ক্ষমা করবেন স্যার : আপনি নষ্ট সমাজের বাসিন্দা !!

একটা বিষয় নিয়ে প্রায় দু’-তিন দিন ধরে, দিন-রাত এক করে ভাবছি, বিবেকের তাড়না থেকে কিছু লিখবো ! কিন্তু দুঃখের বিষয় হচ্ছে এই যে,
(১) বিষয়টা নিয়ে চিন্তা করতে বসলে আমার মস্তিষ্কের নার্ভগুলো অচল হয়ে পড়ে ;
(২) বিষয়টা নিয়ে দৈনিক কড়চার খাতায় লিখতে বসলে আমার কলম চলে না ;
(৩) বিষয়টা নিয়ে মোবাইলে লিখতে বসলে আমার দুই হাতের দু’টা বৃদ্ধাঙ্গুল অসাড় হয়ে পড়ে ;
(৪) এই বিষয়ের কোনো লিখা পড়তে গেলেও আর নিজেকে অনুভূতির সীমানায় বেঁধে রাখতে পারছিনা ;
(৫) যারা বিষয়টাতে দুঃখ প্রকাশ করছে, তাদের লেখায় একটা মন্তব্য করে দায়সারা সংহতিও প্রকাশ করতে পারছিনা ;
(৬) আবার যারা বিষয়টাতে ‘নিশক্তির কুযুক্তি’ টাইপ খোঁড়া যুক্তি টেনে সম্মতি জ্ঞাপন করে নিজেকে ধার্মিক প্রমানে ব্যস্ত, তাদের লেখায় একটা মন্তব্য করে প্রতিবাদও করতে পারছিনা!
(৭) বিষয়টাতে না পারছি ভাবতে, না পারছি লিখতে, না পারছি দুঃখিত হতে, না পারছি প্রতিবাদ করতে, না পারছি কিছু বলতে ; এককথায় আমি বিষয়টাতে একেবারেই অসাড় হয়ে পড়ছি !
(৮) বিষয়টাতে কোনটা সত্যি, কোনটা মিথ্যা জানতেও লজ্জা হচ্ছে ! তিনি অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছেন অথবা দেননি তাও জানতে আমার মস্তিষ্ক সাড়া দিচ্ছেনা !
‪#‎ফুটনোট‬ : মনে হচ্ছে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আর এই অগ্রগতির প্রধান শত্রু হয়ে পড়ছি আমি ! অথচ আমার এমন অনুভূতি টাহর করার কথা ছিলোনা ! কারন জন্মগতভাবেই আমি নিজেকে একজন দেশপ্রেমিক ভাবি ! আমি এই নগ্ন সমাজ-পরিবেশ-পরিবার-চারপাশের মানুষগুলোর সাথে নিত্যই যে ‘৭১ এর যুদ্ধ করে যাচ্ছি ! শুধু দেশটাকে হৃদয়ে ধারন করতে পেরেছি বলেই এটা সম্ভব হয়েছে বলে মনে হয় ! কিন্তু কথা ছিলো কী, এমন দেশকে আমি, আমার দেশ বলে পরিচয় দেবো ? লজ্জায়-ঘৃণায়-শোকে-সন্তাপে আমার মাথা হেঁট হয়ে আসছে !
‪#‎পুনশ্চ‬ : যে সমাজে শিক্ষককে জনসমক্ষে কান ধরে উঠ্- বস করতে হয়, সেই সমাজের বাসিন্দা আমি নই ! কারন আমিও যে একজন শিক্ষকের সন্তান, আমিও যে আমার পিতার আদর্শের ফেরিওয়ালা, আমি আজো সেই আদর্শের ছায়াতলে বেকারের বেশে বড় হচ্ছি, প্রতিপালিত হচ্ছি ! কিভাবে অস্বীকার করি, এই ২৬ বছরের অস্থিত্ব ?
‪#‎জ্ঞাতব্য‬ : দুঃখিত ! বিষয়টা যে কি? এর চেয়ে খোলামেলা আমার দ্বারা বলা সম্ভব না !

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “ক্ষমা করবেন স্যার : আপনি নষ্ট সমাজের বাসিন্দা !!

  1. শিক্ষকের ভাগ্য ভাল যে এখনো
    শিক্ষকের ভাগ্য ভাল যে এখনো এদেশের মুমিনরা সমপূর্ণ সহি মুমিন হতে পারেনি তাই কান ধরে উঠবস করেই বেঁচে গেছেন । এদেশের মুমিনরা যেদিন সমপূর্ণ সহি মুমিন হবে সেদিন শাস্তি কান ধরে উঠবস করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না , আগুনে পুড়িয়ে বা পাথড় মেরে হত্যা করা হবে সহি ইসলামী নিয়ম অনুযায়ী ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 81 = 85