বি – তে বিধর্মী ,তুই নাপাক তুই জাহান্নামী

শুরুতেই বলব আমার লেখায় কিছু বানান ভুল হতে পারে আশাকরি সংশোধন করে নেবেন । আমার ফন্টের সমস্যা । আর কেউ ভুলেও না বুঝে না পড়ে লাইক কমেন্ট করবেন না । উল্টা পাল্টা কমেন্ট করতে পারবেন , গালিও দিতে পারবেন মানা নাই । তবে মা ও বোনকে একটু রেহাই দিবেন , যদিও আমার বোন নেই
?oh=f53e3b78114da00025a2ce3f96d3ceac&oe=58857A24″ width=”400″ />

ভেবেছিলাম আর কিছু লিখব না । একেবারে কানে তুলো দিয়ে বসে থাকবো । কিন্তু চোখ তো খোলা । বিধর্মীদের উপর নির্যাতন দেখে আর বসে থাকতে পারলাম না । মাঝে মাঝে ভাবি ঈশ্বর যে কতো অসহায় আল্লার তুলনায় ।

এই তো আজো একটি পুঁজ গেলো । নাম শনি পূজা । অনেকে বাড়ির পুঁজ ও বলে । এর কাজ নাকি বিপদ আপদ দূর করা । সয়ং নারয়ন এর একটি শক্তি । নারায়নের কিন্তু অনেক ক্ষমতা । একদিন অষুর রাজা স্বর্গে আক্রমণ করতে গিয়েছিল । কিন্তু দেব রাজ ইন্দ্র কিন্তু পারেনি অষুরদের সাথে । তাই ইন্দ্র গিয়েছিল নারায়নের কাছে । তার পর নারায়ন তাদের মুক্ত করে । ও আচ্ছা এতো গল্প বা স্বর্গের কাহেনী । এটা তো মর্ত ।

কিন্তু ক্যান যে ভুলে যায় নাপাক, বিধর্মী, হিন্দুরা । আরে এরা জানে না এখানে ঈশ্বরের থেকে আল্লার দাপট অনেক বেসি । তার প্রমান ইতি মধ্যে আমরা পেয়েছি সিলেটের ইস্কন মন্দিরে ।

ইতি মধ্যে শুরু হয়ে গেলো স্বর্গে যাওয়ার পথোযাত্রীদের স্বর্গের রাস্তা পরিসাক্র করার কাজ । স্বর্গে যাওয়ার বিভিন্ন উপায় । এর ভেতর মূর্তি ভাঙ্গা , বিধর্মী পেটানো অন্যতম । এখন তার মৌসুম । এই তো কেবল শুরু । কিছুদিনের ভিতর শুনতে পাবেন আরও হরেক রকমের নিউজ। এই খানে মন্দিরে আগুন , দুর্গার মাথা নেই, হাত নেই, ইত্যাদি । মজার বিষয় দুর্গা আর কিচ্ছু করতে পারে না ।

এই তো কাল ইস্কন মন্দিরে হামলা করলো । যারা করেছে তারা স্বর্গের যাত্রী । তারা এক ধাপ এগিয়ে গেলো । তারা মনে মনে ভাবে ইস একজনের মাথা টা যদি ফাটাইতে পারতাম তাহলে আরও অনেক কাছে যেতে পারতাম । যারা এগুলো করে আমি তাদের দোষ দেই না। কারন সে যা শিক্ষা পেয়েছে সে তাই করেছে । দোষ তার শিক্ষার ।

এখন ধরুন আপনার ছেলে জন্মের পর দেখল চুরি করা । কিভাবে চুরি করতে হবে, কিভাবে শিধ কাটতে হবে, কি ভাবে গায়ে তেল মাখতে হবে । ও তো এই চুরি করাই শিখবে । তাহলে দোষ কার শিক্ষার ।

যখন দোষ এই শিক্ষার তাহলে কি করা উচিৎ ? আমি মনে করে এই শিক্ষার মূল শেকড় তুলে ফেলতে হবে । এখন অনেকেই বলবে কি শিক্ষার কথা বলছে । যাদের মগজ আছে তারা বুঝবে । আশা করি আমার এই লেখা মগজ ওয়ালা লোকই পড়বে ।

অনেকেই ভাবতে পারে আজকের লেখাটা একটু এক পক্ষের হয়ে যাচ্ছে । তাদেরকে একটু পরিষ্কার করে দিচ্ছি । পৃথিবীতে যদি পাপ বলে কিছু থাকে তাহলে আমি বলব সংখ্যালঘু হয়ে জন্মানো । আমি যেখানে থাকি সেখানে দেখছি সংখ্যালঘুর উপর সংখ্যাগুরুরা কি ভাবে স্বর্গে যাওয়ার রাস্তা পরিষ্কার করছে । এই স্বর্গে যাওয়ার রাস্তা সব ধর্মেরই আছে । কিন্তু পথ গুলো একটু আলাদা । তবে একটা মজার বিষয় হল সবার সাথে একটা রাস্তা মিলে যায় । সেটা হল সংখ্যালঘুর উপর নির্যাতন ।

স্যার একটা কথা বলেছিলেন,
মন্দির ভাঙ্গে ধার্মিকে আর মসজিদ ভাঙ্গেও ধার্মিকে
আর যারা ভাঙ্গাভাঙ্গিতে নাই তারা অধার্মিক বা নাস্তিক ।

যেমন টা হয়েছিল বাবরি মসজিদ নিয়ে ভারতে আর বিপরিতে অজস্র মন্দিরে । তারি ধারাবাহিকতা বজায় রাখছে ধার্মিকরা । এই বিষয়ে সকল ধর্মের লোকই পটু । কে না চায় স্বর্গের হুড়, অপ্সরা ছুতে ।

পরিশেষে বলতে চাই মনবিক হন আর উপরোক্ত লেখা গুলো পড়ুন আর নির্মল চিত্তে অনুধাবন করুন । পারলে শিক্ষার মূল টা কোথায় সেটা বের করুন , প্রশ্ন করুন, চিন্তা করুন ।
টিটপ
ধন্যবাদ

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩ thoughts on “বি – তে বিধর্মী ,তুই নাপাক তুই জাহান্নামী

  1. ইতি মধ্যে শুরু হয়ে গেলো

    ইতি মধ্যে শুরু হয়ে গেলো স্বর্গে যাওয়ার পথোযাত্রীদের স্বর্গের রাস্তা পরিসাক্র করার কাজ । স্বর্গে যাওয়ার বিভিন্ন উপায় । এর ভেতর মূর্তি ভাঙ্গা , বিধর্মী পেটানো অন্যতম । এখন তার মৌসুম ।

    https://www.youtube.com/watch?v=MWpKKy-2Dyo

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 10 = 17