ভবঘুরে

প্রচন্ড কুয়াশা..
সকাল বেলাই বড় আপার সাথে ঝগড়া করে তার বাসা থেকে চলে এসেছি ৷ ঝগড়াটা অবশ্য আমি নিজ ইচ্ছাতে করেছি,চাচ্ছিলাম না আপার বাসায় থাকতে, বেশিদিন কোথাও থাকলে সেই জায়গা ও আশেপাশের মানুষের প্রতি মায়া জন্মে যায় ৷
কোন মায়ায় জড়াতে নেই,মায়া খুব ভয়ানক জিনিস ৷

চায়ের দোকানে বসে আছি, গাঢ় লিকারের রং চা খাচ্ছি আর একটা গোল্ডলিফ টানছি৷
শীতের সকালে গরম ধোয়া তোলা চা আর সিগারেট বেশ আরাম দেয় ৷
সিগারেটের দাম যে হারে বাড়ছে তাতে কমদামী ডারবি কিংবা হলিউড খেতে হবে ৷
তবে মার্কেটে টিকে থাকতে কমদামী সিগারেট ও বেশ ভালো ফ্লেভার দিচ্ছে….

ঠিক করেছি রিকসা নিয়ে সারাটা দিন ঘুরবো ৷
আজকাল রিকসাওয়ালা থেকে শুরু করে কাছের বন্ধুদের ও মামা বলে ডাকার ট্রেন্ড চালু হয়েছে ৷
মানুষ অচেনা মানুষ ও বন্ধুদেরও কিভাবে বাপের শালা বানিয়ে দেয় ভাবতেই অবাক লাগে!!!!!

মধ্যবয়সী এক চাচার রিকসায় ঘুরছি,
চাচার সাথে গল্প করেও বেশ মজা পাচ্ছি ৷
চাচা তার জীবনের সুখ দুঃখের গল্প করছে ৷
চাচার যৌবনকালের গল্প করছে ৷ এই বুড়ো বয়সেও চাচা তার বউকে কতটা ভালবাসে সেটা তার গল্পেই বোঝা যাচ্ছে ৷
এটুকু মিশেই বুঝতে পারলাম চাচা ব্যাক্তিত্বশীল মানুষ ৷ এই বয়সেও সন্তানদের বোঝা হতে চায়নি তাই শহরে এসে রিকসা চালাচ্ছে ৷

প্রায় দুপুর গড়িয়ে এসেছে বেশ ক্ষুধাও লেগেছে,
চাচাকে বললাম আচ্ছা চাচা দুপুরে আপনি কোথায় খাবার খান?
ফুটপাতে সস্তায় ভাত তরকারি পাওন যায়, ওইহানেই খাই ৷
আজ যদি আপনার সাথে দুপুরে ফুটপাতের খাবার খাই তবে সমস্যা আছে?
না সমস্যা নাই, তয় আপনে শিক্ষিত মানুষ হইয়া ওইহানে খাইবেন কেন?
আজ আপনার সাথে খেতে মন চাচ্ছে তাই ৷
আইচ্ছা চলেন….

চাচার সাথে বসে ফুটপাতে আলু ভর্তা ডাল আর সবজি দিয়ে ভাত খাচ্ছি ৷
অমৃতের মতো লাগছে…
পৃথিবীর যত অমৃত সব সাধারন জিনিসের ভিতরেই থাকে ৷
শুধু কষ্টকরে খুঁজে নিতে হয় ৷৷৷৷৷

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “ভবঘুরে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

9 + 1 =