জিমন্যাস্ট মার্গারিটা মামুন

?oh=ae4402bfe543a9cadd49257816e31da7&oe=58567CBC” width=”400″ />
শুরুতেই বলব আমার লেখায় কিছু বানান ভুল হতে পারে আশাকরি সংশোধন করে নেবেন । আমার ফন্টের সমস্যা । আর কেউ ভুলেও না বুঝে না পড়ে লাইক কমেন্ট করবেন না । উল্টা পাল্টা কমেন্ট করতে পারবেন , গালিও দিতে পারবেন মানা নাই । তবে মা ও বোনকে একটু রেহাই দিবেন , যদিও আমার বোন নেই ।
আমাদের আঞ্চলিক ভাষায় একটা প্রবাদ আছে
হোগায় নাই ত্যানা ,
সারা রাইত করে প্যানা ।।
এখানে ত্যানা বলতে পড়নের কাপর আর প্যানা বলতে চেঁচামিচি বোঝানো হয়েছে
ভাবতে পারেন সাত সকাল বেলা কি শুরু করলাম ।
বিষয় টি খুব সোজা ও সমসাময়িক ।
রিও অলিম্পিকে রিদমিক জিমন্যাস্টিক্সের একক অল অ্যারাউন্ড ইভেন্টের সোনা জিতেছেন রুশ জিমন্যাস্ট মার্গারিটা মামুন (বাবা বাংলাদেশি মা রাশিয়ান)। এটা নিয়ে এদেশীয় মিডিয়া ও কিছু পাবলিকের লাফালাফি দেখে মনে হয় ওদের হোগায় ত্যানা নেই কিন্তু প্যানা ঠিকি বকছে ।
কিছু দিন আগেও আমরা দেখতে পেরেছি ভারতীয় খেলোয়াড় দিপা কে নিয়ে কি ধরনের বিরুপ মূলক লেখা ছাপিয়েছে ।
আসলে কি বলবো বাংলাদেশ যে একটি ধার্মিক দেশ তা আবার প্রমান করলো মার্গারিটা ।
ধার্মিকদের সব থেকে উত্তম গুন ৪ টিঃ
১।অভিশাপ দেয়া
২।পরচর্চা করা
৩।আক্রমণ করা
৪।হায় হুতাস করা
এখানে এরা পরচর্চা ও হায় হুতাসকে বেছে নিয়েছে ।
আসুন এই ৪ টি গুন নিয়ে কিছু আলোচনা করিঃ
১। অভিশাপ দেয়াঃ যখন দেখবে যুক্তিতে সে পারছে না কিন্তু আপনি তার তুলনায় স্বাস্থ্যবান তখন মনে মনে আপনাকে অভিশাপ দিবে ।
২।পরচর্চা করাঃ এই বিষয়টা সনাতনী নারীরা খুব ভালো পটু ,যেমন ধরুন মন্দিরে পুজার অনুষ্ঠানে গেলে বুঝতে পারবেন ।
মন্দিরে নারীরা স্বর্গে কিংবা মূর্তি দেখতে যায় না । যাওয়ার প্রধান কারন হোল কে কত দামি শাড়ি পড়লো । কার স্বামী দেখতে ভালো ।
এই বিষয়ে নবীন কিছু ধার্মিকরাও একই ভূমিকা পালন করে ।
৩।আক্রমণ করাঃ এই বিষয়ে যারা পটু থাকে তার হলো এক প্রকার মূর্খ ও স্বর্গে যাওয়ার লালসা পূর্ণ ব্যাক্তি ।
যেমন ধরুন একটা প্রশ্ন করলেন আল্লা কি ?
এই প্রশ্ন কানে যাওয়ার সাথে সাথেই আপনাকে একটা থাবর অথবা লাথি ও মারতে পারে । অথচ সে বুজবে না প্রশ্নটা কি ।
আর হায় হুতাসের বিষয় টা তো বুজতেই পারছেন জিমন্যাস্ট মার্গারিটা মামুন কে দিয়ে ।যা এদেশিও মোডারেট ধার্মিকদের ফাটছে ।
তাই এদের উদ্দেশ্য করে বলি যদি এই মেয়েটি রাশিয়ায় জন্মগ্রহণ না করে বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করতো তবে এই মেয়ের ভাগ্যে কি হতো ? হয়তো বোরখা শো নয়তো হিজাব শো করতো, রিদমিক জিমন্যাস্টিক শো করা আর হতো না । আর যদিও বা জিমন্যাস্ট হওয়ার চেষ্টা করতো তবে তাহলে প্রথম অবস্থায় তাকে বলতো ইহুদির বিচ, বেশরম মাগি, লজ্জাহীন,
ছি ছি কি ড্রেস পড়ে খেলতে গেছে । আরে মাইয়া মাইনসের তো ঘর থেকেই বাইর হওয়া নিষেধ । আর এই মাইয়া জাইঙ্গা পইরা খেলতে গেছে । ও দেশে আসুক ওরে শরিয়া আইনে পাথর ছুইরা মারমু । তারপর হয়তো তনু কিংবা আফসানার মত ভাগ্যবরণ করে কয়েকদিন ফেসবুকের ইস্যু হয়ে থাকতো ।
ধন্যবাদ ।।
‪#‎টিটপ‬

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 69 = 70