মানুষ যখন হয়না মানুষ

মানুষ যখন হয়না মানুষ
তানিয়া আক্তার
মানুষ যখন হয়না মানুষ
বিপত্তিটা বাধে সেখানেই,
সকল কাজে হিংস্র তখন
থাকুক সে যে যেখানেই।
মনুষ্যত্ব ছাড়া মোদের
গর্ব করার নেই কিছূ ,
এইটুকু না বুঝে সবাই
ছুটি পাশবিকতার পিছূ।
খুন,ধর্ষণ,ব্যভিচার আর
অসভ্যতা যত আছে,
সুযোগ পেলেই নোয়াই মাথা
প্রবৃত্তির কুমন্ত্রণার কাছে।
কেনো শিক্ষায় ঢাকেনা মোদের
আদিম বর্বর মূর্খতা,
বাড়ে যেন ক্ষণে, ক্ষণে অধিক
চতুরতা, ধূর্ততা।
প্রতিবাদ আর বিচার করে
কটা পশু দন্ড পাবে,
মোদের মাঝের খুনী দানব
কোন্ শিক্ষায় দূরে যাবে ?
নিজের মাঝের পশুটাকে
করলে দমন সহজে,
সমাজটা যায় যে বেঁচে
সভ্য রয় সব কাজে।
উপড়ে ফেলে সমাজ হতে
পাপমগ্ন মানুষগুলো,
নিষ্পাপকে বাঁচালে বাঁচে
নির্মল সুন্দরগুলো।
মানুষের মুখোশ পরে
পিশাচ সহস্র রয় লুকিয়ে,
সমাজের ক্ষতগুলোয় ধরে পচন
কভূ যায়না শুকিয়ে।
বক্তৃতা, কথার জালে
মূর্খদের বন্দী করে,
আসল সত্য ঢেকে বহুজন
বাঁচে মিথ্যের জোরে।
সব দেখে ধিক্কার দিই
নিকৃষ্ট এই মানব জনম,
চোখ, কান, মনের উপর
ফুরোয়না ব্যথার জুলুম।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

66 − 56 =