রাতপরী

মহালয়ের অন্ধকার মেতে উঠেছে আজ।
টুপ টুপ করে ঝড়ে পড়েছে নরম ঘাসের ডগায়।
হাতটা চলেছিল কিছুক্ষণ, ধানের নরম শিষের মত কোমল দেহে।
যেখানে আকাশ নিরব, শান্তিতে নিদ্রা গেছে সবাই।
নারী তুমি ফুটাইলে ফুল, সে দেহের পূজারী হয়ে ভাসাই ভেলা।
এভাবেই শীত শেষে এসে যায় বসন্ত, ফিরে আসে নতুন উদ্দমতা।
ধূসর চিলের ডানায় মেতেছে রংধনুরা, শকুন চোখগুলোর শেষ হয় অপেক্ষা।
তোমাদের দেখে কেউ তাকায় খোঁজে অসহায় দৃষ্টি।
পুরুষকুল বড় শান্তি পায় অসহায় মানবীর দেহে।
করুণায় কাতর নারীদেহ বড় প্রিয় তাদের।
আমি নই আলাদা, চোখেই পিশে ফেলি অর্ধেকটা।
রাতপরীরা ভাল থেকো, আবার হবে দেখা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 2 = 1