নতুন কুরান

মনের অজান্তেই মুসলমানরা তৈরি করে নিয়েছে তাদের ২য় কুরান। অবশ্য, এই কুরানের কোন আয়াত আল্লাহ প্রদত্ত কুরানে খুজে পাবেন না। মাঝে মাঝে নাস্তিকদের উদ্দেশ্যে মুসলিম মডারেটরা প্রশ্ন ছুরে দেয় পারলে একটা আয়াত লিখে দেখান কুরানের মত? প্রশ্নের জবাবে হাজার যুক্তি দিলেও তাদের মাথায় ঢুকে না। অবশ্য, এই প্রশ্নের উত্তর তাদের কাছেই আছে। কারণ,তারাই অসংখ্য আয়াত পাঠ করে যার কোন অস্তিত্ব কুরানে নেই। আপনারা বলবেন কুরান পূর্ন মেনে নিলাম আবার বলবেন ব্যাখ্যা হাদিসে আছে মেনে নিলাম। কিন্তু,যে জিনিস কুরানে নাই তা হাদিসে থাকলে মানবো কেন?আপনারাই বা মানেন কোন যুক্তিতে? এটা কি কুরানের অবমাননা নয়? আসুন দেখি আপনাদের হাদিস থেকে নবি কি রেখেগেছেন আপনাদের জন্য,ইবনে আব্বাস বলেন,”রাসূল সাঃ-কুরান ছাড়া আর কিছুই রেখে যান নি “(বুখারি হা/৪৬৪৮)
এই হাদিস থেকে আরও ক্লিয়ার যে মুসলমানদের জন্য একমাত্র গ্রহনযোগ্য কিতাব কুরান। অবশ্য,এই হাদিস নিজেই অন্য সকল হাদিসের গ্রহণযোগ্যতা কে প্রশ্নবিদ্ধ করে। যাইহোক, আসুন জেনে নেই কোন কোন আয়াত আপনি মুসলমানদের ২য় কুরানে পাবেন, যা প্রথম কুরানে নেইঃ
★পাদ মারার দোয়া।
★সূর্য অস্ত যাওয়ার দোয়া।
★আত্তাহিয়াতু।
★রুকু,সেজদাহর দোয়া।
★গোসল করার দোয়া।
★বাথরুমে প্রবেশ এবং বের হওয়ার দোয়া।
★পেশাব করার দোয়া।
★ভাল-মন্দ স্বপ্ন দেখার দোয়া।
★ঘর থেকে বের হওয়ার দোয়া।
★সহবাস শুরু করার দোয়া।
★বীর্য বের হওয়ার দোয়া।
★দাওয়াত খাওয়ার দোয়া।
★নতুন ফসল দেখার দোয়া।
★কাপড় পড়ার সময় আয়না দেখার দোয়া।।
★আযু করার ১৮ টি দোয়া।
★নতুন চাঁদ দেখার দোয়া।
★ঋণ পরিশোধ করার দোয়া।
★মসজিদে প্রবেশ-বাহির হওয়ার দোয়া।
(ইত্যাদি আরও আয়াত পেতে পড়তে পাড়েন আহলে হাদিস বা সুন্নি প্রকাশিত সহিহ দোয়ার ভান্ডার)
এরপর,থেকে আর দয়া করে বলবেন না যে কুরানের বাইরে আয়াত তৈরি করা যায় না। আপনারাই কুরানের বাইরের এসব আয়াত সকাল-সন্ধ্যা মুখে আওরান।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 + 2 =