প্রিয় হুমায়ুন আজাদের জন্মদিন আজ ।

হুমায়ুন আজাদ (জন্ম: ২৮শে এপ্রিল, ১৯৪৭ (১৪ই বৈশাখ, ১৩৫৪ বঙ্গাব্দ), রাড়িখাল, বিক্রমপুর; মৃত্যু: ১১ই আগস্ট, ২০০৪, মিউনিখ, জার্মানি) একজন বাংলাদেশী কবি, ঔপন্যাসিক, সমালোচক, ভাষাবিজ্ঞানী, কিশোর সাহিত্যিক এবং কলাম প্রাবন্ধিক।

১৯৮০-র দশকের শেষভাগ থেকে হুমায়ুন আজাদ সমসাময়িক রাজনীতি নিয়ে গণমাধ্যমে বক্তব্য রাখতে শুরু করেন। এ সময় তিনি ‘খবরের কাগজ’ নামীয় সাপ্তাহিক পত্রিকায় ‘কলাম’ লিখতে শুরু করেন। সামরিক শাসনের বিরোধিতা দিয়ে তার রাজনৈতিক লেখালিখির সূত্রপাত। ২০০৩ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত আমরা কি এই বাঙলাদেশ চেয়েছিলাম গ্রন্থটি প্রধানত রাষ্ট্রযন্ত্রের ধারাবাহিক সমালোচনা। ১৯৭১-এ প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশে রাষ্ট্রযন্ত্রের ব্যভিচারের প্রামাণিক দলিল এই গ্রন্থটি।

আজ় হুমায়ুন আজাদের এই কবিতাই শুধু মনে পডছে ।

এ লাশ আমরা রাখবো কোথায়
এ লাশ আমরা রাখবো কোথায় ?
তেমন যোগ্য সমাধি কই ?
মৃত্তিকা বলো, পর্বত বলো
অথবা সুনীল-সাগর-জল-
সব কিছু ছেঁদো, তুচ্ছ শুধুই !
তাইতো রাখি না এ লাশ আজ
মাটিতে পাহাড়ে কিম্বা সাগরে,
হৃদয়ে হৃদয়ে দিয়েছি ঠাঁই।

তার একটি উক্তি ঃ
‘মিনিষ্টার’ শব্দের মূল অর্থ ভৃত্য। বাঙলাদেশের মন্ত্রীদের দেখে শব্দটির মূল অর্থই মনে পড়ে।
চিরন্তন সত্য একটি কথা বলে গেছেন ।

রাজনিতিবিদদের মিথ্যা বলা দেখে এই কথা থেকে সুখ খুজে নেই ।
বাঙালি যখন সত্য কথা বলে তখন বুঝতে হবে পেছনে কোনো অসৎ উদ্দেশ্য আছে।
পৃথিবীতে রাজনীতি থাকবেই। নইলে ওই অপদার্থ অসৎ লোভী দুষ্ট লোকগুলো কী করবে?
ক্ষমতায় যাওয়ার একটিই উপায়; সমস্যা সৃষ্টি করা। সমস্যা সমাধান ক’রে কেউ ক্ষমতায় যায় না, যায় সৃষ্টি ক’রে।

মিডিয়া সম্পরকে তিনি বলেছেন ঃ
আধুনিক প্রচার মাধ্যমগুলো অসংখ্য শুয়োরবৎসকে মহামানবরূপে প্রতিষ্ঠিত করেছে।

বদ্ধিজিবি সম্পরকে চরম উক্তিঃ
বুদ্ধিজীবীরা এখন বিভক্ত তিন গোত্রে। ভণ্ড, ভণ্ডতর, ভণ্ডতম।
যে বুদ্ধিজীবী নিজের সময় ও সমাজ নিয়ে সন্তুষ্ট, সে গৃহপালিত পশু।

জনপ্রিয়রা সাবধান ঃ
এখানে অসতেরা জনপ্রিয়, সৎ মানুষেরা আক্রান্ত।

খমতায় যাওয়ার উপায় ঃ
তৃতীয় বিশ্বের নেতা হওয়ার জন্যে দুটি জিনিশ দরকার : বন্দুক ও কবর।

আমার সবচেয়ে প্রিয় উক্তিঃ
গাধা একশো বছর বাঁচলেও সিংহ হয় না।

আজ এই প্রিয় মানুষ টার জন্মদিন । যুগ যুগ ধরে বেচে থাকুক তার সাহিত্যকৃতি ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৬ thoughts on “প্রিয় হুমায়ুন আজাদের জন্মদিন আজ ।

  1. হুমায়ুন আজাদ বেঁচে থাকবেন
    হুমায়ুন আজাদ বেঁচে থাকবেন যতদিন বাংলাদেশে একজনও মুক্ত চিন্তাকারী থাকবে। উনার সৃষ্টি আমাদের আবারো ভাবাবে, ভাঙাবে , ভেঙ্গে চুড়ে আবার গড়াবে।

    বড় অভাব বোধ করছি আপনার, হুমায়ুন আজাদ।
    খুব যতনে লালন করি আপনাকে নিজের ভিতরে…।।

  2. হুমায়ূন আজাদের মত সাহসী লেখকই
    হুমায়ূন আজাদের মত সাহসী লেখকই আমাদেরকে প্রথা ভাঙ্গার সাহস দিয়েছেন। তাই বেঁচে থাকবেন আমাদের হৃদয়ে অনেকদিন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 63 = 67