সব বাধা পেরিয়ে ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী শিল্পোদ্যোক্তার সংখ্যা ২৩ লাখ

দোহার উপজেলার নারিশা এলাকার আরিফা আক্তার রানু। শখের বশে শিখেছিলেন হাতের সাহায্যে বুননের কাজ। পরে শখের কাজই আরিফাকে এনে দিয়েছে সাফল্য। দক্ষ হাতে বানানো পাট ও পুঁতির জিনিসপত্র বাজারজাত করে অল্পদিনেই সফলতা পেয়েছেন। তার এ সফলতার খবর ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে। সফল নারী উদ্যোক্তা হিসেবে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে শ্রেষ্ঠ জয়িতা ঘোষণা করা হয়েছে তাকে। এমন অসংখ্য জয়িতা এখন দেশের অর্থনীতির ভিতকেশক্তিশালী করে তুলছেন। বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স (আইএফসি) তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে এখন ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী শিল্পোদ্যোক্তার সংখ্যা ২৩ লাখ। সবার সাথে বন্ধুত্ব,কারো সাথে বিদ্বেষ নয় আমাদের এই নীতি সকল দেশের সাথে গড়ে তুলেছে সৌহার্দ্য আর সম্প্রীতি। বিশ্বাঙ্গনে হচ্ছে বাংলাদেশের প্রশংসা অঢেল ছোট্ট একটি দেশ হয়েছে আজ উন্নয়নের রোল মডেল। এই সাফল্য ধরে রাখতে সকলেই পাশে থাকুন সোনার বাংলা গড়তে আপনিও অবদান রাখুন।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

50 − = 48