কাব্যহীন

আমি আর কবিতা লিখতে পারি না,
আগে লিখতাম মাঝে মাঝে,
আর আজ! হৃদয়ে কোন কবিতাই নাহি বাজে,
সব-ই যেন আজ বিলীন হয়ে গেছে;
কেনো জানো?
তোমার জন্যই আমার সব কবিতা হারিয়ে গেছে স্রোতে,
অবাক হচ্ছো?
ভাবছো?
এ কেমন কথা!
কী এমন করেছিলাম তোমার সাথে?
ভালোবাসতাম, এটাই কী তবে ত্ৰুটি?
কী এমন চেয়েছিলাম তোমার কাছে?
ভালোবাসা?
একটু দয়া করেই ঠাঁই নাহয় দিতে,
ঠকতে তো না মোটে,
কিন্তু তুমি স্থান দাও নি তখন,
আমায় ছেড়ে গেলে,
মুখ ফসকে বলেই ছিলাম- হয়তো মনের ভুলে,
তুমি চলে গেলে, আর;
কাঁদালে আমায়,
জানো না তুমি,
কতদিন খুঁজেছি তোমায়,
কাছে খুঁজেছি, দূরে খুঁজেছি, রাতের আঁধার, চাঁদের মায়া, আরও কত কি;
শুধু একটু দেখবো বলে,
তুমি চাইলে কেবল তোমায় দেখেই পার করতে পারতাম এ জীবন,
কিন্তু তুমি চাইলে না!
বুকভরা যাতনার করুণা শেষে, অবশেষে পেলাম সন্ধান তোমার,
কিন্তু ততদিনে হয়ে গেছে অনেক কিছু,
আমি হারিয়ে ফেলেছি আমার সকল ছন্দ, সকল অলঙ্কার, সকল শব্দ;
আমার কাব্যবোধ সব তুমিই নিলে,
তাই আজও কলম নিই, লিখতে চাই, কিন্তু সব লেখার পাতা হারায় নষ্ট নীড়ে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “কাব্যহীন

  1. তুমি-আমি-প্রেম-ভালোবাসা ছাড়া
    তুমি-আমি-প্রেম-ভালোবাসা ছাড়া কি কোন কবিতা লেখা যায় না? ভাল কবিদের ১০০টা কবিতা পড়ে একটা লিখবেন। লিখলেই কবিতা হয় না।

  2. আমি কি শুধু প্রেম-ভালোবাসা
    আমি কি শুধু প্রেম-ভালোবাসা নিয়েই লিখি? এছাড়াও আরও বিষয় নিয়ে লিখেছি। হয়তোবা সেগুলো ভাল হয় নি। এটাও আপনার ভাল লাগে নি। না লাগতেই পারে! কিন্তু সরাসরি এভাবে না লিখলেও পারতেন। তারপরও চেষ্টা করবো অন্যান্য বিষয় নিয়ে বেশি লেখার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

6 + 3 =