অনুকরণীয় বাংলাদেশ

বিশ্বের সাত অর্থনৈতিক শক্তির জোট জি-৭ সম্মেলনের আউটরিচ মিটিংয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণ দেশের মর্যাদা বাড়াল। জাপানের নাগোয়ায় অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনে বাংলাদেশের উন্নয়নের কারিগর শেখ হাসিনাকে বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আউটরিচ মিটিংয়ে বাংলাদেশি নেত্রীর কাছ থেকে বিভিন্ন সামাজিক সূচকে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার কাহিনী শুনেছেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাপান, ফ্রান্স, জার্মানি, কানাডার মতো অগ্রসর দেশের রাষ্ট্রনায়করা। জি-৭ সম্মেলনের আউটরিচ মিটিংয়ে জোটবহির্ভূত দেশের আমন্ত্রিত নেতাদের অংশগ্রহণের সুযোগ থাকে। বিশেষ বিশেষ এলাকার প্রতিনিধি হিসেবে তাদের আমন্ত্রণও করা হয়। কিন্তু সম্মেলনের আউটরিচ মিটিংয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতির ভিন্নতা ছিল। বিশ্ব অর্থনীতিতে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্যই তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এর মাধ্যমে বিশ্ব নেতাদের কাছে বাংলাদেশের গুরুত্ব স্পষ্ট হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর গ্লোবাল ইমেজ এবং এই কঠিন সময়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দৃষ্টান্তের এটা একটা স্বীকৃতি। বৈঠকের দুটি সেশনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মূলত নারীর ক্ষমতায়ন, মানসম্মত অবকাঠামো, জলবায়ু ও স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে কথা বলেন। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিক অগ্রগতির বিভিন্ন দিক সম্পর্কে বিশ্ব নেতাদেরকে অবহিত করেন। বলেন, উন্নত দেশগুলো যদি কারিগরি সহায়তা, অর্থায়ন এবং সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে, তাহলে বিশ্ব আজকে যেসব সমস্যায় পড়েছে, তা আর হবে না। বড় বড় অবকাঠামো প্রকল্প বাস্তবায়নের পাশাপাশি তৈরি পোশাকশিল্প এবং বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের ধারণার কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। পরিবেশবান্ধব জ্বালানির গুরুত্বের কথাও তুলে ধরেন তিনি। স্বাস্থ্যসেবা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ৩০ হাজার মাতৃসদনের মাধ্যমে নারীদের সহায়তার কথা উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। স্বাস্থ্য খাতের বিনিয়োগ যে উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদি অবদান রাখে তা স্মরণ করিয়ে দিয়ে গুণগত স্বাস্থ্যসেবা তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছানোর প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশ্বনেতাদের অভিহিত করেন বাংলাদেশের নেত্রী। নারীর ক্ষমতায়নে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতিও তিনি স্পষ্ট করেছেন বিশ্বসমাজের কাছে। বিশ্বের পশ্চাত্পদ অংশের এগিয়ে যাওয়া নির্ভর করছে সব ক্ষেত্রে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের ওপর। বাংলাদেশের পথচলা এক্ষেত্রে অন্যদের জন্যও যে অনুকরণীয় হতে পারে জি-৭ সম্মেলন সে বিষয়টিই স্পষ্ট করেছে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + 2 =