বীজ বপনের প্রক্রিয়া জামায়েত শিবির খুব ভালো ভাবে জানে।

বীজ বপনের প্রক্রিয়া জামায়েত শিবির খুব ভালো ভাবে জানে। গতকাল আমি আমার স্টুডেন্টের বাসায় যখন পড়াতে যাই, তখন আমি ওর টেবিলের ওপর একটা বই দেখতে পাই। বইয়ের নামছিল ‘মানুষ সৃষ্টির উদ্দেশ্য’। আমি খুব ভালো ভাবেই জানি যে, ওর ক্লাস 10 এ কোনো এমন টেক্সট বই নেই. আমি ওকে অনেক আদার্স বই পড়তে সাজেস্ট করি. যেমন সাহিত্য, সাইন্সফিকশন, ইতিহাস ইত্যাদি। বইটা হাতে নিয়ে সূচীপত্রে দৃষ্টি কারলো “মুজাহিদদের মর্যাদা” লেখাটা। ২৮ নাম্বার পেজ দেখে গেলাম পেজটাতে। তার পরে দেখি যা লিখা ছিল প্রথম লাইনে,“আল্লাহ্‌ সেই সব মুজাহিদকে অত্যধিক ভালবাসেন যারা আল্লাহর পথে সীসা ঢালা-প্রাচীরের মত কাতারবদ্ধ হয়ে যুদ্ধ করে।” এছাড়াও অনেক কিছু পড়েছিলাম, যা পড়ে আমি চিন্তায় পড়ে গেছি!!!!!! আমি আমার স্টুডেন্টকে জিজ্ঞাসা করে জানতে পারি যে, বইটা ওকে স্কুল থেকে দাওয়া হয়েছে। আর এও জানতে পারি যে জামায়েত কর্মীরা এই কাজ করে যাচ্ছে। বাকি আরও কিছু বুঝতে পেরেছি, যা না বলাই শ্রেয়। কিন্তু বর্তমান সরকার বার বার শুধু বলেই যাচ্ছে যে, অসাম্প্রদায়িক সমাজ গড়ে তুলতে চাই। কিন্তু রাষ্ট্রের মাঝে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের মাঝে যেই সাম্প্রদায়িক বীজ বপন করা হচ্ছে, যেই সাম্প্রদায়িক জিহাদি বিষ ঢেলে দেয়া হচ্ছে, সেদিকে অতন্দ্র হীনতা কেন?

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

40 − = 31