কারাবন্দী শয়তান

আজ দুই সপ্তাহের উপর আজাজিল জেলে। প্রতি বছর এই সময়টায় তাকে কারাবন্দি করা হয়। ফেরেস্তাদের দল গিয়ে তাকে এরেস্ট করে নিয়ে আসে। প্রথম প্রথম তার খুব বিরক্ত লাগতো। কিন্তু গত কয়েকশ বছর সে এই একমাসকে চিন্তা এবং গবেষণার জন্য কাজে লাগাচ্ছে। সারামাস কাজ করে সে আসলেই খুব ক্লান্ত হয়ে পড়ে। আল্লাহ আসলেই মহান। সে মনে মনে শুকরিয়া আদায় করে। তবে পরক্ষণেই মনে হয় কীসের শুকরিয়া? তার এক চ্যালা তার সাথে দেখা করতে এসেছিল। অল্প কিছুক্ষণ কথা হয়েছে। সে খবর পেলো রমজান মাসেও মানুষের ধর্ম-কর্মের প্রতি তেমন একটা বিশেষ আগ্রহ দেখা যাচ্ছেনা। সে হো হো করে হেসেছিল এই কথা শুনে। তারপর বেশ পরিতৃপ্ত অনুভব করলো।

সে এখন সারাদিনই ভাবে। চিন্তা করে কীভাবে আরো প্রভাব বিস্তার করা যায়। তবে তার খুব বিরক্ত লাগে একা বসে থাকতে। ফেরেস্তাদের সাথে আড্ডা মেরে মজা নেই। আগেও ছিল না। সে ছিল এই মাথামোটাগুলোর নেতা। তার আসলে তখনই আপত্তি জানানো উচিৎ ছিল। মাথামোটাদের নেতাগিরি করার কারণেই তার এই কারাবাস। তবে কারাগার চিন্তার জন্য খুব ভালো। চ্যালা তাকে কিছু সিগেরেট দিয়ে গেছে। সে একটা ধরিয়ে টানতে থাকে। ফেরেস্তারা তার কাছে খুব একটা আসেনা। অবশ্য সেও ফেরেস্তাদের থেকে দূরেই থাকে। যাদের স্বীয় চিন্তা-শক্তি নেই তাদের আজাজিল একদম পছন্দ করেনা। তবে ফেরেস্তাদের একটা কাজই তার ভালো লেগেছিল। আদমকে বানানোর আগে তারা প্রতিবাদ করেছিল। প্রতিবাদ ধোপে টিকে নাই। না টিকারই কথা। এই মানুষের কারণে তার যত জ্বালা। এত এবাদত করেও আজ জেল ঘাটতে হচ্ছে।

তার নিজেকে বিপ্লবী রাজনীতিবিদ মনে হয়। মনে হয় কোন স্বৈরাচার তাকে কারাবন্দী করেছে। তার কারাগারে কাটানো দিনগুলো বড় অদ্ভুত। কত পুরান কথা মনে পড়ে, মনে পড়ে লাওহে মাহফুজে দেখা কোরানের কথা। একবারও মাথায় আসেনি সেই হবে শয়তান। সে এই মাথামোটা ফেরেস্তাগুলোর জন্য দোয়া করেছিল। নিজের জন্য করেনি। তার মনেই হয়নি সে কোনদিন আল্লাহ্‌র আদেশ অমান্য করতে পারে। সে সিগেরেটে খুব জোরে একটা টান দিলো। মাদারচোতটা সব সময় ভালো সিগেরেট আনে। এই জিনিস তার খুব পছন্দ। মানুষের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আবিষ্কার এই সিগেরেট। সে আবারো ভাবে তার কারাগারে করা চিন্তাগুলোর কথা। অনেক ইউনিক আইডিয়া তার মাথায় আসে। একটা বই লিখতে হবে। অনেকের গোপন অনেক তথ্য সে ফাঁস করে দেবে। অনেকটা উইকিলিকসের মত।

দুইটা ফেরেস্তা মনে হয় তার দিকে এগিয়ে আসছে। আজাজিল সিগেরেটে খুব জোরে একটা টান দিলো।

২১.০৬.১৬ইং

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

48 − = 39