গুলশানের রেস্টুরেন্টে বন্দুকধারীদের আক্রমন ও ইহুদি ষড়যন্ত্র

ইসলাম একটা শান্তির ধর্ম- বলাই বাহুল্য। অন্তত: সেটাই সবাই বলে। সুতরাং এই ধর্মের নামে কেউ যদি কখনো কোন সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটায় বুঝতে হবে , তাদের কাজের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই। যেমন ইসলামের নামে আজকে গুলশানের এক রেস্টুরেন্টে কিছু মুমিন আক্রমন করে বেশ কিছু বিদেশীকে জিম্মী করেছে , এ পর্যন্ত গোলাগুলিতে দুইজন পুলিশ কমকর্তা নিহত হয়েছে। এখন ইসলাম যেহেতু শান্তির ধর্ম, তাই এই ঘটনার সাথে ইসলামের কোনই সম্পর্ক নেই। অথবা , ইহা নিশ্চিতভাবেই ইহুদিদের ষড়যন্ত্র। আপনারা কি বলেন ?

সকল মিডিয়া বলছে এরা নাকি শুধুই বন্দুকধারী । তার মানে এদের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই যদিও তারা আল্লাহু আকবর বলেই হামলা করেছে। তবে সেটা তাদের কৌশল নিশ্চিতভাবে। আর এইসব বন্দুকধারী বিপথগামী আর তারা সখের বশে মনে হয় এই সন্ত্রাসী হামলা করেছে। তাদের এই কর্মকান্ডের সাথে ধর্ম বা আদর্শের কোনই সম্পর্ক নেই। তারা নিশ্চিতভাবে বিদেশী কোন গোষ্ঠির প্ররোচনায় এই আক্রমন করেছে আর সেটা ইসরাইল বা মোসাদ হবে নিশ্চিতভাবে। অর্থাৎ এই হামলার পিছনে দায়ী হলো ইহুদিরা। পাঠকরা কি বলেন ?

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 29 = 31