অংশুর বঙ্গ দর্শন

অংশুর বাবা ওর জন্য একটি চমৎকার পুতুল কিনে নিয়ে এসেছেন। অংশু কার্টুনের খুবই ভক্ত, তাই ও জানে বাবার আনা এ পুতুলটার নাম পিনোকিও। কার্টুনে দেখায়, পিনোকিওর সামনে মিথ্যা বললেই পিনোকিওর নাক লম্বা হয়ে যায়। পুতুলটা অংশুর খুব পছন্দ হয়েছে। ও স্কুল থেকে এসে প্রায় সারাটা দিনই পুতুলটা নিয়ে খেলেছে। সন্ধ্যায় পুতলটা সাথে নিয়েই ও পড়তে বসেছে। আজ স্কুলে পড়া দিয়েছে, “বাংলাদেশ” নিয়ে একটি রচনা পড়ে আসতে হবে। অংশু বই খুলে পড়া শুরু করে। কিছুক্ষন পরেই ও খুবই অবাক হয়ে খেয়াল করে বাবার আনা পুতুলটার নাক সত্যি সত্যিই লম্বা হচ্ছে। ও দৌড়ে এসে হন্তদন্ত হয়ে বাবার হাতে পুতুলটা দিয়ে বাবাকে বলে, বাবা বাবা দেখো পিনাকিওর নাক সত্যি সত্যিই লম্বা হচ্ছে । কিন্তু বাবা ওর কথা শুনতেই চাইলেন না। মুচকি হেসে অংশুকে বললেন, কই তুমিই তো এখন বানিয়ে বানিয়ে কথা বলছো, পিনোকিওর নাক লম্বা হচ্ছে কই? অংশু ভুরু কুচকে বললো, আমি বানিয়ে বানিয়ে কথা বলছিনা। আর পুতুলটার যখন নাক লম্বা হয় তখন আমি পড়ছিলাম। কথা বলছিলাম না। অংশু এবার রেগে গিয়ে বলে, তুমি বিশ্বাস করছোনা কেনো? বাবা এবার বুঝতে পেরেছেন এমন একটা ভান করে বললেন, আচ্ছা তাহলে আবার এখন পড়ো। অংশু ঘন ঘন পুতুলটার দিকে তাকাতে তাকাতে আবার পড়তে শুরু করে “বাংলাদেশ” রচনাটা। …………”আমাদের দেশের নাম বাংলাদেশ। বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়ীক, স্বাধীন রাষ্ট্র।”………
এতটুকু পড়ার পরই অংশুর বাবা চমকে লাফিয়ে উঠে হাত থেকে পুতুলটা ফেলে দেন। উনি মাটিতে পড়ে থাকা পুতুলটার দিকে এক দৃৃষ্টিতে তাকিয়ে থর থর করে কাঁপতে থাকেন।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 1 = 9