ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে আমরা মুসলিম ওরা আমাদের ভাই

শুরুতেই বলব আমার লেখায় কিছু বানান ভুল হতে পারে আশাকরি সংশোধন করে নেবেন । আমার ফন্টের সমস্যা । আর কেউ ভুলেও না বুঝে না পড়ে লাইক কমেন্ট করবেন না । উল্টা পাল্টা কমেন্ট করতে পারবেন , গালিও দিতে পারবেন মানা নাই । তবে মা ও বোনকে একটু রেহাই দিবেন ।
?oh=b2e58bb86152507ccaf97868798f6604&oe=58698108″ width=”400″ />
আশাকরি এরকমটা জানি কখনই না হয় ।
কারন এর আগেও এরকম পাক-ভারত মুখোমুখি হয়েছে। সব শেষে দেখা গেছে আলচনার মাধ্যমেই এই দু দেশ মৌনতায় ফিরেছে।
আর মাঝখান দিয়ে বলির পাঠা হয় নিরিহ পার্শ্ববর্তী ও অন্তর্ভুক্ত জনগন।
তাই আশাকরি অতীতের মত আবারো সুস্থ আলচনার মধ্য দিয়ে শেষ হবে পাক-ভারতের এই ঐতিহাসিক আন্তর্জাতিক সমস্যা আর ফিরে পাবে এক ইতিবাচক সমঝতার বার্তা ।
কিন্তু একটা মজার বিষয় তা আর না বললেই নয় ।
পাক- ভারতের এই অবস্থাকে কেন্দ্র করে আমার দেশের কিছু লুকিয়া থাকা কথা বের হয়ে আসে। বের হয়ে আসে পূর্ব পুরুষের মায়া জরানো কিছু হা হুতাশ। মাঝে মাঝে দেখা দেয় ক্রধ মাখা আক্রমন মুলক আবেগিও ভাব।
দেখা যায় ভাই ভাইয়ের সেই মধুর মিলন মাখা কথা ।
আজ গেলাম এক দোকানে একটু চা খেতে । মনে হল সৎ ভাইয়ের দোকানে এসেছি। আলচনা চলছে পাক- ভারতের যুদ্ধের কথা । মনে হল আমি জেন আর বাংলাদেশে নেই । মনে মনে ভাবলাম আমি বুঝি এখন আজাদ কাস্মিরে আছি ।
কি কি আলচনা করছে তা একটু বলি ।
একজন বলছে চিন কিন্তু আমগো লগে আছে । এই বার ভারতের হোগায় ঢুইকা যাইব। এইবার মালাওনরা বুঝবো । আমরা কি ?
মানে তারা বুঝে গেল পাকিস্তান জয়ি হয়েছে ।
পাস থেকে একজন বলছেন আমরা সবাই ইসলামের সৈনিক। আমরা ভাই ভাই এক মায়ের সন্তান । আমরা বীর, আমরা সবাই মুসলমান ।
তখন খুব ভালো করে বুঝলাম এদেশে এখনো পাকি সমর্থন কত জন ।
আমি অনেক আগেই বলেছিলাম এদেশে অনেকই আছে জারা কিনা মুখে জয় বাংলা বললেও অন্তরে পাকিস্তানি প্রেম ।
যখন ভারত- পাকিস্তান খেলা হয় তখন যদি আমি প্রশ্ন করি তুমি কোন দলের সাপোর্ট করো । আমাকে অনেকই পাকিস্তানের পক্ষের কথা বলে।
তখন এই বিষয়ে যখন তর্কে যাই তখন আমাকে একটা অজুহাত দেখায়।
সেটা হোল খেলা ধুলায় রাজনীতির কি আছে। আমি নিস্তেজ হয়ে যাই। কারন আমি জানি এর বিপরিতে যুক্তি দেখাই তখন আমার উপর বেক্তিগত আঘাত হানবে।
কিন্তু মজার কথা হল তখন জারা পাকির সমর্থন করেছে আজ তারাই পাক-ভারতের যুদ্ধে সেই পাকির সমর্থনই করছে ।
তাহলে কি প্রমান হল রাজনীতি আছে না নাই । তা এবার আপনারাই বিবেচনা করেন ।
আমার কথা যদি বিশ্বাস না হয় তাহলে আমি বলব আপনি নিজেই একটু পরীক্ষা করে দেখুন ।
পরিশেষে যা বলতে চাই ।
আপনারা যদি আপনাদের ভাইয়ের সঙ্গে থাকতে চান তাহলে একবার ভেবে দেখুন আপনারা যে পথে হাঁটছেন সেটা ঠিক নাকি আমি যা বলছি তা ঠিক ?
আমি যা বলতে চাই তা নিম্নরূপঃ
পাকিস্তানে আপনাদের ভাইয়ের সংখ্যা ১৯ কটি
আর আপনাদের মালাউন দেশে ভাইয়ের সংখ্যা প্রায় ৩২ কটি
এবার ভেবে দেখুন কার দলে যাবেন । ১৯ কটি ভাইয়ের দিকে নাকি ৩২ কটির ।
এখন সময় আছে আপনারা আপনার নিজেকে কেউ মুসলিম, হিন্দু, না ভেবে মিজেকে মানুষ ভাবুন । মানুষের পক্ষে আসেন । এই নির্মম যুদ্ধের সাথে একমত প্রকাশ না করে যুদ্ধের বিপক্ষে দারান।
ধন্যবাদ
টিটপ

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে আমরা মুসলিম ওরা আমাদের ভাই

  1. “এখন সময় আছে আপনারা আপনার
    “এখন সময় আছে আপনারা আপনার নিজেকে কেউ মুসলিম, হিন্দু, না ভেবে মিজেকে মানুষ ভাবুন । মানুষের পক্ষে আসেন । এই নির্মম যুদ্ধের সাথে একমত প্রকাশ না করে যুদ্ধের বিপক্ষে দাড়ান”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 3 = 2