আমি হলাম অন্ধ

আমি ভোর দেখি না, আর দেখি না
বিকেল- সন্ধ্যা- পূর্ণিমা।
শুনি ধাতব বস্তুর ঝন-ঝনানি
আর বড় ভাইদের আনন্দ-উল্লাস।

আমি কোন ন্যায়-অন্যায় বুঝি না
কোন পাপ বুঝি না, পাপ খুঁজি না।
শুধু খুঁজি অন্ধকারে আলোর উৎস
আর থাকি মডারেট নিরপেক্ষ।

আমি স্বপ্ন দেখি না,
মনে প্রিয়ার ঠোঁট আঁকি না।
শুনি ধর্ষিত প্রিয়ার আর্তনাদ-
সবশেষে, চাপা গোঙানি।
স্পর্শে পাই ছেঁড়া শাড়ি,
শাড়িতে জমে থাকা তরল।

শাড়িতে জমে থাকা থক-থকে তরলগুলো কি?
এগুলো কি রক্ত? কোন উত্তর পাই না।
আর আমি বলবো কি করে?
আমিতো চোঁখে দেখি না।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

36 − = 26