[[রক্ত নইত সোনার – আমরা বাঙ্গাল]]

মনুষ্যত্ব আজ কোথায়?
বাঙালি তাকে খুজে পায় না/
চারিদিকে তাই আহাকার জাগে,
শোষনের আলোয় অন্ধকার ভিড় করে/
মানবতার মুখে আজ রক্ত ফুটে ওঠে..
সে রক্ত সরকারের নয়-নয় কোনো বিরোধী দলের,
সে রক্ত ঐ সব ওপর-তলার শোষকদের নয়-
সে রক্ত স্বাধীনচেতা মানুষের রক্ত/

মনুষ্যত্ব আজ কোথায়?
বাঙালি তাকে খুজে পায় না/
চারিদিকে তাই আহাকার জাগে,
শোষনের আলোয় অন্ধকার ভিড় করে/
মানবতার মুখে আজ রক্ত ফুটে ওঠে..
সে রক্ত সরকারের নয়-নয় কোনো বিরোধী দলের,
সে রক্ত ঐ সব ওপর-তলার শোষকদের নয়-
সে রক্ত স্বাধীনচেতা মানুষের রক্ত/
এ রক্ত আমাদের-সাধারন বাঙালির রক্ত‼
ধ্বংস প্রায় গণতন্ত্র সেই রক্তের স্রোতে আজ বিধ্বস্ত//
লাখো মানুষের ক্রন্দনে সোনার বাংলা আজ জর্জরিত..

সত্য চাই, সত্য /
সবার উচ্ছ্বাসে এটাই অনেকের মত্ত/
দূর্জেয় রক্তে আজ কালো শকুনির ভাইরাস ঢুকেছে-
শেষ হয়ে যায় জীবন-
ধ্বংস হয় দেশ..
তবুও ঐ যে কিছু তথাকথিত বীর বাঙালী-
জনপদ কাপিয়ে -বিশ্ব জানিয়ে-
সরোষে সরবে ফুৎকার দেই ওরা-
”সাবাস হাসিনা- সাবাস খালেদা-সাবাস শিবিরের পোষ্য খুনিরা‼
মানুষ মেরেছ-রাজপথে আগুন দিয়েছ/
দূর্নীতির করাল গ্রাসে শেষ করেছ দেশ-
বেশ করেছ বেশ/
তোমরাই তো গড়বে সোনার বাংলাদেশ.”
নগ্ন ধিক্কার আজ এভাবেই লজ্জিত-কুন্ঠিত৷৷

মনুষত্ব আজ কোথায়?
সে কি আজ রাজনীতির বালিশের তলে?
নাকি শোষক শ্রেণীর পকেটের আড়ালে?/
হয়ত সে আজ দেশদ্রোহীদের টইলেট টিস্যূর প্যাচের আড়ালে‼
এত অমানুষের ভিড়ে কোথায় পাব মনুষত্ব?-
কোথায় গেল বাঙালির সেই ৭১ এর অদম্য সাহসী চিত্ত‼

কোথায় সেই মুজিব-সোহরোওয়ার্দি-ভাসানী//
কোথায় সেই অদম্য শেরে বাংলা?/
কোথায় আজ তোমরা-আমাদের প্রিয় নেতা?//
আর ঘুমিও না-জেগে ওঠো,জেগে ওঠো/
চেয়ে দেখো তোমাদের গড়া সোনার বাংলাদেশ..‼
লুটে পুটে খেয়ে যাচ্ছে সব শকুনের গোষ্ঠী-বিশেষ//

সোনার বাংলা আজ কলংকিত-
তীব্র অরাজকতার করাল স্রোতের উন্মত্ততায়-
আমরা সাধারন বাঙালি হয়েছি জর্জরিত/
রাজনীতি আমাদের কুরে কুরে খাচ্ছে ৷৷৷
শকুনের দল আর কত খাবি?
তোরা কি বাঙালি?//
আর কত- মানুষের রক্তে হোলি খেলবি?
ছিঃ ছিঃ রবে ফেটে পড়ি-
তীব্র ঘৃণায় ধিক্কারের ব্যন্জ্ঞনা পাঠ করি-
এমনি শত প্রচেষ্টার-ফলাফল শূন্যের কোঠায়/
হাজারো ছিঃ ছিঃ রবের ধিক্কারে তোরা প্রতিক্রিয়া শূন্য -পুতুল মানব৷৷
বলতে দ্বিধা নেই, সত্যিই তোরা বাংলা মায়ের কলংকিত সন্তান‼‼

জাগো হে মানব জাগো‼
আর কত কাল ভীতির চাদরে লুকিয়ে থাকবি?
অনেক হয়েছে//অনেক দেখেছি/অনেক সহেছি/
সময় হয়েছে রূখে দাড়াবার/
সময় এসেছে ঐক্যবদ্ধতার!
বাংলা মায়ের সন্তান তোরা,
আর কত সইবি-আর কত চোখ বুজে দেখবি?
এত অন্যায় এত অবিচারের ধারা???
আশার পিঠে আশা বেধে স্বপ্ন আকতে দোষ কোথায়?
নিশ্চয় মোরা গড়ব একদিন-সাম্যের বাংলা/
আমরাই পারব বানাতে এক নতুন সোনার বাংলা..
আই না তোরা-বাঙালি ভায়েরা বেরিয়ে/
একসাথে ফুৎকারে বলি-
”আমরা বাঙালি-আমরা সব পারি”

►►►সমাপ্ত◄◄◄

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “[[রক্ত নইত সোনার – আমরা বাঙ্গাল]]

  1. ভাই আর হায় হুতাশ করিয়েন না।
    ভাই আর হায় হুতাশ করিয়েন না। সততা নৈতিকতা নিরপেক্ষতা না থাকলে বাঙ্গালী আর জাগবে না। তাই এই গুলো অর্জনের জন্য কি করা যায় তাই মিলে মিশে করি।

  2. আপনি ইস্টিশনবিধি-৫ লঙ্ঘন করে
    আপনি ইস্টিশনবিধি-৫ লঙ্ঘন করে প্রথম পাতায় দুইয়ের অধিক পোস্ট দিয়েছেন। ভবিষ্যতে ইস্টিশনবিধি মেনে ব্লগিং করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

61 + = 68