নেটওয়ার্ক প্রস্তুতি সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১১২ নম্বরে

ডিজিটাল বিশ্বে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কোন দেশ এখন কতখানি প্রস্তুত, তার প্রধান নির্দেশক হলো ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ‘নেটওয়ার্কড রেডিনেস ইনডেক্স’। কোনো দেশের এগিয়ে যাওয়ার জন্য তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তির ব্যবহার পরিমাপ করা হয় এই সূচকে। এই সূচকে চলতি বছরে উঠে আসা ১০টি দেশ নতুন বিশ্ব গড়ে তোলার সবচেয়ে উপযুক্ত স্থান বলে বিবেচিত হয়েছে। তালিকায় শীর্ষস্থানটি সিঙ্গাপুরের। অর্থনৈতিক উন্নয়নে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অবদান ব্যাপকভাবে প্রচার করা হয় দেশটিতে। ফলে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে সরকারি ও বেসরকারি কাজে দ্রুত উন্নতি হচ্ছে, সবাই দ্রুত সে প্রযুক্তি গ্রহণ করছে। প্রস্তুতির এই সূচকে ১৩৯টি দেশের নাম উঠে এসেছে। বাংলাদেশের অবস্থান ১১২। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে আছে শ্রীলঙ্কা। দেশটি এ সূচকে ৬৩ নম্বরে রয়েছে। এরপর ভুটান ৮৭তম, ভারত ৯১তম, পাকিস্তান ১১০তম এবং নেপাল আছে ১১৮তম স্থানে। নেটওয়ার্কড রেডিনেস সূচকে দ্বিতীয় স্থানটি ফিনল্যান্ডের দখলে। অসাধারণ দক্ষতায় ব্যবসা-বাণিজ্যে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার দেখিয়েছে দেশটি। এরপরই আছে সুইডেন। তবে দেখার বিষয় হলো, যুক্তরাষ্ট্রকে টপকিয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে নরওয়ে। এরপর নেদারল্যান্ডস, সুইজারল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, লুক্সেমবুর্গ ও তালিকার দশম স্থানে জাপান।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

82 − 73 =