আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু পায়রা সমুদ্র বন্দরের

অর্থনীতির প্রবৃদ্ধির সঙ্গে সংগতি রেখে সমুদ্রবন্দরের কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার রামনাবাদ চ্যানেলের তীরে নির্মিত হয়েছে পায়রা সমুদ্র বন্দর। বিদ্যমান দুটি বন্দরের পাশাপাশি তৃতীয় একটি বন্দর নির্মাণের মাধ্যমে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলতে নেওয়া হয়েছে দীর্ঘমেয়াদী ও চতুর্মুখী পরিকল্পনা। অর্থনৈতিক বিবেচনায় দেশ-বিদেশের কাছে আস্থা অর্জনকারী পায়রা সমুদ্র বন্দরের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার বেলা সোয়া ১১টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বন্দরের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। পদ্মা সেতুর জন্য চায়না থেকে আনা ৫৩ হাজার টন পাথর বন্দরের বহির্নোঙরে বসেই মাদার ভ্যাসেল এমভি ফরচুন বার্ড থেকে খালাস করা হয়। পণ্য খালাসের জন্য ১২টি লাইটার জাহাজ আগে থেকেই অবস্থান করছিল আন্ধারমানিক নদীতে। গতকাল আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে পায়রা থেকে নৌ-পথে পণ্য আমদানি ও রপ্তানি শুরু হলো। বর্তমানে পায়রা সমুদ্র বন্দর এলাকায় চলছে বিরামহীন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড। ১৬ একর জায়গায় নির্মাণ করা হয়েছে জেটি ও অত্যাধুনিক কনটেইনার ক্যারিয়ার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড শুল্ক স্টেশন, নিরাপত্তা ভবন এবং বন্দর পন্টুনে সরাসরি ট্রাক বা কনটেইনার লরি প্রবেশের জন্য অভ্যন্তরীণ রাস্তা। নিয়োগ দেওয়া হয়েছে শিপিং এজেন্ট, সিঅ্যান্ডএফ, ফ্রেইট ফরোয়ার্ডার। রামনাবাদ চ্যানেলের লালুয়া ও ধুলাসার থেকে প্রায় সাত হাজার একর জমি অধিগ্রহণের কাজও প্রায় সম্পন্ন। চার লেনের মহাসড়ক ও ডাবল গেজ রেললাইনে যুক্ত হয়ে পরিপূর্ণভাবে বন্দরটি চালু হবে ২০২৩ সালে। পায়রা বন্দরটি চালু হওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ নতুন এক অর্থনৈতিক পরিমণ্ডলে প্রবেশ করছে। চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়তে পারে না এমন বড় জাহাজ জোয়ার-ভাটার অপেক্ষা না করে সারা বছরই ভিড়তে পারবে পায়রা বন্দরে। প্রতিবেশী দেশগুলো খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারবে এ বন্দর। বাংলাদেশ, চীন, ভারত ও মিয়ানমারের প্রস্তাবিত অর্থনৈতিক করিডোর বিসিআইএমের প্রাণকেন্দ্র হয়ে উঠবে পায়রা, এমন আশা সরকারের। গভীর সমুদ্র বন্দরের কার্যক্রম শুরু হলে তখন বিশ্বের কাছে কলাপাড়া ও পায়রা বন্দর হবে সকলের অতি চেনা-পরিচিত এবং প্রখ্যাত স্থান। কর্মসংস্থান হবে স্থানীয় অনেক মানুষের। অর্থনীতিতে বিশেষ অবদান রাখবে এই পায়রা সমুদ্র বন্দর এ প্রত্যাশা সবার।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

76 − 75 =