নৈশব্দিক প্রতিধ্বনি- সোহেল রানা

চারিপাশে শুধু বিষাদের ঘনঘটা
বিষাক্ত বাতাসের উটকো গন্ধ
নিমেষেই আটকে ফেলছে আলোটাকে
তিব্র অন্ধকারের মাঝে
এক টুকরো আলো
কতোটুকুইবা প্রভাব বিস্তার করতে পারে!
আলোটা নৈশব্দিক বিচ্ছিন্নতা হতে
নিভুনিভু করতে করতে হইতো
মিলিয়ে যাবে কোন এক সময়
কিন্তু আলোটা কি সত্তিই অস্তিত্বহীন হয়ে পড়বে?
না, তা কি করে হয়!
দুরন্ত ষাঁড় তো চুড়ান্ত প্রবহমান
ইকারুসের পাখনায় ভর করে
রোমান সাম্রাজ্যর বিশালতাকে অতিক্রম করতে
তার খুব বেশি বেগ পেতে হবে না
কেননা তার আওতাধীন আছে
এক অখন্ড হুদভুকায়ীত শক্তি
যার লাভা উদগিরীত হয়ে
একদিন অন্ধকারের কর্ণ এ নিপতিত করবে
আর নিমেষেই অস্তিত্ব হারাবে অন্ধকার।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

14 − 12 =