মানুষরা আবার যাদের মারে তাদের আবার একটু বেশিই খাতির করে

কাল সকালের পর আমি আর এ পৃথিবীতে থাকব না।তোর সাথে আর দেখা হবে না।
তাই শেষ একটা উপদেশ দিয়ে রাখি-

” মানুষকে যত পারিস শুধু কষ্ট দিবি মারবি, দরকার হলে ঘার মোটকে দিবি ।
তবেই মানুষের ভালবাসা পাবি।মানুষ তোর গুন গাবে । সন্মান করবে সমীহ করবে ।”

হাট থেকে কোরবানির জন্য কেনা লাল গরুটি কথা গুলো বলছিল
পাশেই বেধে রাখা কাল রঙের ছাগলটিকে ।

শোন –
” কুরবানি অথবা জেয়াফাত যেটাই হোক ওদের আমাকেই চাই ।

বাবুর্চিকে বলে-
একটু ঝাল বাড়িয়ে দিও ।পাঁচ কেজির কাল ভুনা করো ।আর পায়াটা যেন মাখা মাখা হয় ।

আহহ যেভাবেই মন চায় , আমার চামড়া ছাড়া সব কিছু খেয়ে ফেলে ।
আর মানুষকে গালি দেবার সময় আমার নাম ধরে বলে
–বেটা একটা আস্ত গরু ।

আবার দ্যাখ, বাঘ ওদের ঘার মটকে চামড়া সহ খেয়ে ফেলে। তবুও প্রশংশা করার সময় বলে বেটা বাঘের বাচ্চা ।বাঘের চামড়া দেয়ালে ঝুলিয়ে রাখে ।চিড়িয়াখানায় দেখতে যায় ।

কোন দিন দেখছিস,মানুষ গরুর চামড়া ঘরে ঝুলিয়ে রাখছে?অথবা গরু দেখতে চিড়িয়া খানায় গেছে ?

“আপনার যে কষ্ট আমার হের চেয়েও বেশি কষ্ট।আমারে আস্ত ল্যাম্ব রোষ্ট করে আবার আমার নামে বাচ্চা লাগাইয়া গালি দেয়।আস্তে আস্তে ছাগলটা উত্তর দেয় ।

কাইল্কাতো আমারেও জবাই করবো, কথাটা মনে রাইক্ষা লাভ কি ?

এরচে চলেন বালতির মধ্যে ভালো ভালো খাওয়া আছে দুজন মিল্লা খাই।

মানুষরা আবার যাদের মারে তাদের আবার একটু বেশিই খাতির করে “

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 4 = 3