বেড়েছে ভাতা ও সুবিধাভোগীর সংখ্যা

দেশের বয়োজ্যেষ্ঠ দুস্থ ও স্বল্প উপার্জনক্ষম অথবা উপার্জনে অক্ষম বয়স্ক জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা বিধানে এবং পরিবার ও সমাজে মর্যাদা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৯৯৭-৯৮ অর্থবছরে ‘বয়স্কভাতা’ কর্মসূচি প্রবর্তন করা হয়। সরকারের দেশব্যাপী নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজশাহীতে ৬০ হাজার দরিদ্র ও দুস্থ মানুষ বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন। স্থানীয় সমাজসেবা বিভাগ তাদের মধ্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ২৮ কোটি ৭৮ লাখ টাকা বিতরণ করেছে। এর মধ্যে ৫৪ হাজার ৬৪১ জন নিয়মিত এবং ৫ হাজার ৩১৪ অতিরিক্ত ভাতা গ্রহণকারী। সমাজসেবা বিভাগ এ সময় বিধবাদের মধ্যে ১১ কোটি ৪২ লাখ টাকা বিতরণ করেছে। এর মধ্যে ২১ হাজার ৮১৭ জন নিয়মিত এবং ১ হাজার ৯৭৭ জন অতিরিক্ত। বর্তমানে বয়স্কভাতা কার্যক্রমে অধিকতর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণ এবং সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য করে তোলার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। বর্তমানে অধিক সংখ্যক মহিলাকে ভাতা কার্যক্রমের আওতায় অন্তর্ভুক্তির লক্ষ্যে মহিলাদের বয়স ৬৫ বছর থেকে কমিয়ে ৬২ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে। ১০ টাকার বিনিময়ে সব ভাতাভোগীর নিজ নামে ব্যাংক হিসাব খুলে ভাতার অর্থ পরিশোধ করা হচ্ছে। সুবিধাভোগীরা তাদের নিজ নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সময়মতো ভাতা পাচ্ছেন। বর্তমান সরকার দরিদ্র মানুষের সাহায্যের জন্য বয়স্কভাতাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তাদের অবস্থার কথা বিবেচনা করে সরকার চলতি অর্থবছর থেকে তাদের বয়স্কভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

16 + = 23