সুখ ও দুঃখ

সুখ ও দুঃখঃ

১.১ জগত সংসার বৈচিত্রময়। আর এই বৈচিত্রময়তাই সুখ ও দুঃখের কারন ঘটায়। সুখ ও দুঃখ আপেক্ষিক বিষয়। একজনের জন্য যা সুখের কারন, অন্য জনের জন্য তাহাই দুঃখের কারন হতে পারে। বৈচিত্র্যময়তার যে অংশ সুখের কারন ঘটায় ঠিক তার বিপরীত বৈচিত্র্যময়তা দুঃখের কারন ঘটায়।

১.২ সুখ যদি পজিটিভ হয়, দুঃখ নেগেটিভ। দুঃখের সংশ্রব ব্যতীত সুখকে জানা যায়না এবং বিপরীতক্রমেও উহা সত্য। নেগেটিভ ইলেকট্রনকে জানতে হলে উহার বিপরীত কনিকা পজিটিভ প্রোটনের সঙ্গে ইলেকট্রনের মিথোষ্ক্রিয়াকে জানতে হবে। জানতে হবে চার্জ নিরপেক্ষ নিউট্রাল নিউট্রনকে। অর্থাৎ কোন কিছুকে জানতে তার বিপরীত অবস্থার সংস্পর্শেও আপনাকে আসতে হবে। সুখকে জানতে হবে দুঃখকে অনুভব করে এবং বিপরীতক্রমেও উহা সত্য। শধু পজিটিভ কিংবা শুধু নেগেটিভে বাস্তবতা নেই। বাস্তবতা হলো পজিটিভ, নেগেটিভ ও নিরপেক্ষ কনিকার মিথোষ্ক্রিয়ার ফল। ইলেক্ট্রন, প্রোটন ও নিউট্রনের মিথোষ্ক্রিয়ার ফল হলো পরমানু। আর এই পরমানুই বাস্তব।

১.৩ আপনি ধনীর ঘরে জন্মগ্রহন করেছেন। দুঃখ কি আপনি জানেননা। প্রকৃত পক্ষে সুখ কি তাও আপনি জানেননা। আপনি গরীবের স্পর্শে না আসলে আপনি বুঝবেননা সুখ প্রকৃত পক্ষে কি এবং বিপরীতক্রমে উল্টোটাও সত্য। আপনি দুঃখ-কষ্টের সন্মুখীন না হলে আপনি প্রকৃত সুখ যে কি আপনি তা কখনও জানতে পারবেননা। আপনার জীবন হবে বড়ই একঘেয়েমী। বৈচিত্রময়তার সংস্পর্শেই কেবল মাত্র সুখ ও দুঃখের মর্ম উপলব্ধি করতে পারবেন।

১.৪ আর প্রকৃতির বৈচিত্র্যময়তার মধ্যেই সুখ-দুঃখের অবস্থান। সুখ ও দুঃখ উভয়ের সংস্পর্শে না আসলে প্রকৃতির বৈচিত্রময়তার স্পন্দন অনুভব করা সম্ভব নয়। প্রকৃতির বৈচিত্র্যময়তার স্পন্দন অনুভব ব্যতীত আপনার পক্ষে প্রকৃত জ্ঞানী হওয়া সম্ভব নয়। আপনি মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান তারমানে সুখ ও দুখ উভয়ের সংস্পর্শে আসার সম্ভবনাও আপনার বেশী। তারমানে বৈচিত্র্যময়তার সংস্পর্শে যাওয়ার সুযোগও আপনার বেশী। যার অর্থ হলো প্রকৃত জ্ঞানী হওয়ার পরিবেশ আপনার অনুকূলে।

১.৫ আপনি যখন জগতের পজিটিভ ও নেগেটিভ উভয়কে জানবেন, যখন সুখ ও দুঃখ উভয়ই সমভাবে আপনার মস্তিষ্কের নিউরনের অনুরনে অনুরনিত হতে থাকবে তখনই আপনার মধ্যে বিরাজ করবে এক শূন্যানুভূতি।ইহা জ্ঞানেরই পূর্নতা।তবে এ পূর্নতা পরম নয়, আপেক্ষিক। মহামতি বুদ্ধ এই পূর্নতাই অর্জন করেছিলেন। আর তাই তিনি ঘোষণা করলেন দুঃখ মোচনের অমর বানী তাঁর নৈতিক শিক্ষা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 6 = 1