পুণ্যবানের ভুত বিলাস

আজকের বিষয় একটু হাস্যকর

শুরুতেই বোলব আমার লেখায় কিছু বানান ভুল হতে পারে আশাকরি সংশোধন করে নিবেন । আমার ফ্রন্টে সমস্যা । আর কেউ ভুলেও না বুঝে না পরে লাইক কমেন্ট করবেন না । উল্টা পাল্টা কমেন্ট করতে পারবেন , গালিও দিতে পারবেন মানা নাই । তবে মা ও বোনকে একটু রেহাই দিবেন , জদিও আমার বোন নেই ।
আলোচনায় ফেরা যাক:
বিষয়ের মূল যখন পুণ্যবানের ভুত বিলাস তাহলে পুন্যবান কি তা জানতে হবে
আসুন জেনে নেই পুণ্যবান কিঃ বিশেষ করে ধার্মিকরা দুটি বিষয়ের উপর গুরুত্ব দিয়েই ধর্মের ঢাক বাজিয়েছে । এক কথায় বলা যায় ইহা একটা আদিম সমস্যা ।
আসলে পাপ পুণ্য বলতে কিছু নেই । সতন্ত্র ভাবনায় তাকে আমরা অপরাধ আর নিরপরাধ বলি ।
কিন্তু ধারমিকদের কাছে একটু উলটো
তার কিছু কথা না বললেই নয় । বিশেষে করে সনাতনি ভাবনায় পাপ পুন্যের বিশ্লেষণ করলে বেশ মজা লাগবে ।
আদিম যুগের সনাতনি পাপ পুন্যের কথা বোলব না । এই কিছু দিন আগের কথায়
নেপালে ভূমিকম্প হয়েছিলো । অনেক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে ,বহু লোক মারা গেছে ।
অনেক শিশু বাস্তু হারা হয়েছে । পুষ্টি হিনতায় ভুগেছে অসংখ্য নবজাতক ।
আর তখন সনাতনি ধার্মিকরা ব্যারেল ব্যারেল দুধ ঢেলে ছিল শিবের মাথায় ।
রব উঠেছিল অনাচারের কারনে শিবের মটকা গরম হয়েছে বিধায় আজ নেপালে ভূকম্প । লক্ষ্য করুন এখানে যারা মাথা ঠাণ্ডা করার জন্য দুধ ঢেলেছে তারাই সনাতনি মতে পুণ্যবান ।
এখানে যারা পুন্যের কাজ করেছে তারা কিন্তু বেদ বা গীতাকে অনুসরন করেছে
এখানে তাদের কোন দোষ নেই । যেহেতু তারা ঐ কিতাবের অনুসারী ।
আর স্বতন্ত্র ভাবনায় যা ভণ্ডামি ও মানবতা বিরধি
আর এর প্রতিবাদ করে যখন আমরা বোলব যে দুধ মাথায় না ঢেলে ঐ অনাহারি শিশুকে দিন তখন হবে আমরা পাপি ।
এর বিস্তারিত আরও কথা বলা যায় । কিন্তু সময় কম তাই বললাম না ।
আশা করি বুঝে নিবেন ,বোঝার চেষ্টা করবেন সুস্থ মগজ দিয়ে ।।
এবার আসি ভুত নিয়ে
ভুত কি ??
ভুত বলতে আমাদের মনের পর্দায় এক অশরীরীও এক সত্তা ভেসে ওঠে । অনেকের মতে এটি একটি অদৃশ্য বস্তু যা ভয় দেখায় , জীবিত ব্যক্তির ঘাড় মটকায় এবং হত্যা করে ।অধিকাংশ ব্যক্তির মতে এর বাস্তব কোন অস্তিত্ত নেই। যদি সত্যিই ভূত বলে কিছু থাকতো, তাহলে এতদিনেই আমরা সে ভূত আবিস্কার করে ফেলতে পারতাম। মঙ্গলে পানির সন্ধানে মানুষের তৈরি নভোযান যাচ্ছে, আর আমাদের ক্ষুদ্র এই পৃথিবীতে আমরা এখনও ভূতের সন্ধান করতে পারিনি- এটা কি বিশ্বাস যোগ্য?
মজার বিষয় হোল পুণ্যবান ও ভুতের সাথে খুব মিল আছে
কারন পুণ্যবান মানে ধারমিক আর ধার্মিকেরাই ভুতে বিশ্বাস করে ।
কোন নাস্তিক কিংবা মুক্তো চিন্তার লোক অদৃশ্যমান বা আধ্যাত্মিকে বিশ্বাস করতে পারে না
আসুন এই বিষয় নিয়ে একটা গল্প বলি
গল্পটা আমার নিজের বানানো
এক মা ও তার ছেলে নিয়ে একটি নির্জন বাড়িতে ভারা থাকে । ছেলেটির ছিল এলারজির রোগ
একদিন অনেক রাত করে বাসায় ফিরল ।রাত তখন ২ টার বেশি
মা খুব টেনশন করেছিলো । মা বল্ল হ্যা রে খোকা এতো রাত অব্দি কোথায় ছিলি ? ছেলেটি উত্তর দিল না । কারন ও নেসা করে এসেছিল । এর ভেতর ওর ঘরে পছন্দের খাবার ছিল না যে রাতে খাবে ।
মা কি করবে ভেবে পাচ্ছে না । ঐ রাতে মা পাশের বাড়ি থেকে একটি হাসের ডিম এনে ভেজে দিল । মজার বিষয় মার তখন মনে ছিল না যে ছেলে এলারজি ।
ছেলেটি পেট পুরে খেয়ে ঘুমালো ।
পরদিন সকাল ৯ টার দিকে উঠে ছেলেটি গেলো বাতরুমে গেলো । কিন্তু চোখে ঘুম রয়েই গেলো । আর ঐ অবস্থায় ঘুমিয়ে পড়েছে । এবং স্বপ্ন দেখল বন্ধুদের সাথে মারা মারি করা হাতাহাতি করা । এদিকে মার খুব টেনশন এখনো বের হয় না ক্যান ? পারার অনেক লোক ভির করেছে মায়ের চিৎকারে । সবাই এক সাথে চিৎকার করলো এবং এক পর্যায় ঘুম ভাংল ।
দরজা খুলে দেখে ওর সমস্ত শরীর লাল ও ফুলে উঠেছে ।
মা ও সবাই ভাবলো ও ভুতের সাথে মারামারি করেছে ।
কিন্তু এটা যে এক প্রকার স্লিপিং ষ্টক তা কেউ বুজলো না ।
এই হোল পুণ্যবানের ভুত বিলাস ।।
ধন্যবাদ
সাথে থাকার জন্য
টিটপ হালদার

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

65 + = 71