আমল নামা:

……….ফজরের আজানের আগে হঠাত ঘুম ভেংগে গেল,
মোয়াজ্জিন এর কন্ঠে সুমধুর সুর।আজো হইলনা পড়া, সে আগের মত,তাহলে কি শরির নাপাক ছিল?!; হুম্ম, শরির নাপাকই ছিল,শরির নাপাক থাকা দোষের কিছু নয়,সে শেষ কবে পড়া হয়েছিল ফজর; মনে নেই তো।
হয়ত বা পড়েছিলাম প্রায় চার বছর আগে কোন এক রমজানে।গ্রামে যখন ছিলাম; আরো চৌদ্দ বছর আগে কোন শিতের রমজানে কতগুলো বকপক্ষির মত সাদা রাজহাসের মত সাদা পাঞ্জাবি পড়ে পাচ/সাত জন একসাথে যেতাম পাড়ার মসজিদে। আকাশ একটু ফর্সা হলে খেলতাম ক্রিকেট নাম্বার দিয়ে।
বড় হয়ে গেছি খেলাধুলা ভুলে গেছি,জ্যাক ক্যালিস আর ক্রিস ক্রিয়ান্স হওয়ার স্বপ্নভংগ হয়েছে অনেক আগে।
এর মধ্যে অনেক স্বপ্ন ভেংগেছে, জোরাতালি দিয়ে চলছে নতুন সপ্ন।মিথ্যাচার আর ভণ্ডামোতে চেয়ে গেছে গোটা পৃথিবী, দিনে দিনে স্বপ্নবাজদের ভাংছে স্বপ্ন। ব্যার্থদের সংখ্যা বাড়ছে নতুন ব্যার্থরা যোগ দিচ্ছে পুরাতন ব্যার্থদের দলে।
তারপরও আমারা সফল হতে চায় বড় হতে চায় প্রয়োজনে অন্যের পায়ে কুড়াল মেরে।আমিও হতে চাই সে সমান তালে।লাফ দিয়ে উঠতে চাই তের হাত, তৈলাক্ত বাশের বানরের মত পড়ে যায় সাড়ে বার হাত!।
হঠাত ততপর হয়ে উঠি শিহরিত হয়ে উঠি তড়িৎ তরঙ্গ বয়ে যায় শরিরে কোন অজ্ঞাত প্রিয়তমার লাল ঠোট আর সুউচ্চ স্তনের কথা মনে পড়ে।আবার ভুলে যায়,ভেংগে যায় স্বপ্ন।
আমি, আমরা,আমরা সকলে উঠতে চায় উড়তে চায় মানব বেলুন হয়ে দূর থেকে দুরান্তরে যেতে চায় বহুদুরে নীল তেপান্তরে।
কিন্তু হায়! পা ধরে ঝুলে আলখাল্লা পড়া এক মস্তবড় শয়তান!!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

9 + 1 =