কঠিনতর চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে প্রস্তত সরকার

উন্নয়নের গতিকে এভাবে আরও ত্বরান্বিত করার বাস্তবায়নে সরকার এখন কঠিন থেকে কঠিনতর চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে প্রস্তত। ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়তে কাজ করছে সরকার। দেশের উন্নয়নের জন্য ধনী ও দরিদ্রদের মধ্যে বৈষম্য কমানোর পাশাপাশি সুশাসন প্রতিষ্ঠা করাই সরকারের লক্ষ্য। উন্নয়নের গতিধারাও অব্যাহত রাখার ব্যাপারে তারা বদ্ধপরিকর। ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে সরকার যে রূপকল্প-২০২১ প্রণয়ন করেছিল তা তারা বাস্তবায়ন করতে ও জনগণের কাছে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করতে যাচ্ছে। যেখানে মোট জাতীয় উৎপাদন (জিডিপি) ১০০ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাতে বাংলাদেশের সময় লেগেছিল ৩৮ বছর তা এ সরকারের আমলে এই অর্থবছরেই জিডিপি ২০০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে। এ ধরনের সাফল্যের কারণে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। এমন অভাবনীয় সাফল্য সত্ত্বেও সরকার নিশ্চিন্ত হয়ে বসে থাকছে না। রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়ন এবং ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে জনগণকে পাশে রেখে আরও অনেক দূর পথ চলাকে নিয়েছে একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে। তাই আসুন আমরা সকলেই এই উন্নয়নের গতিকে ত্বরান্বিত করতে, সরকারকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

75 − 69 =