলনে প্রদত্ত টেলিগ্রাম

?resize=669%2C456&ssl=1″ width=”400″ />

পাকিস্তান ৭১-এর যুদ্ধকে জিহাদ হিসেবে প্রচার করেছিল। যুদ্ধকালীন তারা জিহাদের নামে অর্থ সরবরাহ করে। ইসলামের নামে তারা জনগণ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে। এছাড়া রাজাকার শর্ষিণার পীর হিন্দু নারীদের গনিমতের মাল উল্লেখ করে তাদের ধষর্ণ করার ফতোয়া দেয়। তাই পাকিস্তানী ও তাদের দালালরা বাংলাদেশের হত্যাযজ্ঞকে যে ইসলামের নামে চালিয়েছিল তা অস্বীকার করার উপায় নেই।

১৯৭১ সালের ২৫ জুন, মুজিব নগর সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম জেদ্দায় অনুষ্ঠিত ইসলামী সম্মেলনের সাধারণ সম্পাদক টেংকু আব্দুর রহমানের নিকট একটি টেলিগ্রাম পাঠিয়ে অতিসত্বর বাংলাদেশের গণহত্যা বন্ধের পদক্ষেপ নিতে আহবান জানান।

টেলিগ্রামটি সৌদি বাদশা শেখ সাব্বান এবং শেখ বিন বাজসহ সকল সেক্রেটারিয়েট সদস্যদের কাছে প্রেরণ করা হয়।

এছাড়াও সৈয়দ ইসলাম বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে সমর্থন করতে অনুরোধ করেন এবং খুন, নির্যাতন, মসজিদ ধ্বংস, ইমামদের হত্যা, এবং পবিত্র কোরান পোড়ানোর কথা উল্লেখ করেন।

টেলিগ্রামে পাকিস্তান আর্মিদের ধ্বংসযজ্ঞের বিবরণ দিলেন-পশ্চিম পাকিস্তান মানব ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম অপরাধে লিপ্ত, যদিও তারা তাদের অপরাধ পবিত্র ইসলামের নামে আড়াল করতে চাচ্ছে।

GENOCIDE IN THE NAME OF ISLAM

Press Report of the Telegram Sent to Various Members of the Islamic Conference at Jeddah by Acting President of Bangladesh onJune 24,1971

Syed Nazrul Islam, acting President of Bangladesh, today sent a telegram to Tengku Abdur Rahman, General Secretary of the Islamic Conference at Jeddah, to use its influence and authority to put an immediate end to the genocide in Bangladesh.
Copies of the telegram have been sent to all members of the Secretariat, including King Feisal of Saudi Arabia, Sheikh Sabban and Sheikh Bin Baz.

Mr. Islam also requested them to support the independence demand of Bangladesh and referred to the killing, torture, desecration of mosques, murders of Imams and the burning of the Holy Quran.

UNI adds: The telegram gave a description of the devastation caused by the Pakistani Army and said, “The warlords of West Pakistan are bent upon perpetrating the worst crime in human history while trying to cover their guilt under the holy name of Islam”.

( THE STATESMAN, New Delhi-June 25, 1971 )

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ দলিলপত্র: তৃতীয় পত্র

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ইসলামী সম্মেলনে প্রদত্ত টেলিগ্রাম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

11 − = 7