কেন ছাত্র সংসদ নির্বাচন চাই

পুঁথিগত বিদ্যার্জন বা শ্রেণিকক্ষের সিলেবাস ভিত্তিক
পড়াশোনায় ডুবে থাকাই যে উচ্চশিক্ষা তথা বিশ্ববিদ্যালয়
শিক্ষার প্রধান উদ্দেশ্য নয় এটা সবারই জানা কথা।
নির্দিষ্ট সময় শেষে একটি সনদপত্র প্রাপ্তিই
উচ্চশিক্ষার মূল লক্ষ্য নয়। উচ্চশিক্ষা পরিপূর্ণ করার
জন্য দরকার কিছু অনুষঙ্গের, যা একজন বিশ্ববিদ্যলয়
শিক্ষার্থীর মানবিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক গুণের
বিকাশ ঘটায়। আর এ অনুষঙ্গগুলোর অধিকাংশই পূরণ
করে থাকে কোন বিশ্ববিদ্যলয়ের ছাত্র সংসদ।
ছাত্র সংসদ হলো কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণতন্ত্র
চর্চার অন্যতম পরিচায়ক। জ্ঞানার্জনের সর্বোচ্চ
বিদ্যাপীঠ চলবে ছাত্র-শিক্ষকের পারস্পরিক
সহযোগিতায়। আর এ সহযোগিতার জন্য চাই ছাত্র
প্রতিনিধিত্ব, যারা ছাত্রদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কথা বলবে
বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী
পর্যায়ে। এ প্রতিনিধিত্ব করাই ছাত্র সংসদের প্রধান
কাজ। ছাত্র সংসদ হলো এমন একটি প্রতিষ্ঠান যার
কোন একক রাজনৈতিক ব্যানার নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের
নিয়মিত ছাত্রদের ভোটে প্রতিনিধিরা নির্বাচিত হন।
ছাত্র সংসদের কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে-
শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক ও বুদ্ধিবৃত্তির চর্চা ত্বরান্বিত করা,
বিশ্ববিদ্যলয় জীবনে একাডেমি ও একাডেমির
বাইরের বিষয়ে সর্বোচ্চ সুবিধা অর্জন করা,
নেতৃত্ব বিকাশ এবং সত্যিকারের নাগরিক হিসেবে
শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করা।তাছাড়া ছাত্র সংসদের
কার্যক্রম মধ্যে সাংস্কৃতিক আড্ডা, গান,কবিতা, জার্নাল
বুলেটিন প্রকাশ করার মধ্যে দিয়ে শিক্ষার্থীদের
মেধা বিকাশে সহযোগিতা করা।
কিন্তু দুঃখজনক হলেও
সত্যি গত ২৪ বছর ধরে তেজগাঁও কলেজ ছাত্র সংসদ
অকার্যকর।যার কারনে ক্যাম্পাসে আয়োজন হয় না
কোন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা কিংবা প্রকাশিত হয় না
কোন ম্যাগাজিন তবে ঠিকই আদায় করা হয় এই সব
বিষয়ের ফি।ছাত্র সংসদ বাবদ প্রতি বছর ৫০ টাকা,ম্যাগাজিন
বাবদ প্রতি বছর ১০০ টাকা শিক্ষার্থীরা নিয়মিতভাবে
দিয়ে আসছে কিন্তু কোথায় কিভাবে সেই টাকা খরচ
করা হচ্ছে তাও সাধারন শিক্ষার্থী জানে না।

ছাত্র সংসদ নিবার্চন না হওয়ার কারনেই “বাংলায় পড়লে
ইংরেজি বই ছোঁয়া বারণ”টাইপের উদ্ভূত নিয়ম-কানুন
আমদানি হয়েছে। প্রশাসনিক স্বৈরতন্ত্র তো
আছেই-
আমাদের ক্যাম্পাসে সমস্যার অভাব নেই,ক্যান্টিনের
নামে রেস্টুরেন্ট,হলের নামে ক্যান্টনমেন্ট,
আদিম ব্যবস্থায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার
সুযোগ,আর্কিমিডিসের আমলের যন্ত্রপাতি দিয়ে
সমৃদ্ধ গবেষণাগার, ডিজিটাল বাংলাদেশের এনালক
ক্যাম্পাস!
এই সমস্যা গুলো নিয়ে কথা বলার প্রাতিষ্ঠানিক
প্লাটফরম হলো ছাত্র সংসদ।এই প্রতিষ্ঠান অকার্যকর
হওয়ার কারনে ই আজ আমাদের শিক্ষার এ অবস্থা।
তাই ছাত্র সংসদ নিবার্চনের দাবিতে আমাদের ঐক্যবদ্ধ
আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে বিজয় না হওয়া
পযর্ন্ত

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “কেন ছাত্র সংসদ নির্বাচন চাই

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 72 = 77